বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > কেন্দ্রীয় মন্ত্রীর বিবৃতি ‘ছিঁড়েছেন’ শান্তনু, আনা হতে পারে স্বাধিকার ভঙ্গের প্রস্তাব
তৃণমূল কংগ্রেসের সাংসদ শান্তনু সেন। (ফাইল ছবি, সৌজন্য এএনআই)
তৃণমূল কংগ্রেসের সাংসদ শান্তনু সেন। (ফাইল ছবি, সৌজন্য এএনআই)

কেন্দ্রীয় মন্ত্রীর বিবৃতি ‘ছিঁড়েছেন’ শান্তনু, আনা হতে পারে স্বাধিকার ভঙ্গের প্রস্তাব

যদিও তৃণমূলের পালটা দাবি, সাংসদের সঙ্গে অভ্যবতা করা হয়েছে।

তৃণমূল কংগ্রেসের সাংসদ শান্তনু সেনের বিরুদ্ধে স্বাধিকার ভঙ্গের প্রস্তাব আনতে পারে কেন্দ্র। নরেন্দ্র মোদী সরকারের অভিযোগ, কেন্দ্রীয় তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রী অশ্বিনী বৈষ্ণের হাত থেকে বিবৃতির কাগজ ছিনিয়ে নেন শান্তনু। তারপর তা ছিঁড়ে দেন। যদিও তৃণমূলের পালটা দাবি, সাংসদের সঙ্গে অভ্যবতা করা হয়েছে।

পেগাসাস 'হ্যাক' নিয়ে বৃহস্পতিবারও উত্তাল হয়ে ওঠে সংসদ। শাসক দলের উপর চাপ বাড়াতে থাকেন বিরোধীরা। তার জেরে দফায় দফায় মুলতুবি হয়ে যায় রাজ্যসভা। পরে দুপুরে পেগাসাস 'হ্যাক' নিয়ে বিবৃতি দিতে শুরু করেন কেন্দ্রীয় তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রী। তখন বিরোধী সাংসদর হই-হট্টগোল শুরু করেন। বিজেপির অভিযোগ, বিবৃতি পড়ার সময় কেন্দ্রীয় তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রীর হাত থেকে কাগজ ছিনিয়ে নেন শান্তুন। তারপর তা ছিঁড়ে দেন। তা নিয়ে বিজেপি সাংসদ হরদীপ সিং পুরীর সঙ্গে শান্তনুর একপ্রস্থ উত্তপ্ত বাক্যবিনিময় হয়।

সংসদের বাইরে কেন্দ্রীয় মীনাক্ষি লেখি বলেন, ‘রাজনৈতিক বিরোধিতার জন্য তৃণমূল কংগ্রেস এবং কংগ্রেস এত নীচে নেমে যেতে পারে যে তারা দেশের ভাবমূর্তি খারাপ করবে, এমন কাজও করতে পারেন। আজ রাজ্যসভায় একজন সদস্য মন্ত্রীর হাত থেকে কাগজ ছিনিয়ে নেন। যিনি বিবৃতি দিচ্ছিলেন।’ বিজেপির সাংসদ স্বপন দাশগুপ্ত বলেন, 'মূলত তৃণমূল সাংসদ-সহ বিরোধী সদস্যরা নিজেদের জায়গা থেকে উঠে পড়েন। তারপর কেন্দ্রীয় মন্ত্রীর হাত থেকে কাগজ ছিনিয়ে নেন এবং ছিঁড়ে দেন। এটা একদম বরদাস্ত করা যায় না। উনি বিবৃতি দিচ্ছিলেন। তারপর আপনাদের প্রশ্ন করার অধিকার আছে।'

তবে স্রেফ কড়া বিবৃতি দিয়েই থামতে চায় না বিজেপি। বরং সূত্রের খবর, শান্তনুর বিরুদ্ধে স্বাধিকার ভঙ্গের প্রস্তাব আনতে পারে বিজেপি সরকার। যদিও তৃণমূলের দাবি, সাংসদের সঙ্গে অভ্যবতা করা হয়েছে।

বন্ধ করুন