বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > ডার্ক চকোলেট, দুধ থেকে মদ - নিয়মিত ওষুধ খেলে এড়িয়ে চলুন এইসব খাবার, পাবেন সুফল

ডার্ক চকোলেট, দুধ থেকে মদ - নিয়মিত ওষুধ খেলে এড়িয়ে চলুন এইসব খাবার, পাবেন সুফল

নিয়মিত ওষুধ খেলে খাওয়ার-দাওয়ার যত্ন নেওয়া হয়ে ওঠে জরুরি। আবার সঠিক খাদ্য নির্বাচনও গুরুত্বপূর্ণ। এমন অনেক খাবার আছে, যা ওষুধের পাশাপাশি খেলে ওষুধের প্রভাব হ্রাস পায়। সাধারণত কোন কোন খাবার ওষুধের পাশাপাশি খাওয়া উচিত নয়, তা জেনে নিন -

টক ফল- ওষুধ খেয়ে থাকলে তার সঙ্গে ভুলেও টক ফল খাবেন না। যে সমস্ত কোষ ওষুধের উপাদানগুলিকে শরীরের নানা স্থানে বহন করে, সেগুলিকে টক ফল প্রভাবিত করে। ৫০টির চেয়ে বেশি ওষুধের কার্যকারিতা কম করতে সক্ষম টক ফল। এটি ফেক্সোফেনাডাইন (অ্যালেগ্রা) বৃদ্ধি করে, যার ফলে অ্যালার্জি হতে পারে এবং ওষুধের প্রভাবও কমে যায়।
1/8টক ফল- ওষুধ খেয়ে থাকলে তার সঙ্গে ভুলেও টক ফল খাবেন না। যে সমস্ত কোষ ওষুধের উপাদানগুলিকে শরীরের নানা স্থানে বহন করে, সেগুলিকে টক ফল প্রভাবিত করে। ৫০টির চেয়ে বেশি ওষুধের কার্যকারিতা কম করতে সক্ষম টক ফল। এটি ফেক্সোফেনাডাইন (অ্যালেগ্রা) বৃদ্ধি করে, যার ফলে অ্যালার্জি হতে পারে এবং ওষুধের প্রভাবও কমে যায়।
দুধ- কয়েক ধরনের অ্যান্টিবায়োটিকের কাজে বাধা দেয় দুধ। এতে থাকা ক্যালসিয়াম, ম্যাগনেশিয়ামের মতো মিনারেল, কেসিন প্রোটিনের সঙ্গে মিলে ওষুধের কার্যকারিতা হ্রাস করে। অ্যান্টিবায়োটিক খেয়ে থাকলে দুধ পান থেকে বিরত থাকুন।
2/8দুধ- কয়েক ধরনের অ্যান্টিবায়োটিকের কাজে বাধা দেয় দুধ। এতে থাকা ক্যালসিয়াম, ম্যাগনেশিয়ামের মতো মিনারেল, কেসিন প্রোটিনের সঙ্গে মিলে ওষুধের কার্যকারিতা হ্রাস করে। অ্যান্টিবায়োটিক খেয়ে থাকলে দুধ পান থেকে বিরত থাকুন।
ডার্ক চকোলেট- কোনও রোগের হাত থেকে মুক্তি পেতে ওষুধ খেয়ে থাকলে, তার প্রভাবে শরীর স্বস্তি অনুভব করে ও ভালো ঘুম আসে। কিন্তু ডার্ক চকোলেট খেলে শরীরে মিথাইলফেনাডেট সৃষ্টি হয়, যা শরীরকে উত্তেজিত করে তোলে। ওষুধ খাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে ডার্ক চকোলেট খেলে তার প্রভাব হ্রাস পায়।
3/8ডার্ক চকোলেট- কোনও রোগের হাত থেকে মুক্তি পেতে ওষুধ খেয়ে থাকলে, তার প্রভাবে শরীর স্বস্তি অনুভব করে ও ভালো ঘুম আসে। কিন্তু ডার্ক চকোলেট খেলে শরীরে মিথাইলফেনাডেট সৃষ্টি হয়, যা শরীরকে উত্তেজিত করে তোলে। ওষুধ খাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে ডার্ক চকোলেট খেলে তার প্রভাব হ্রাস পায়।
মদ্যপান- মদ ব্লাড প্রেশার ও হৃদরোগের ওষুধের প্রভাব অনেকাংশে কমিয়ে দেয়। শুধু তাই নয়, ওষুধের কিছু উপাদানের সঙ্গে মদ মিশে গিয়ে ভয়ঙ্কর পার্শ্ব প্রতিক্রিয়াও ঘটাতে পারে।
