বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > করোনা টিকা নিলেন ১০৩ বছরের কমলেশ্বরী, গড়লেন রেকর্ড
ছবি : অ্যাপোলো হসপিটাল/টুইটার (Apollo Hospital/Twitter) (Twitter)
ছবি : অ্যাপোলো হসপিটাল/টুইটার (Apollo Hospital/Twitter) (Twitter)

করোনা টিকা নিলেন ১০৩ বছরের কমলেশ্বরী, গড়লেন রেকর্ড

টিকা নেওয়ার পর কোনও পার্শপ্রতিক্রিয়া হয়নি বলে জানিয়েছেন তিনি।

করোনা ভ্যাকসিন নিলেন ১০৩ বছরের এক মহিলা। ব্যাঙ্গালুরুর জে. কমলেশ্বরীই এখন দেশের বয়জ্যেষ্ঠতম টিকা গ্রহিতা।

মঙ্গলবার ব্যাঙ্গালুরুর অ্যাপোলো হাসপাতালে করোনাভাইরাসের টিকা গ্রহণ করেন জে. কমলেশ্বরী। তাঁকে শুভেচ্ছা জানিয়ে টুইট করে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। টুইটে লেখা হয়, 'আজ ১০৩ বছর বয়সী জে. কমলেশ্বরী ব্যানারঘাটা রোডের অ্যাপোলো হাসপাতাল থেকে তাঁর করোনা টিকার প্রথম ডোজটি গ্রহণ করলেন। আমরা তাঁর সুস্বাস্থ্য কামনা করি।'

একই সঙ্গে টিকা নেন তাঁর ৭৭ বছর বয়সী ছেলেও। টিকা নেওয়ার পর তাঁদের কোনও পার্শপ্রতিক্রিয়া হয়নি বলে জানিয়েছেন দুজনেই।

তবে তিনিই কিন্তু একমাত্র ভ্যাকসিন গ্রহণকারী নন যাঁর বয়স ১০০ পেরিয়েছে। স্বাধীন ভারতের প্রথম ভোটার শ্যামস্মরণ নেগী-ও এই তালিকায় রয়েছেন। তাঁর বয়সও ১০৩ বছর। কিন্নৌরের বাসিন্দা শ্যামস্মরণেরও ভ্যাকসিনের কোনও পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া হয়নি। সাধারণ মানুষকেও ভ্যাকসিন গ্রহণ করতে অনুরোধ করেন তিনি।

এছাড়া নয়ডাতেও আছেন এরকমই এক বাবা-ছেলে জুটি। বাবা মহাবীর প্রসাদের বয়স ১০৩ বছর। ছেলের বয়স ৮১ বছর। নয়ডার এক বেসরকারি হাসপাতালে করোনা টিকা গ্রহণ করেন তাঁরা।

বর্তমানে চলছে দ্বিতীয় ফেজের টিকাকরণ। ভ্যাকসিনেশন হচ্ছে ষাটোর্ধ্ব ও পয়তাল্লিশের উর্ধ্বে কো-মরবিডিটি রয়েছে এমন ব্যক্তিদের।

প্রথমেই পর্যায়ে টিকা পেয়েছেন প্রথম সারির করোনা যোদ্ধারা। অর্থাত্ চিকিত্সক, স্বাস্থ্যকর্মী, পুলিসকর্মী ইত্যাদি পেশার মানুষদের। এমন মানুষের মোট সংখ্যা প্রায় ৩ কোটি।

এর পরেই এর পরেই অগ্রাধিকারের ভিত্তিতে রয়েছেন পঞ্চাশোর্ধ্ব ব্যক্তিরা। পরিকাঠামো খতিয়ে দেখে খুব শীঘ্রই তা চালু করা হবে বলে সূত্রের খবর।

বন্ধ করুন