বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > বাংলাদেশে হিন্দু ছাত্রীকে অপহরণের পর ধর্মান্তরিত করে বিয়ে করলেন প্রধান শিক্ষক
খুলনা আদালতে বিবাহ ও ধর্মান্তরের নথি স্বাক্ষরের সময় অভিযুক্ত প্রধান শিক্ষক (ডান দিকে) ও ছাত্রী (বাঁ দিকে)
খুলনা আদালতে বিবাহ ও ধর্মান্তরের নথি স্বাক্ষরের সময় অভিযুক্ত প্রধান শিক্ষক (ডান দিকে) ও ছাত্রী (বাঁ দিকে)

বাংলাদেশে হিন্দু ছাত্রীকে অপহরণের পর ধর্মান্তরিত করে বিয়ে করলেন প্রধান শিক্ষক

  • তিনি জানিয়েছেন, সম্প্রতি জানতে পারেন খুলনা আদালতে তাঁর মেয়েকে ওই প্রধান শিক্ষক ধর্মান্তরিত করে আইনি ভাবে বিয়ে করেছেন।

হিন্দু ছাত্রীকে অপহরণের পর হিন্দু ছাত্রীকে ধর্মান্তরিত করে বিয়ে করার অভিযোগে বাংলাদেশে গ্রেফতার হলেন স্কুলের প্রধান শিক্ষক। ঘটনাটি ঘটেছে পশ্চিমবঙ্গ সীমান্ত লাগোয়া বাংলাদেশের সাতক্ষীরা জেলার শ্যামনগরের নুরনগরে। ঘটনায় আশালতা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক শামিম আহমেদকে গ্রেফতার করেছে সেদেশের পুলিশ। উদ্ধার করা হয়েছে ছাত্রীকে।

ছাত্রীর বাবা জানিয়েছেন, ২০১৯ সালে আশালতা মাধ্যমিক বিদ্যালয় থেকে দশম শ্রেণির বোর্ড পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হন ছাত্রী। এর পর স্থানীয় রাজবাড়ি কলেজে একাদশ শ্রেণিতে ভর্তি হন। সেই থেকে মেয়েকে উত্যক্ত করতেন প্রধান শিক্ষক শামিম আহমেদ। গত ২ এপ্রিল মেয়ে গৃহশিক্ষকের কাছে পড়তে যাওয়ার জন্য বাড়ি থেকে বেরোয়। তার পর তার আর কোনও খোঁজ মেলেনি। এর পর শ্যামনগর থানায় অভিযোগ দায়ের করেন তিনি। 

তিনি জানিয়েছেন, সম্প্রতি জানতে পারেন খুলনা আদালতে তাঁর মেয়েকে ওই প্রধান শিক্ষক ধর্মান্তরিত করে আইনি ভাবে বিয়ে করেছেন। এর পর ফের পুলিশের দ্বারস্থ হন তিনি। মেয়েকে ধর্মান্তরিত করার অভিযোগ আনের শামিম আহমেদের বিরুদ্ধে। 

এর পর শামিম ও তরুণীর খোঁজ শুরু করে পুলিশ। শেষে খুলনার ডুমুরিয়া থানা এলাকায় এক আত্মীয়ের বাড়ি থেকে পুলিশ শামিমকে গ্রেফতার করে। সেখান থেকেই তরুণীকেও উদ্ধার করে তারা। 

 

বন্ধ করুন