বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > সমালোচনার পর ভারতের 'সাহায্য' মনে পড়ল বাইডেনের, করোনা টিকার কাঁচামাল পাঠাচ্ছে আমেরিকা
জো বাইডেন। (ফাইল ছবি, সৌজন্য রয়টার্স)
জো বাইডেন। (ফাইল ছবি, সৌজন্য রয়টার্স)

সমালোচনার পর ভারতের 'সাহায্য' মনে পড়ল বাইডেনের, করোনা টিকার কাঁচামাল পাঠাচ্ছে আমেরিকা

  • সমালোচনার মুখে প্রশাসনের প্রায় সব শীর্ষকর্তাদের ময়দানে নামিয়ে দেন বাইডেন।

লাগাতার সমালোচনার মুখে অবশেষে নড়েচড়ে বসল আমেরিকা। করোনাভাইরাস টিকার কাঁচামাল রফতানি না করার অবস্থান থেকে সরে এসে ‘ড্যামেজ কন্ট্রোলে’ নামলেন স্বয়ং প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন, ভাইস-প্রেসিডেন্ট কমলা হ্যারিস-সহ মার্কিন প্রশাসনের একাধিক শীর্ষকর্তা। আশ্বাস দিলেন, করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ের মোকাবিলায় ভারতকে জরুরি ভিত্তিতে সহায়তা করা হবে।

রবিবার রাতে (ভারতীয় সময় অনুযায়ী) একটি টুইটবার্তায় মার্কিন প্রেসিডেন্ট বলেন, ‘মহামারীর শুরুতে যখন আমেরিকার হাসপাতালের উপর চাপ পড়েছিল, তখন ভারত যেমন আমাদের সাহায্য পাঠিয়েছিল, তেমনই প্রয়োজনের সময় আমরাও ভারতকে সাহায্য করতে বদ্ধপরিকর।’

প্রেসিডেন্টের কিছুক্ষণ পরই টুইট করেন ডেপুটি কমলাও। তিনি বলেন, ‘উদ্বেগজনক কোভিড-১৯ মহামারীর মোকাবিলায় বাড়তি সাহায্য এবং সরঞ্জাম প্রদানের জন্য ভারত সরকারের সঙ্গে কাজ করছে আমেরিকা। সাহায্য প্রদানের পাশাপাশি সাহসী স্বাস্থ্যকর্মী-সহ ভারতীয়দের জন্য প্রার্থনা করছি।’ বাইডেন ডেলওয়্যারে নিজের বাড়িতে সপ্তাহান্তের ছুটি কাটাচ্ছিলেন। সেখান থেকেই পরিস্থিতির উপর নজর রাখছিলেন বলে খবর। শুধু তাই নয়, মার্কিন প্রশাসনের শীর্ষকর্তারাও সাহায্যের আশ্বাস দিয়েছেন।

যদিও বাইডেন প্রশাসনের ‘পাশে দাঁড়ানোর’ সেই বিবেক জাগ্রত হওয়ার জন্য নয়াদিল্লিকে রীতিমতো কাঠখড় পোড়াতে হয়েছে। রফতানিতে মার্কিন প্রশাসনের বিধিনিষেধের কারণে কাঁচামাল পাঠানো হচ্ছিল না। তার জেরে ৩৫ টিরও বেশি গুরুত্বপূর্ণ সামগ্রীর জোগানে প্রভাব পড়ে। যা বায়োলজিকাল ই এবং কোভিশিল্ডের উৎপাদক সেরাম ইনস্টিটিউট অফ ইন্ডিয়ার (এসআইআই) মতো সংস্থা ব্যবহার করে। সেরাম কর্তারা জানিয়েছিলেন, কোভিশিল্ড এবং নোভাভ্যাক্স উৎপাদনের জন্য সেই কাঁচামালের প্রয়োজন আছে। যদিও সেরাম সিইও আদর পুনাওয়ালা দাবি করেছিলেন, আমেরিকার টালবাহানার জন্য কোভিশিল্ডের উৎপাদনে কোনও প্রভাব পড়ছে না। তবে ধাক্কা খাচ্ছে নোভাভ্যাক্সের উৎপাদন। সেই পরিস্থিতিতে ভারতে করোনাভাইরাসের টিকা তৈরির জন্য প্রয়োজনীয় কাঁচমাল সরবরাহের জন্য দীর্ঘদিন ধরে আর্জি জানাচ্ছিল। মার্কিন প্রেসিডেন্ট বাইডেনের কাছে আর্জি জানিয়েছিলেন খোদ পুনাওয়ালাও। বিষয়টির সঙ্গে অবহিত আধিকারিকরা জানান, গত সোমবার মার্কিন বিদেশ সচিবের সঙ্গে আলোচনার সময় কাঁচামাল পাঠানোর বিষয়টি উত্থাপন করেছিলেন ভারতের বিদেশমন্ত্রী এস জয়শংকর। সেইসঙ্গে কয়েকজন ডেমোক্র্যাট নেতা-সহ ভারতের ‘বন্ধু’-দের সমালোচনারম মুখে পড়েন মার্কিন প্রশাসনের শীর্ষকর্তারা।

সেই পরিস্থিতিতে রবিবার আমেরিকার জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা জেক সুলিভান বিবৃতি জারি করে জানান, করোনা পরিস্থিতি নিয়ে রবিবার ভারতের জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা অজিত ডোভালের সঙ্গে কথা বলেছেন। জরুরি ভিত্তিতে কোভিশিল্ডের জন্য প্রয়োজনীয় কাঁচামাল চিহ্নিত করা হয়েছে। সেইসঙ্গে পার্সোনাল প্রোটেক্টিভ ইক্যুপমেন্ট (পিপিই), ভেন্টিলেটর, র‍্যাপিড ডায়গনস্টিক টেস্ট কিটও দ্রুত পাঠানো হবে বলে জানানো হয়। 

বন্ধ করুন