বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > Bihar assembly election 2020: বিহার ভোটের আগে ধাক্কা বিজেপি জোটের, একা লড়বে এলজেপি
দলের সংসদীয় বোর্ডের বৈঠকে সেই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে (ছবি সৌজন্য এএনআই)
দলের সংসদীয় বোর্ডের বৈঠকে সেই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে (ছবি সৌজন্য এএনআই)

Bihar assembly election 2020: বিহার ভোটের আগে ধাক্কা বিজেপি জোটের, একা লড়বে এলজেপি

  • বিহার ভোটের আগে বড় ধাক্কা এনডিএ শিবিরে।

স্মৃতি কাক রামচন্দ্রন

আর তিন সপ্তাহ পরে বিধানসভা নির্বাচন। তার আগে বিহারে ধাক্কা খেল এনডিএ জোট। তিন দফার নির্বাচনে একাই লড়তে চলেছে লোক জনশক্তি পার্টি (এলজেপি)। রবিবার দলের সংসদীয় বোর্ডের বৈঠকে সেই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

এলজেপির জাতীয় সাধারণ সম্পাদক আবদুল খালিক বলেন, ‘মতাদর্শগত পার্থক্যের জন্য আসন্ন বিহার বিধানসভা নির্বাচনে জনতা দল (ইউনাইটেড)-এর সঙ্গে লড়াই করবে না লোক জনশক্তি পার্টি (এলজেপি)।’

আগেই এলজেপির তরফে ইঙ্গিত দেওয়া হয়েছিল যে বিহারেও মণিপুর মডেল অনুসরণ করা হবে। অর্থাৎ ভোটের পর সরকারে যোগ দেবেন। ২০১৭ সালের মণিপুর বিধানসভা নির্বাচনে ১১ টি আসনে লড়ে মাত্র একটিতে জয়ের মুখ দেখেছিল চিরাগ পাসোয়ানের দল। একমাত্র জয়ী সদস্য যোগ দিয়েছিলেন বিজেপি সরকারে। তার আগে ২০১৪ সালের জম্মু ও কাশ্মীর এবং ২০১৯ সালের ঝাড়খণ্ড বিধানসভা নির্বাচনে একা লড়েছিল এলজেপি। যদিও কেন্দ্রের এনডিএ জোটের শরিক ছিল তারা।

বিষয়টির সঙ্গে অবহিত নেতারা জানিয়েছেন, এনডিএ জোটের দলগুলির বিরুদ্ধে ‘বন্ধুত্বপূর্ণ’ লড়াইয়ে নামবে এলজেপি। যদিও আগে এলজেপির শীর্ষ নেতৃত্বের তরফে জানানো হয়েছিল, নীতিশ কুমারের জেডিইউয়ের বিরুদ্ধে প্রার্থী দেবে তারা। যে আসনে বিজেপি প্রার্থী দেবে, সেখানে গোঁজ হয়ে দাঁড়াবে না এলজেপি। সেই ‘বন্ধুত্বপূর্ণ’ আবহের সম্পর্কের বিষয়টি রবিবারও ফুটে উঠেছে। এলজেপির সাধারণ সম্পাদক বলেন, ‘জাতীয় স্তর এবং লোকসভা নির্বাচনে বিজেপির সঙ্গে মজবুত জোট আছে।’

চিরাপ পাসোয়ানের দলের তরফে স্পষ্ট জানানো হয়েছিল, বিজেপির সঙ্গে তাঁদের কোনও সমস্যা নেই। যাবতীয় সমস্যার মূলে আছেন নীতিশ। যাঁর বিরুদ্ধে একাধিকবার কড়া ভাষায় আক্রমণ শানিয়েছে এলজেপির নেতারা। এমনকী নীতিশের কড়া সমালোচনা করে এলজেপি সভাপতি অভিযোগ করেন, ভোটের সময় উন্নয়নের যে প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন, তা পূরণ করতে পারেননি।

বন্ধ করুন