বাড়ি > ঘরে বাইরে > মমতার স্বপ্ন সত্যি করে ২০২১ সালে পশ্চিমবঙ্গে সরকার গড়বে বিজেপি: অমিত শাহ
সোমবার দিল্লিতে অমিত শাহ।
সোমবার দিল্লিতে অমিত শাহ।

মমতার স্বপ্ন সত্যি করে ২০২১ সালে পশ্চিমবঙ্গে সরকার গড়বে বিজেপি: অমিত শাহ

  • শাহ বলেন, ‘২০১৯ লোকসভা নির্বাচনের আগে যখন বলেছিলাম যে বিজেপি ২০টি আসন পাবে তখন কেউ গুরুত্ব দেয়নি। কিন্তু ফল বেরনোর পর দেখা যায় আমাদের ১৮ জন প্রার্থী জয়ী হয়েছেন।

দ্বিতীয় মোদী সরকারের প্রথম বর্ষপূর্তিতে ফের একবার পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে নিশানা করলেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি অমিত শাহ। এক বেসরকারি চ্যানেলকে সাক্ষাৎকারে তিনি বলেন, ‘মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ইচ্ছা পূর্ণ করে ২০২১ সালে পশ্চিমবঙ্গে সরকার গড়বে বিজেপি।’

সরকারের প্রথম বর্ষপূর্তিতে মুম্বই থেকে সম্প্রচারিত একটি ইংরাজি টিভি চ্যানেলের উপস্থাপককে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘মমতার ইচ্ছা পূর্ণ করে ২০২১ সালে পশ্চিমবঙ্গে সরকার গড়বে বিজেপি।’

শাহ বলেন, ‘২০১৯ লোকসভা নির্বাচনের আগে যখন বলেছিলাম যে বিজেপি ২০টি আসন পাবে তখন কেউ গুরুত্ব দেয়নি। কিন্তু ফল বেরনোর পর দেখা যায় আমাদের ১৮ জন প্রার্থী জয়ী হয়েছেন। আরও ৪-৫ জন প্রার্থী সামান্য ভোটের ব্যবধানে হেরেছেন।’

বলে রাখি, দিন কয়েক আগে নবান্নে এক সাংবাদিক বৈঠকে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় তাঁর সঙ্গে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের কথোপকথনের একাংশ নিজেই ফাঁস করে দিয়েছিলেন। মমতা বলেন, ‘আমি অমিত শাহকে বলেছিলাম, আপনাদের যদি মনে হয় আমরা করোনা পরিস্থিতি সামলাতে পারছি না তাহলে আপনারা দায়িত্ব নিন।’ এর সঙ্গে মমতা যোগ করেন, ‘তবে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকে আমি ধন্যবাদ জানাই যে উনি আমাকে বলেন, এমন কোনও ব্যাপার নয়। নির্বাচিত সরকার কী করে ফেলে দেব?’

পশ্চিমবঙ্গে বিধানসভা নির্বাচনের আর ১ বছরও বাকি নেই। এরই মধ্যে করোনা পরিস্থিতির জেরে স্থগিত হয়ে গিয়েছে পুরসভা নির্বাচন। ফলে বিধানসভা নির্বাচনের আগে বিজেপি হাওয়া ঠিক কতটা প্রবল তা বোঝার উপায় রইল না মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের কাছে। তবে করোনা পরিস্থিতির মধ্যেই বিধানসভা নির্বাচনের কথা মাথায় রেখে সোমবারই নতুন রাজ্য কমিটি ঘোষণা করেছে বিজেপি। আর তাতে স্পষ্ট, ২০২১-এর নির্বাচনে পুরোদমে ঝাঁপাবে তারা। 

এদিন অমিত শাহের বক্তব্যের প্রতিক্রিয়া দিয়েছেন তৃণমূলের মুখপাত্র ডেরেক ওব্রায়েন। তিনি বলেন, ‘অমিত শাহের বক্তব্যে স্পষ্ট, করোনা মোকাবিলা নয়, রাজনীতিই বিজেপির কাছে সব থেকে গুরুত্বপূর্ণ। কিন্তু মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় রাজনীতির পরোয়া করেন না। তিনি মানুষের পাশে রয়েছেন।’

 

বন্ধ করুন