বাড়ি > ঘরে বাইরে > ঠিকাদারি সংস্থার চিনা যোগ, বাতিল বিহারের ২,৯২৭ কোটি টাকার ব্রিজের টেন্ডার
পাটনায় মহাত্মা গান্ধী সেতুতে কাজ করছেন শ্রমিকরা (ফাইল ছবি, সৌজন্য এএনআই)
পাটনায় মহাত্মা গান্ধী সেতুতে কাজ করছেন শ্রমিকরা (ফাইল ছবি, সৌজন্য এএনআই)

ঠিকাদারি সংস্থার চিনা যোগ, বাতিল বিহারের ২,৯২৭ কোটি টাকার ব্রিজের টেন্ডার

  • উত্তর ও দক্ষিণ বিহারের সংযোগকারী মহাত্মা গান্ধীর সেতুর সমান্তরাল একটি চার লেনের ব্রিজ তৈরি করা হবে।

অধিকাংশ ঠিকাদারি সংস্থার চিনা যোগ রয়েছে। সেই চিনা সংস্থাগুলিকে বাদ দেওয়ার আবদন জানানো হলেও তা করা হয়নি। সেজন্য বাতিল করে দেওয়া হয়েছে উত্তর ও দক্ষিণ বিহারের সংযোগকারী মহাত্মা গান্ধীর সেতুর সমান্তরাল একটি চার লেনের ব্রিজের টেন্ডার প্রক্রিয়া। 

বিহারের সড়ক নির্মাণ দফতরের মন্ত্রী নন্দকিশোর যাদব সংবাদসংস্থা এএনআইকে জানিয়েছেন, গঙ্গার উপর যে সেতু তৈরির পরিকল্পনা করা হয়েছিল, সেটির টেন্ডার প্রক্রিয়া বাতিল হয়ে গিয়েছে। নয়া টেন্ডার ডাকা হয়েছে।

বিহারে প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ প্যাকেজের আওতায় ২,৯২৭ কোটি টাকা ব্যয়ে ব্রিজ নির্মাণে ছাড়পত্র দিয়েছিল কেন্দ্রীয় সড়ক পরিবহন মন্ত্রক। ব্রিজের দৈর্ঘ্য ৫.৬৩ কিলোমিটার। তার সঙ্গে দু'ধারের অ্যাপ্রোচ রোডের দৈর্ঘ্য ৮.৮৭ কিলোমিটার। এছাড়াও সেই প্রকল্পের আওতায় পাটনা থেকে বৈশালী জেলার হাজিপুর পর্যন্ত ১৪.৫ কিলোমিটারের একটি অ্যাপ্রোচ রোডও তৈরি করা হবে।

বিহারের সড়ক নির্মাণ দফতরের শীর্ষ আধিকারিকরা জানিয়েছেন, চূড়ান্ত বাছাইয়ের জন্য যে সাতটি সংস্থা বেছে নেওয়া হয়েছিল, তার মধ্যে পাঁচটিরই চিনা সহযোগী রয়েছে। যদিও মন্ত্রী সংবাদসংস্থাকে জানিয়েছেন, চারটির মধ্যে দুটি সংস্থার চিনা যোগ আছে। তাঁর দফতরের আধিকারিকরা বলেন, 'চিনা সংস্থার সঙ্গে যৌথ অংশীদারিত্ব থাকার কারণে এই প্রথম রাজ্যের কোনও মেগা প্রকল্প বাতিল করে দেওয়া হল।'

বিষয়টি নিয়ে সড়ক নির্মাণ দফতরের প্রিন্সিপাল সেক্রেটারি অমৃত লাল মিনা বলেন, 'এই প্রকল্পের জন্য কেন্দ্রীয় সড়ক পরিবহন মন্ত্রক নয়া দরপত্রের আহ্বান জানিয়েছে। আগামী ৩০ জুলাই পর্যন্ত দরপত্র জমা দেওয়া যাবে।' আধিকারিকরা জানিয়েছেন, চিনা সহযোগীগুলিকে বাদ দিলে বাতিল হওয়া সংস্থাগুলিও নতুন করে আবেদন করতে পারবে।

বন্ধ করুন