বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > এগোচ্ছে বাংলাদেশ, ফলে লাভবান ভারত! রফতানি গন্তব্যের সেরা পাঁচে প্রতিবেশী দেশ
প্রতীকী ছবি : রয়টার্স (REUTERS)
প্রতীকী ছবি : রয়টার্স (REUTERS)

এগোচ্ছে বাংলাদেশ, ফলে লাভবান ভারত! রফতানি গন্তব্যের সেরা পাঁচে প্রতিবেশী দেশ

  • গত এক দশকে বাংলাদেশ অভূতপূর্ব ভাবে এগিয়েছে অর্থনৈতিক ভাবে। আর কয়েক বছরে মাথা পিছু আয়ের নিরিখে ভারতকেও ছাপিয়ে যেতে চলেছে বাংলাদেশ।

গত এক দশকে বাংলাদেশ অভূতপূর্ব ভাবে এগিয়েছে অর্থনৈতিক ভাবে। আর কয়েক বছরে মাথা পিছু আয়ের নিরিখে ভারতকেও ছাপিয়ে যেতে চলেছে বাংলাদেশ। আর তাই বাংলাদেশের সঙ্গে ভারতের বাণিজ্য দিনকে দিন আরও বাড়ছে। আ করোনা আবহে প্রতিবেশী দেশে পণ্য রফতানি করা অনেক সহজ ছিল। বাংলাদেশের জন্যেও প্রতিবেশী দেশ থেকে আমদানি করা সহজ ছিল। তাছাড়া ২০২০ সালেও বাংলাদেশ মন্দার কবলে পড়েনি। তাই তাদের ক্রয় ক্ষমতা ছিল বেশি।

ভারতের সেরা রফতানি গন্তব্য দেশের তালিকায় থাকা সেরা ২০টি দেশের মধ্যে মাত্র চারটি দেশে রফতানি বেড়েছে ভারতের। করোনা আবহে ভারত চিনে রফতানির পরিমাণ বাড়িয়েছে ২৭.৫ শতাংশ। এছাড়া ইন্দোনেশিয়ায় ভারত গত অর্থবর্ষের তুলনায় ২০২০-২১ সালে ২১.৭ শতাংশ পরিমাণ বেশি পণ্য রফতানি করেছে। ওদিকে ব্রাজিলে ভারত রফতানির পরিমাণ বাড়িয়েছে ৭ শতাংশ। আর তাছাড়া বাংলাদেশ তো আছেই এই তালিকায়।

এদিকে সার্বিক ভাবে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে ৫১.৬ বিলিয়ন ডলার পরিমাণের পণ্য রফতানি করেছে ভারত। এই সময়কালে চিনে ২১.২ বিলিয়ন ডলার পরিমাণের পণ্য রফতানি করেছে ভারত। এবং সংযুক্ত আরব আমিরশাহিতে ১৬.৭ বিলিয়ন ডলার পরিমাণের পণ্য রফতানি করেছে ভারত। এরপরই তালিকায় রয়েছে বাংলাদেশ। এছাড়া সিঙ্গাপোর (৮.৭ বিলিয়ন ডলার), যুক্তরাজ্য (৮.২ বিলিয়ন ডলার), জার্মানি (৮.১ বিলিয়ন ডলার), নেপাল (৬.৮ বিলিযন ডলার) এবং নেদারল্যান্ডস (৬.৫ বিলিয়ন ডলার) ভারতের সেরা রফতানি গন্তব্য দেশের তালিকায় রয়েছে।

বাংলাদেশে ২০২০-২১ অর্থবর্ষে ভারত ১.৫ বিলিয়ন ডলার পরিমাণের তুলো রফতানি করেছে, ৫১৭ মিলিয়ন ডলার পরিমাণের ইলেক্ট্রিসিটি। এছাড়া ৪৯৬ মিলিয়ন ডলার পরিমাণের জ্বালানি, ৩৫৪ মিলিয়ন ডলার পরিমাণের চাল এবং ৩২৮ মিলিয়ন ডলার পরিমাণের ভুট্টা রফতানি করেছে ভারত।

উল্লেখ্য, গত কয়েক দশক ধরেই ভারত বাংলাদেশকে বিশাল পরিমাণে তুলো রফতানি করে আসছে। বাংলাদেশের রেডিমেড গার্মেন্টস শিল্পের জন্য এটি খুবই জরুরি। রেডিমেড গার্মেন্টস বাংলাদেশের উত্পাদন জিডিপির ৪৫ শতাংশ এবং রফতানির ৮৫ শতাংশ। এই আবহে কোভিড পরবর্তী সময়ে বাংলাদেশের গার্বেন্টস শিল্প আরও ফুলে ফেপে উঠলে তাতে লাভবান হবে ভারতও। ইতিমধ্যেই ২০২১ সালের জানুয়ারি থেকে মার্চের মধ্যকার ত্রৈমাসিকে (২০২০-২১ অর্থবর্ষের শেষ ত্রৈমাসিক) বাংলাদেশে ৩.১৬ বিলিয়ন ডলার পরিমাণের পণ্য রফতানি করেছে ভারত। এই ধারা বজায় থাকলে হয়ত ২০২০ সালের রেকর্ড ভেঙে যাবে ২০২১ অর্থবর্ষে।

বন্ধ করুন