বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > বাংলায় আইন-শৃঙ্খলা বলে কিছু নেই! রাষ্ট্রপতি শাসনের দাবি আইনজীবীদের একাংশের
 রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দ। ফাইল ছবি।

বাংলায় আইন-শৃঙ্খলা বলে কিছু নেই! রাষ্ট্রপতি শাসনের দাবি আইনজীবীদের একাংশের

  • তাদের প্রশ্ন, কোনও হিংসায় কীভাবে সরকার মদত দিতে পারে? ওই সংগঠনের আইনজীবী কবীর শঙ্কর দাস জানান, ‘আমরা সবাই মিলে রাষ্ট্রপতির দ্বারস্থ হয়েছি। আমাদের আবেদন পশ্চিমবঙ্গে আজকে যা অবস্থা তাতে আইন শৃঙ্খলা বলে কিছু নেই। গণতন্ত্র বলে কিছু নেই।

একুশে বিধানসভা নির্বাচনের পরের ভোট পরবর্তী হিংসায় মৃত্যু হয়েছে বহু মানুষের। ঘর ছাড়া আরও অনেকে। সম্প্রতি একের পর এক খুন, গণধর্ষণের ঘটনা ঘটেছে রাজ্যে। এই পরিস্থিতিতে রাজ্যে রাষ্ট্রপতি শাসন তথা ৩৫৬ ধরা প্রয়োগের প্রয়োজন বলে মনে করছে বিজেপি। এই দাবীতে গতকাল রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দের সঙ্গে দেখা করলেন বিজেপি প্রভাবিত আইনজীবীদের সংগঠন। এছাড়াও, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করেন এই আইনজীবীরা। ভোট-পরবর্তী হিংসায় ঘরছাড়া মানুষদের নিয়ে এদিন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করে আইনজীবীরা। তাদের প্রশ্ন, কোনও হিংসায় কীভাবে সরকার মদত দিতে পারে?

ওই সংগঠনের আইনজীবী কবীর শঙ্কর দাস জানান, ‘আমরা সবাই মিলে রাষ্ট্রপতির দ্বারস্থ হয়েছি। আমাদের আবেদন পশ্চিমবঙ্গে আজকে যা অবস্থা তাতে আইন শৃঙ্খলা বলে কিছু নেই। গণতন্ত্র বলে কিছু নেই। প্রশাসনের মদত নিয়ে যেভাবে মানুষ খুন হচ্ছে, মেয়েরা ধর্ষিত হচ্ছে, মায়েদের চোখে জল পরছে তাতে রাষ্ট্রপতি শাসন ছাড়া আর কোনও উপায় নেই।’ রাষ্ট্রপতি তাদের কথা গুরুত্ব দিয়ে শুনেছেন এবং এনিয়ে ব্যবস্থা নেওয়ার আশ্বাস দিয়েছেন বলে জানিয়েছেন ওই আইনজীবী।

রাজ্যে আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ে গতকালই দিল্লির পাতিয়ালা হাউস কোর্ট থেকে ইন্ডিয়া গেট পর্যন্ত মোমবাতি মিছিল করেন আইনজীবীরা। এ বিষয়ে বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি দিলীপ ঘোষ বলেছেন, ‘একটি নির্বাচিত সরকার কীভাবে হিংসাকে মদত দিতে পারে? সেই বাস্তব পরিস্থিতি দিল্লিতে তুলে ধরা প্রয়োজন রয়েছে।’ উল্লেখ্য, এর আগেও রাজ্য বিজেপির বহু নেতাদের কণ্ঠে বাংলায় রাষ্ট্রপতি শাসন জারি করার দাবি শোনা গিয়েছে। সম্প্রতি, দুটি পুরসভার কাউন্সিলর খুন, তারপর হাঁসখালি সহ আরও বহু জায়গায় নৃশংস গণধর্ষণের ঘটনা ঘটেছে। এর মধ্যে বেশকিছু মামলার তদন্ত করছে সিবিআই। এই পরিস্থিতিতে রাজ্যে আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতি নেই বলে মনে করছে বিজেপি।

বন্ধ করুন