বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > ব্যাঙ্ক মোরেটোরিয়ামে থাকলেও ৯০ দিনের মধ্যে ৫ লাখ টাকা, সংশোধনীতে সায় কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভার
ডিপোজিট ইনসিওরেন্স ক্রেডিট গ্যারান্টি কর্পোরেশন (ডিআইসিজিসি) আইনে সংশোধনীতে অনুমোদন দিল কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভা। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য প্রদীপ গৌর/লাইভ মিন্ট)
ডিপোজিট ইনসিওরেন্স ক্রেডিট গ্যারান্টি কর্পোরেশন (ডিআইসিজিসি) আইনে সংশোধনীতে অনুমোদন দিল কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভা। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য প্রদীপ গৌর/লাইভ মিন্ট)

ব্যাঙ্ক মোরেটোরিয়ামে থাকলেও ৯০ দিনের মধ্যে ৫ লাখ টাকা, সংশোধনীতে সায় কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভার

সীতারামন জানিয়েছেন, সেই বিল আইনে পরিণত হলে হাজার-হাজার আমানতকারী বড়সড় স্বস্তি পাবেন।

বাজেটে ঘোষণা করা হয়েছিল। সেইমতো ডিপোজিট ইনসিওরেন্স ক্রেডিট গ্যারান্টি কর্পোরেশন (ডিআইসিজিসি) আইনে সংশোধনীতে অনুমোদন দিল কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভা। তার ফলে আর্থিক সমস্যায় জর্জরিত ব্যাঙ্কগুলি মোরেটোরিয়ামের আওতায় থাকলেও গ্রাহকরা ৯০ দিনের মধ্যে পাঁচ লাখ টাকা পাবেন।

বুধবার কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভার বৈঠকের পর সাংবাদিক বৈঠকে কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারামন বলেন, ‘আজ ডিপোজিট ইনসিওরেন্স ক্রেডিট গ্যারান্টি কর্পোরেশন বিল, ২০২১-এ অনুমোদন দিয়েছে কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভা।’ যে বিল চলতি বাদল অধিবেশনেই পেশ করা হতে পারে। সেই নিয়মের আওতায় আসবে ভারতের সমস্ত বাণিজ্যিক ব্যাঙ্ক এবং বিদেশি ব্যাঙ্কগুলির শাখাও। সীতারামন জানিয়েছেন, সেই বিল আইনে পরিণত হলে হাজার-হাজার আমানতকারী বড়সড় স্বস্তি পাবেন। যাঁদের টাকা পঞ্জাব অ্যান্ড মহারাষ্ট্র কোঅপারেটিভ (পিএমসি) ব্যাঙ্কের মতো ধুঁকতে থাকা ব্যাঙ্কে আটকে আছে।

গত বছর থেকে ব্যাঙ্ক গ্যারান্টি বেড়ে পাঁচ লাখ টাকা করেছে রিজার্ভ ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়া। ভারতের কেন্দ্রীয় ব্যাঙ্কের তরফে বিবৃতি দিয়ে জানানো হয়েছিল, কেন্দ্রীয় সরকারের ছাড়পত্র পাওয়ার পর মঙ্গলবার ব্যাঙ্ক গ্যারান্টি বেড়েছে। সেই বিমার অর্থ দেবে ভারতের কেন্দ্রীয় ব্যাঙ্ক সম্পূর্ণ মালিকানাধীন সহায়ক সংস্থা ডিপোডিট ইন্সিওরেন্স অ্যান্ড ক্রেডিট গ্যারান্টি কর্পোরেশন (ডিআইসিজিসি)। মূলত পিএমসি ব্যাঙ্ক প্রতারণা কাণ্ডের পর ব্যাঙ্কে টাকা রাখতে সাহস পাচ্ছিলেন না আমজনতা। তৈরি হয়েছিল অবিশ্বাসের বাতাবরণ। রিজার্ভ ব্যাঙ্কের আশ্বাস সত্ত্বেও সাধারণ মানুষের মনে বাড়ছিল আতঙ্ক। তা কাটাতেই সেই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছিল। কেন্দ্র জানিয়েছিল, ব্যাঙ্ক গ্যারান্টি বেড়ে এবার থেকে পাঁচ লাখ টাকা হয়েছে। ব্যাঙ্ক বন্ধ হয়ে গেলে বিমার আকারে সেই টাকা পাবেন আমানতকারীরা।

বন্ধ করুন