বাড়ি > ঘরে বাইরে > কার্গিল যুদ্ধের সময়ও ওঁরা রাজনীতি নিয়ে ভেবেছিলেন, কংগ্রেসকে তোপ নড্ডার
কংগ্রেস ও মেহবুবা মুফতির বিরুদ্ধে দেশ-বিরোধী মনোভাবের অভিযোগ তুললেন বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি জে পি নড্ডা।
কংগ্রেস ও মেহবুবা মুফতির বিরুদ্ধে দেশ-বিরোধী মনোভাবের অভিযোগ তুললেন বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি জে পি নড্ডা।

কার্গিল যুদ্ধের সময়ও ওঁরা রাজনীতি নিয়ে ভেবেছিলেন, কংগ্রেসকে তোপ নড্ডার

  • ওঁরা কখনই দেশের জন্য চিন্তা করেন না। ওঁদের কাছে রাজনীতিই বড়।

দেশাত্মবোধ প্রশ্নে কংগ্রেসকে বিঁধলেন বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি জে পি নড্ডা। পাশাপাশি, কাশ্মীর প্রশ্নে মেহবুবা মুফতিকেও ছেড়ে কথা বললেন না তিনি। 

রবিবার কর্নাটকের দলীয় অধিবেশনে নড্ডা কংগ্রেসকে আক্রমণ করে বলেন, ‘কার্গিল যুদ্ধ যখন চলছে, সেই সময় রাজ্য সভার অধিবেশন চেয়ে আবেদন জানায় কংগ্রেস। আবার একই ভাবে, যখন জাতীয় সংকটে সর্বদল বৈঠক ডাকা হয়, তখন ওঁরা অংশগ্রহণ করেন না।’ 

এই সমস্ত উদাহরণ দর্শিয়ে এ দিন বিজেপি সভাপতি সরাসরি অভিযোগ করেন, ‘ওঁরা কখনই দেশের জন্য চিন্তা করেন না। ওঁদের কাছে রাজনীতিই বড়।’ 

কংগ্রেসের পাশাপাশি এ দিন জম্মু ও কাশ্মীরের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী মেহবুবা মুফতিকেও আক্রমণ করেন নড্ডা। তাঁর অভিযোগ, কাশ্মীরে বিচ্ছিন্ন

তাবাদী বিক্ষোভে মদত দিয়েছেন মেহবুবা। নড্ডা বলেন, ‘উনি বলেছিলেন, সংবিধানের ৩৭০ ধারা বাতিল করা হলে উপত্যকায় রক্তনদী বইবে। অথচ কার্ষক্ষেত্রে একফোঁটা রক্তও সেখানে ঝরেনি। জম্মু ও কাশ্মীর যে ভারতের অবিচ্ছিন্ন অংশ হিসেবে অন্তর্ভুক্ত হয়েছে, তাতে আমরা খুশি। কিন্তু এই পদক্ষেপে আমাদের চেয়েও খুশি জম্মু ও কাশ্মীরের মানুষ।’

উল্লেখ্য, ২০১৯ সালে সংসদে সংবিধানের ৩৭০ ধারা বাতিল হওয়ার জেরে বিশেষ মর্যাদা হারায় জম্মু ও কাশ্মীর রাজ্য। একই সঙ্গে জম্মু ও কাশ্মীর ভেঙে দুটি আলাদা কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল গঠন করে কেন্দ্রের এনডিএ সরকার। ঘটনার তীব্র প্রতিবাদ জানান কাশ্মীরের প্রথম সারির রাজনৈতিক দলের নেতারা। নিরাপত্তার কারণে তাঁদের প্রায় সবাইকেই গৃহবন্দি করা হয়। 

বন্ধ করুন