বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > মশকরার ছলে কাউকে অপমান, চেহারা নিয়ে মজা করা বন্ধ করতে নয়া উদ্যোগ বিহারে, পদক্ষেপ স্কুল স্তর থেকে
(ছবিটি প্রতীকী)

মশকরার ছলে কাউকে অপমান, চেহারা নিয়ে মজা করা বন্ধ করতে নয়া উদ্যোগ বিহারে, পদক্ষেপ স্কুল স্তর থেকে

  • স্কুলস্তরে 'আত্মসম্মান' বিষয়ে সচেতনতা বাড়াতে একাধিক উদ্যোগ নেওয়া শুরু হয়েছে। সেখানে ১৩ জেলার স্কুলে ষষ্ঠ শ্রেণি থেকে অষ্টম শ্রেণি পর্যন্ত, পড়ুয়াদের মধ্যে ৩৫ শতাংশ পড়ুয়া অভিযোগ করেছে যে তাদের স্কুলে মশকরার ছলে অপমান করা হয়, মশকরা করা হয় চেহারা নিয়ে। তারা বারবার 'বুলিং', 'বডি শেমিং' এর শিকার হয়।

ঋণা সোপাম

পারিপার্শ্বিক পরিস্থিতিতে এমন কিছু বিচিত্র অবস্থা তৈরি হয়, যা একজন মানুষকে মানসিকভাবে অনেকটাই যন্ত্রণা দিয়ে থাকে। এমন আঘাতের কারণ হিসাবে অনেক সময়ই উঠে আসে 'বডি শেমিং' বা 'বুলিং' এর মতো ঘটনা। বহু সময় কারোর চেহারা দেখে, তিনি মোটা না রোগা তা বিচার করে করা হয় মশকরা, বডি শেমিং এর এই সমস্যার পাশাপাশি বহু সময়ই নিছক মশকরার মেজাজে কাউকে অপমান করে 'বুলিং' এর সমস্যাও তৈরি করা হয়। এগুলি বড় ইস্যু হয়ে উঠছে সমাজ জীবনে। এই সমস্যাকে সমূলে উৎপাটিত করতে স্কুল স্তর থেকে উদ্যোগ নিচ্ছে বিহারের নীতীশ সরকার।

বিহারের স্কুলস্তরে 'আত্মসম্মান' বিষয়ে সচেতনতা বাড়াতে একাধিক উদ্যোগ নেওয়া শুরু হয়েছে। সেখানে ১৩ জেলার স্কুলে ষষ্ঠ শ্রেণি থেকে অষ্টম শ্রেণি পর্যন্ত, পড়ুয়াদের মধ্যে ৩৫ শতাংশ পড়ুয়া অভিযোগ করেছে যে তাদের স্কুলে মশকরার ছলে অপমান করা হয়, মশকরা করা হয় চেহারা নিয়ে। তারা বারবার 'বুলিং', 'বডি শেমিং' এর শিকার হয়। ইউনিসেফের হাত ধরে বিহারের এডুকেশন প্রজেক্ট কাউন্সিল এক উদ্যোগে, বাড়ন্ত বয়সে শিশুদের 'আত্মসম্মান' নিয়ে বিভিন্ন পাঠ দেওয়ার প্রকল্প নিয়েছে। যার জন্য আপাতত শিক্ষকদের এই বিষয়ে প্রশিক্ষণ দেওয়া হচ্ছে। 'সেল্ফ এস্টিম বেস্ড স্কিল' নামের এই উদ্যোগে ১৩ জেলার ১১ হাজার সরকারি স্কুল শিক্ষককে ট্রেনিং দেওয়া হচ্ছে। এই প্রশিক্ষিত শিক্ষক শিক্ষিকারা লিঙ্গভিত্তিক মানসিকতা, চেহারা নিয় মশকরার ক্ষতিকারক দিক সহ সভ্য সমাজে কীভাবে ব্যবহার করা উচিত তার নীতি শিক্ষা দিয়ে থাকবেন পড়ুয়াদের। আরও পড়ুন-Poor food in school: খাবারের মান নিয়ে সুপারের কাছে প্রতিবাদ, হস্টেলে ঢুকে পড়ুয়াদের মারধর

যাতে পড়ুয়াদের মধ্যে একে অপরের প্রতি সমাদর তৈরি হয়, শিক্ষায় ও দীক্ষায় দুই দিক থেকে তারা জীবন সম্পর্কে ইতিবাচক ভাবনা রাখে, তার দিকে তাকিয়ে এই উদ্যোগ বলে জানিয়েছেন, এসসিইআরটির ডিরেক্টর বিজয়কুমার হিমাংশু। এই প্রশিক্ষণে এগিয়ে এসেছে 'ইয়ং লাইভ ইন্ডিয়া' নামের এক সংস্থা। বিউপিসির তরফে জানানো হয়েছে, ছয়টি বিষয়ে শিক্ষকরা প্রশিক্ষিত হবেন। ঐর সেই ছয় বিষয়েই তাঁরা প্রশিক্ষণ দেবেন পড়ুয়াদের। দেওয়া হবে ১০ টি কমিক বই। যার হাত ধরে চলবে এই শিক্ষা পদ্ধতি।

বন্ধ করুন