বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > Atmanirbhar Bharat Rozgar Yojana: কর্মসংস্থানের জন্য EPFO-এর মাধ্যমে ভর্তুকি দেবে কেন্দ্রে, কীভাবে মিলবে, জানুন
করোনাভাইরাস পরিস্থিতিতে আরও কর্মসংস্থান তৈরির লক্ষ্যে বিভিন্ন সংস্থাকে বিশেষ ভর্তুকি দিতে চলেছে কেন্দ্রীয় সরকার। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য রয়টার্স)
করোনাভাইরাস পরিস্থিতিতে আরও কর্মসংস্থান তৈরির লক্ষ্যে বিভিন্ন সংস্থাকে বিশেষ ভর্তুকি দিতে চলেছে কেন্দ্রীয় সরকার। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য রয়টার্স)

Atmanirbhar Bharat Rozgar Yojana: কর্মসংস্থানের জন্য EPFO-এর মাধ্যমে ভর্তুকি দেবে কেন্দ্রে, কীভাবে মিলবে, জানুন

  • জেনে নিন বিস্তারিত।

করোনাভাইরাস পরিস্থিতিতে আরও কর্মসংস্থান তৈরির লক্ষ্যে বিভিন্ন সংস্থাকে বিশেষ ভর্তুকি দিতে চলেছে কেন্দ্রীয় সরকার। সেই প্রকল্পের আওতায় যে সংস্থাগুলি নয়া কর্মীদের নিযুক্ত করবে, শর্তসাপেক্ষে সেগুলিকে ভর্তুকি দেওয়া হবে। এমনটাই ঘোষণা করলেন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারামন।

বৃহস্পতিবার 'আত্মনির্ভর ভারত অভিযান'-এর আওতায় তৃতীয় দফার আর্থিক প্যাকেজের ঘোষণা করে কেন্দ্র। করোনার কবলে পড়া অর্থনীতিকে চাঙ্গা করার অঙ্গ হিসেবে 'আত্মনির্ভর রোজগার যোজনা'-র ঘোষণা করা হয়। সাংবাদিক বৈঠকে সীতারামন বলেন, 'কোভিড থেকে ঘুরে দাঁড়ানোর সময় কর্মসংস্থান তৈরির ক্ষেত্রে উৎসাহ দিতে আত্মনির্ভর রোজগার যোজনার ঘোষণা করা হচ্ছে।'

একনজরে 'আত্মনির্ভর রোজগার যোজনা' সম্পর্কে বিস্তারিত জেনে নিন -

১) এমপ্লয়িজ প্রভিডেন্ট ফান্ড অর্গানাইজেশনে (ইপিএফও) নথিভুক্ত সংস্থাগুলি যদি কোনও কর্মী নিয়োগ করে, তাহলে সেই সংস্থাগুলিকে ভর্তুকি দেওয়া হবে। যে কর্মীদের ইপিএফও থাকবে না, তাঁদের ক্ষেত্রেই এই সুবিধা মিলবে।

২) গত ১ মার্চ থেকে ৩০ সেপ্টেম্বরের মধ্যে যে কর্মীরা চাকরি হারিয়েছেন, তাঁদের নিয়োগের ক্ষেত্রেও সেই সুবিধা মিলবে। সেই কর্মীদের ইপিএফও অ্যাকাউন্ট থাকলেও সংস্থাগুলি ভর্তুকি পাবে।

৩) পয়লা অক্টোবর বা তারপর সেই কর্মীদের নিয়োগ করা হলে তবেই ভর্তুকির সুবিধা পাবে সংস্থাগুলি। সেক্ষেত্রে কর্মীদের মাসিক বেতন ১৫,০০০ টাকা বা তার কম হতে হবে। ২০২১ সালের ৩০ জুন পর্যন্ত এই প্রকল্প চালু থাকবে। দু' বছরের জন্য ভর্তুকি দেওয়া হবে।

৪) দুটি শর্তে সেই ভর্তুকি দেওয়া হবে। প্রথমত, যে সংস্থায় সর্বোচ্চ ১,০০০ জন কর্মী আছেন, সেখানে কর্মীদের ভাগের ১২ শতাংশ (বেতনের ১২ শতাংশ) এবং সংস্থার ভাগের ১২ শতাংশ (বেতনের ১২ শতাংশ) মিলিয়ে মোট ২৪ শতাংশ ভর্তুকি দেবে কেন্দ্র। দ্বিতীয়ত, যে সংস্থায় সর্বোচ্চ ১,০০০ জনের বেশি কর্মী আছেন, সেখানে শুধুমাত্র কর্মীর ভাগের ১২ শতাংশ (বেতনের ১২ শতাংশ) ভর্তুকি দেবে কেন্দ্র।

৫) কর্মী সংখ্যার ভিত্তি হিসেবে ৩০ সেপ্টেম্বর ধরা হয়েছে। সেই সময় যদি কোনও সংস্থায় যদি সর্বোচ্চ ৫০ জন কর্মী থাকেন, তাঁদের ন্যূনতম দু'জন নয়া যোগ্য কর্মী নিয়োগ করতে হবে। তবেই ভর্তুকি মিলবে। একইভাবে কোনও সংস্থায় যদি ৫০ জনের বেশি কর্মী থাকে, তাঁদের ন্যূনতম পাঁচজন যোগ্য কর্মীকে নিয়োগ করতে হবে। তবেই সুবিধা দেবে কেন্দ্র।

৬) অর্থমন্ত্রী জানিয়েছেন, যোগ্য কর্মীদের ইপিএফও অ্যাকাউন্টে কেউ টাকা পাঠানো হবে। সেজন্য শুধুমাত্র আধার কার্ড লিঙ্ক করতে হবে।

আত্মনির্ভর রোজগার যোজনা' নিয়ে ডিভিএস অ্যাডভাইজার্স এলএলপিয়ের প্রতিষ্ঠাতা দিবাকর বিজয়সারথি বলেন, 'ঘুরে দাঁড়ানো আর্থিক গতিবিধি এবং বিভিন্ন ক্ষেত্রের জন্য বিভিন্ন ঘোষণার মধ্যে আত্মনির্ভর ভারত ৩.০-এর ঘোষণা করা হয়েছে। অতিরিক্ত নিয়োগের শর্তে ইপিএফে কর্মী এবং সংস্থার ভাগে ভর্তুকি দেওয়ার মতো প্রকল্প চালু করা হয়েছে। উৎপাদন সংক্রান্ত বিশেষ উৎসাহ বা ইনসেনটিভ প্রকল্প এবং অন্যান্য প্রকল্পের পাশাপাশি দীর্ঘকালে তা সার্বিকভাবে উৎপাদনের খরচ কমানোর ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা নেবে।'

বন্ধ করুন