4/8মদ্যপান- মদ ব্লাড প্রেশার ও হৃদরোগের ওষুধের প্রভাব অনেকাংশে কমিয়ে দেয়। শুধু তাই নয়, ওষুধের কিছু উপাদানের সঙ্গে মদ মিশে গিয়ে ভয়ঙ্কর পার্শ্ব প্রতিক্রিয়াও ঘটাতে পারে।
মুলেঠি- অনেকেই হজমশক্তি বৃদ্ধির জন্য মুলেঠি খেয়ে থাকেন। এতে উপস্থিত গ্লাইসিরিজিজিন নামক উপাদান সাইক্লোস্পোরিন-সহ বেশ কয়েকটি ওষুধের প্রভাব হ্রাস করে। এ ছাড়াও ট্রান্সপ্লান্টের জন্য কোনও ওষুধ খেয়ে থাকলে নিজের তালিকা থেকে মুলেঠি বাদ দিন। 
5/8মুলেঠি- অনেকেই হজমশক্তি বৃদ্ধির জন্য মুলেঠি খেয়ে থাকেন। এতে উপস্থিত গ্লাইসিরিজিজিন নামক উপাদান সাইক্লোস্পোরিন-সহ বেশ কয়েকটি ওষুধের প্রভাব হ্রাস করে। এ ছাড়াও ট্রান্সপ্লান্টের জন্য কোনও ওষুধ খেয়ে থাকলে নিজের তালিকা থেকে মুলেঠি বাদ দিন। 
আয়রন সাপ্লিমেন্ট- হাইপোথায়রয়েডিজমের ওষুধ অথবা মাল্টিভিটামিন খেলে লক্ষ্য রাখুন যাতে তাতে আয়রন না থাকে। আয়রন সাপ্লিমেন্টের প্রয়োজনীয়তা অনুভব করলেপ্রতিদিনের ওষুধের সঙ্গে তা খাবেন না। দুটি ওষুধের মধ্যেকার সময়ের অন্তর সম্পর্ক নিজের চিকিৎসকের পরামর্শ নিন।
6/8আয়রন সাপ্লিমেন্ট- হাইপোথায়রয়েডিজমের ওষুধ অথবা মাল্টিভিটামিন খেলে লক্ষ্য রাখুন যাতে তাতে আয়রন না থাকে। আয়রন সাপ্লিমেন্টের প্রয়োজনীয়তা অনুভব করলেপ্রতিদিনের ওষুধের সঙ্গে তা খাবেন না। দুটি ওষুধের মধ্যেকার সময়ের অন্তর সম্পর্ক নিজের চিকিৎসকের পরামর্শ নিন।
অ্যান্টি অ্যাপিলেপ্টিক ওষুধ- এই ওষুধ মৃগী কম করে। তবে গর্ভনিরোধক ওষুধ খেয়ে থাকলে, উপরোক্ত ওষুধটি খাবেন না। সমীক্ষায় অনুযায়ী, অ্যান্টি অ্যাপিলেপ্টিক ওষুধ গর্ভনিরোধক ওষুধের কার্যকারিতা হ্রাস করে। আবার এর ফলে একাধিক পার্শ্বপ্রতিক্রিয়াও দেখা দেয়।
7/8অ্যান্টি অ্যাপিলেপ্টিক ওষুধ- এই ওষুধ মৃগী কম করে। তবে গর্ভনিরোধক ওষুধ খেয়ে থাকলে, উপরোক্ত ওষুধটি খাবেন না। সমীক্ষায় অনুযায়ী, অ্যান্টি অ্যাপিলেপ্টিক ওষুধ গর্ভনিরোধক ওষুধের কার্যকারিতা হ্রাস করে। আবার এর ফলে একাধিক পার্শ্বপ্রতিক্রিয়াও দেখা দেয়।
ভিটামিন কে- রক্ত জমাট বাধা রোধ করার ওষুধ খেলে নিজের ভিটামিন কে-র পরিমাণের ওপর নজর দিন। কারণ এটি রক্ত পাতলা করতে পারে, ওষুধের প্রভাব কমাতে পারে ও রক্ত জমাট বাধার সম্ভাবনা আরও বৃদ্ধি করে থাকে। ব্রকোলি, ব্রাসেলস স্প্রাউট, কেল ও পালকে ভিটামিন কে সবচেয়ে বেশি থাকে। নিজের ওষুধের সঙ্গে এই সমস্ত খাদ্যবস্তু কম খাওয়া উচিত।
8/8ভিটামিন কে- রক্ত জমাট বাধা রোধ করার ওষুধ খেলে নিজের ভিটামিন কে-র পরিমাণের ওপর নজর দিন। কারণ এটি রক্ত পাতলা করতে পারে, ওষুধের প্রভাব কমাতে পারে ও রক্ত জমাট বাধার সম্ভাবনা আরও বৃদ্ধি করে থাকে। ব্রকোলি, ব্রাসেলস স্প্রাউট, কেল ও পালকে ভিটামিন কে সবচেয়ে বেশি থাকে। নিজের ওষুধের সঙ্গে এই সমস্ত খাদ্যবস্তু কম খাওয়া উচিত।
অন্য গ্যালারিগুলি