বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > Bihar Assembly Elections 2020: দুপুর একটা পর্যন্ত ৩৩.১১% ভোট পড়ল
কোভিড পরিস্থিতিতে নির্বাচন বুথ পাহারা দিতে মাস্ক ও ফেস শিল্ডে মুখ ঢেকেছেন পুলিশকর্মীরা।ছবি: রয়টার্স। (REUTERS)
কোভিড পরিস্থিতিতে নির্বাচন বুথ পাহারা দিতে মাস্ক ও ফেস শিল্ডে মুখ ঢেকেছেন পুলিশকর্মীরা।ছবি: রয়টার্স। (REUTERS)

Bihar Assembly Elections 2020: দুপুর একটা পর্যন্ত ৩৩.১১% ভোট পড়ল

  • মাস্ক ছাড়াই বুথের ভিতরে থাকতে দেখা গিয়েছে কিছু ভোটার এবং নির্বাচন আধিকারিককে।

বুধবার বিহার বিধানসভা নির্বাচনের প্রথম দফায় সকাল ১টা পর্যন্ত ভোট পড়ল ৩৩.১১%। এই তথ্য জানিয়েছে নির্বাচন কমিশন সূত্র। 

এ দিন রাজ্যের ৭১টি কেন্দ্রে মোট ১,০৬৬ প্রার্থীর ভাগ্য নির্ণয় করবেন ২.১৪ কোটির চেয়েও বেশি সংখ্যক ভোটার। 

এ দিন সকাল থেকেই বুথের সামনে জড়ো হয়েছেন ভোটাররা। তবে কোভিড অতিমারী পরিস্থিতিতে জনসমাগমের উপর নিষেধাজ্ঞার কারণে ভোটের হার মন্থর হয়েছে। সংক্রমণ এড়াতে কড়া নিয়মাবলী চালু করেছে নির্বাচন কমিশন। এর মধ্যে রয়েছে মাস্ক ও স্যানিটাইজার ব্যবহার এবং সামাজিক দূরত্ববিধি মেনে চলা। প্রতিটি বুথে প্রবেশের সময় থার্মাল স্ক্যান করা হচ্ছে ভোটার, প্রার্থী, এজেন্ট ও নির্বাচন কর্মীদের। 

এবারের নির্বাচনে হাসপাতাল বা বাড়িতে কোয়ারেন্টাইনে থাকা কোভিড আক্রান্ত এবং সম্ভাব্য কোভিড রোগীদের ভোটদানের অনুমতি দিয়েছে কমিশন। তাঁদের ক্ষেত্রে মান্যতা দেওয়া হয়েছে পোস্টাল ব্যালটের মাধ্যমে ভোট প্রক্রিয়ায়। 

তবে এত কড়াকড়ি সত্ত্বেও স্বাস্থ্যবিধি লঙ্ঘন করতে দেখা যাচ্ছে একাধিক কেন্দ্রে। ভাগলপুর জেলায় সুলতানগঞ্জ কেন্দ্রের অন্তর্গত মাহেশি গ্রামের বুথে বার বার ভোটারদের সামাজিক দূরত্ববিধি মেনে চলতে, মাস্ক-স্যানিটাইজার ব্যবহার করতে বললেও মাস্ক ছাড়াই বুথের ভিতরে থাকতে দেখা গিয়েছে কিছু ভোটার এবং নির্বাচন আধিকারিককে।

আবার বিহারের কৃষিমন্ত্রী ও বিজেপি নেতা প্রেম কুমারের বিরুদ্ধে গয়ার এক বুথে দলের প্রতীক সংবলিত মাস্ক পরে প্রবেশের অভিযোগে এফআইআর দায়ের করেছে বিজেপি। 

অন্য দিকে, লখিসরাই জেলার বসগুদার গ্রামের ভোটাররা নির্বাচন বয়কট করার ফলে ১১৫ নম্বর বুথটি শূন্য পড়ে রয়েছে। খেলার মাঠের উপরে মিউজিয়াম নির্মাণের প্রতিবাদে ভোট বয়কট করেছেন এই গ্রামের বাসিন্দারা, জানিয়েছেন নির্বাচন আধিকারিক ইক্রামুল হক।

বন্ধ করুন