বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > 'ছুটির দিনে মদ খাবে না,' বসের কথা শুনে রাগে ইস্তফা কর্মীর!
ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য হিন্দুস্তান টাইমস (Hindustan Times)
ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য হিন্দুস্তান টাইমস (Hindustan Times)

'ছুটির দিনে মদ খাবে না,' বসের কথা শুনে রাগে ইস্তফা কর্মীর!

পুরো কথোপকথোনে কার দোষ আছে বলে আপনার মনে হয়? বসের দাবি কি নায্য? নাকি বারটেন্ডার ব্যক্তিই সঠিক কাজ করেছেন? কমেন্টে জানান আপনার কী মনে হয়।

কোনও কোনও ছুটির দিনেও কাজে ডাকা হতে পারে। তাই মদ খেয়ে মাতলামো করা যাবে না। এমনটাই বলেছিলেন বস। তবে এই কথা মোটেও পছন্দ হয়নি কর্মীর। সঙ্গে সঙ্গে ইস্তফা দিলেন তিনি। তারপর নিজের অভিজ্ঞতা শেয়ার করেছেন রেডিটে।

পেশায় বারটেন্ডার ওই কর্মী জানিয়েছেন, তাঁর বস রাত ২ টো ৫৯ মিনিটে তাঁকে টেক্সট করেন যে তাঁকে পরের দিন সকাল ১১ টা থেকে রাত ১০ টা পর্যন্ত ডিউটি করতে হবে। একটা ইভেন্টের কারণে লম্বা শিফট করতে হবে বলে জানান তিনি। অন্য কোনও বারটেন্ডারও সেদিন থাকবে না বলে জানান তিনি।

উত্তরে ওই ব্যক্তি জানান, 'মাফ করবেন, কাল আমার ছুটির দিন।' প্রত্যুত্তরে বস জানান, এতটা স্বার্থপর হলে চলবে না। সকলের কথা ভেবে মাঝে মাঝে এটুকু ত্যাগস্বীকার করতেই হবে। বারটেন্ডারটি উত্তরে বলেন, 'আপনি রাত ৩টেয় মেসেজ করে আমাকে সকাল ১১টায় আসার কথা বলছেন? কাল ছুটি আছে ভেবে আমি একটু পান করেছি। কাল আমার হ্যাংওভার থাকতে পারে। ১১ ঘণ্টা কাজ করা সম্ভব নয়।'

এর উত্তরে বস বলেন, ' তোমায় সবসময়েই কাজে আসার জন্য প্রস্তুত থাকতে হবে। তাছাড়া খুব মাতাল হওয়াও খুব একটা ভালো কথা নয়।' জরুরি পরিস্থিতিতে কাজ করার জন্য প্রস্তুত থাকা উচিত্, বলেন তিনি।

এর উত্তরে ওই ব্যক্তি বলেন, 'একজন বারটেন্ডারকে বলছেন কাজের বাইরের সময়ে পান না করতে? শেফদেরও কি কাজের বাইরে না খেয়ে থাকতে বলেন?' এমন উত্তর পেয়ে চটে যান বস। তিনি বলেন, 'কাল কাজে আস। বড্ড অ্যাটিটিউট বেড়েছে তোমার।' উত্তরে ওই বারটেন্ডার সাফ জানিয়ে দেন যে তিনি ইস্তফা দিচ্ছেন। আর ওখানে কাজ করতে চান না। বস জানান, 'চারদিকে কাজ খুঁজে বেরানো বারটেন্ডারের অভাব নেই। অন্য কাউকে রেখে দেব।'

পুরো কথোপকথোনে কার দোষ আছে বলে আপনার মনে হয়? বসের দাবি কি নায্য? নাকি বারটেন্ডার ব্যক্তিই সঠিক কাজ করেছেন? কমেন্টে জানান আপনার কী মনে হয়।

বন্ধ করুন