বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > দেশে রেমডেসিভির বিক্রিতে বাধা? নবাব মালিকের অভিযোগের জবাব দিল কেন্দ্র
দেশে রেমডেসিভির বিক্রিতে বাধা? নবাব মালিকের অভিযোগ ঘিরে চাঞ্চল্য
দেশে রেমডেসিভির বিক্রিতে বাধা? নবাব মালিকের অভিযোগ ঘিরে চাঞ্চল্য

দেশে রেমডেসিভির বিক্রিতে বাধা? নবাব মালিকের অভিযোগের জবাব দিল কেন্দ্র

  • মনসুখ মান্ডভিয়া টুইট বার্তায় লেখেন, ‘নবাব মালিকের করা টুইট স্তম্ভিত করে দেওয়ার মতো। এই অভিযোগ অর্ধসত্য এবং মিথ্যেতে ভর্তি।’

এদিন সকালেই এনসিপি নেতা তথা মহারাষ্ট্রের মন্ত্রী নবাব মালিক টুইট করে কেন্দ্রের বিরুদ্ধে তোপ দেগেছিলেন। এক টুইট বার্তায় তিনি অভিযোগ করেছিলেন, 'দেশের ১৬টি রফতানি ইউনিট রয়েছে যারা রেমডেসিভির উপাদন করে। বর্তমানে রফতানি বন্ধ থাকায় সেই ইউনিটগুলি দেশে রেমডেসিভির বিক্রির আবেদন জানালেও কেন্দ্র সেই আবেদন খারিজ করেছে।' এই অভিযোগের জবাবে এবার মুখ খুললেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী মনসুখ মান্ডভিয়া। এদিন তিনি স্পষ্ট জানিয়ে দেন, মহারাষ্ট্রের সরকারকে সাধ্যমত সাহায্য করছে কেন্দ্রীয় সরকার।

এদিন মনসুখ মান্ডভিয়া টুইট বার্তায় লেখেন, 'নবাব মালিকের করা টুইট স্তম্ভিত করে দেওয়ার মতো। এই অভিযোগ অর্ধসত্য এবং মিথ্যেতে ভর্তি। এবং এভাবে হুমকি দেওয়া কোনও ভাবেই গ্রহণযোগ্য নয়। আসল পরিস্থিতির বিষয়ে তিনি অবগত নন। কেন্দ্রীয় সরকার ক্রমাগত মহারাষ্ট্র সরকারের আধিকারিকদের সঙ্গে যোগাযোগ রেখে চলেছে। এবং রেমডেসিভির সরবারহের জন্য সবরকম সাহায্য করে চলেছি।'

এরপর নবাব মালিককে চ্যালেঞ্জ ছুঁড়ে দিয়ে মান্ডভিয়া টুইট করে লেখেন, 'আমি নবাব মালিককে অনুরোধ করছি যাতে তিনি আমাদের ১৬টি কোম্পানির নাম জানাক এবং রেমডেসিভিরের লভ্যতার বিষয়ে আমাদের অবগত করুক। আমাদের সরকার দেশবাসীকে সব রকম ভাবে সাহায্য করতে প্রস্তুত।'

তিনি এদিন টুইটবার্তায় আরও লেখেন, 'আমরা দেশে রেমডেসিভিরের উত্পাদন দ্বিগুণ করছি এবং ২০২১ সালের ১২ এপ্রিলের পর থেকে আরও ২০টি প্ল্যান্টে প্রস্তুতকারকদের এক্সপ্রেস অনুমতি দিয়েছি। মহারাষ্ট্রের লোকদের পর্যাপ্ত পরিমাণে রেমডেসিভির সরবরাহ করা আমাদের অগ্রাধিকার।'

 

বন্ধ করুন