বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > Tripura Education Minister: ত্রিপুরায় বিজেপির মধ্যে দ্বন্দ্ব, শিক্ষামন্ত্রীকে সরানোর দাবি জানালেন BJP MLA
ত্রিপুরার শিক্ষামন্ত্রী রতনলাল নাথ (ANI)

Tripura Education Minister: ত্রিপুরায় বিজেপির মধ্যে দ্বন্দ্ব, শিক্ষামন্ত্রীকে সরানোর দাবি জানালেন BJP MLA

  • বিজেপি সূত্রে জানা গিয়েছে, সম্প্রতি বিলোনিয়া কলেজের দুই অধ্যাপককে বদলি করা হয়েছে। এই নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন বিলোনিয়ার বিধায়ক অরুণচন্দ্র ভৌমিক। তাঁর দাবি, দুই অধ্যাপককে সরিয়ে শিক্ষামন্ত্রী ভুল করেছেন। তিনি বলেন, ২০১৮ সালের আগে পর্যন্ত বিভিন্ন দলে ছিলেন রতনলাল। 

ত্রিপুরায় বিজেপির অন্দরে ফের দেখা দিল দ্বন্দ্ব। রাজ্যের শিক্ষামন্ত্রী রতনলাল নাথকে নিয়ে বিস্ফোরক মন্তব্য করলেন ত্রিপুরার বিলোনিয়ার বিজেপি বিধায়ক অরুণচন্দ্র ভৌমিক। তাঁর দাবি, রতনলালের শিক্ষামন্ত্রী হওয়ার যোগ্যতা নেই। অবিলম্বে তাঁকে শিক্ষামন্ত্রীর পদ থেকে সরাতে হবে। প্রয়োজনে তিনি দিল্লিতে গিয়েও রতনলালকে শিক্ষামন্ত্রীর পদ থেকে সরানোর দাবি জানাবেন। আর রাজ্যের দুই বিজেপি বিধায়কের সংঘাতের পরেই শুরু হয়েছে রাজনৈতিক তরজা।

বিজেপি সূত্রে জানা গিয়েছে, সম্প্রতি বিলোনিয়া কলেজের দুই অধ্যাপককে বদলি করা হয়েছে। এই নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন বিলোনিয়ার বিধায়ক অরুণচন্দ্র ভৌমিক। তাঁর দাবি, দুই অধ্যাপককে সরিয়ে শিক্ষামন্ত্রী ভুল করেছেন। তিনি বলেন, ২০১৮ সালের আগে পর্যন্ত বিভিন্ন দলে ছিলেন রতনলাল। পরে তিনি বিজেপির টিকিটে জয়ী হয়ে বিধায়ক হয়েছেন। শিক্ষামন্ত্রীর বিরুদ্ধে তোলাবাজির অভিযোগ তুলেছেন অরুণচন্দ্র ভৌমিক। তাঁর অভিযোগ, ‘রতনলাল তোলাবাজি করতেন। তাঁর অবৈধ সম্পত্তি রয়েছে। এ নিয়ে তদন্ত করা উচিত।’ এরপরে শিক্ষামন্ত্রী তাঁকে হুমকি দেন বলে অভিযোগ করেন অরুণচন্দ্র। যদিও এনিয়ে শিক্ষামন্ত্রীর বক্তব্য পাওয়া যায়নি।

উল্লেখ্য, ২০২৩ সালে ত্রিপুরায় বিধানসভা ভোট হওয়ার কথা। বাংলা পেরিয়ে ত্রিপুরা জয় করতে চাইছে তৃণমূল। সেখানে পুরসভা উপনির্বাচনে তৃণমূল ব্যাপকভাবে পরাজিত হলেও বিধানসভা নির্বাচনের আগে দলের অন্দরে ভাঙন আটকানো বিজেপি নেতৃত্বের বড় চ্যালেঞ্জ বলে মনে করা হচ্ছে। ফলে তৃণমূল লাভবান হবে বলেই মনে করছে রাজনৈতিক মহল।

বন্ধ করুন