বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > উত্তরাখণ্ডের সুন্দরধুঙ্গা উপত্যকা থেকে মিলল আরও পাঁচ বাঙালি ট্রেকারের দেহ
মৃত ট্রেকারদের দেহ (ফাইল ছবি) (HT_PRINT)

উত্তরাখণ্ডের সুন্দরধুঙ্গা উপত্যকা থেকে মিলল আরও পাঁচ বাঙালি ট্রেকারের দেহ

  • সোমবার বিকেলে উত্তরাখণ্ডের বাগেশ্বর জেলার সুন্দরধুঙ্গা উপত্যকা থেকে আরও পাঁচ বাঙালি ট্রেকারের মৃতদেহ উদ্ধার করল সেনা।

উত্তরাখণ্ডের বাগেশ্বর জেলার সুন্দরধুঙ্গা উপত্যকা থেকে পাঁচ বাঙালি ট্রেকারের মৃতদেহ উদ্ধার করল সেনা। সোমবার বিকেলে সেনাবাহিনীর একটি হেলকপ্টার ট্রেকারদের দেহ উদ্ধার করে। জানা গিয়েছে, মৃতদেহগুলির ময়নাতদন্ত হবে। তারপর দেহগুলি পরিবারের হাতে তুলে দেওয়ার ব্যবস্থা করা হবে। বৃহস্পতিবারের মধ্যে মৃতদেহগুলি কলকাতায় আনা হতে পারে। মৃতদের মধ্যে রয়েছেন বাগনানের তিন যুবক।

জানা গিয়েছে, দুর্গাপুজোর পঞ্চমীর দিন হাওড়ার বাগনানের বাসিন্দা সাগর দে, সরিৎশেখর দাস, চন্দ্রশেখর দাস ও নদিয়ার রানাঘাটের বাসিন্দা প্রীতম রায় ও বেহালার বাসিন্দা সাধন বসাক-সহ একটি দল উত্তরাখণ্ডে ট্রেকিংয়ে যান। পূর্ব নির্ধারিত পরিকল্পনা অনুযায়ী, তাঁদের যোশীমঠ থেকে বাগেশ্বরে ট্রেক করার কথা ছিল। তার পর সেখান থেকে কানাকাটা পাস যাওয়ার কথা ছিল। উত্তরাখণ্ডে যে প্রাকৃতিক দুর্যোগ ঘটেছে, তার পর থেকে পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে তাঁদের যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়। এরপর প্রায় এক সপ্তাহ পর তাঁদের দেহ মিলল।

জানা যায়, তাঁরা চলতি মাসের ৮ তারিখে কানাকাটা পাস থেকে ট্রেকিং করার কথা ছিল তাঁদের। কিন্তু, প্রাকৃতিক দুর্যোগের জন্য ১০ অক্টোবর সেখান থেকে ৫ জনের একটি দল তৈরি করে রওনা দেন তাঁরা। পরিবারের সঙ্গে শেষ কথা হয় ১১ অক্টোবর সন্ধ্যা ৬ টায়। প্রসঙ্গত, ১৯ অক্টোবর উত্তরাখণ্ডে প্রাকৃতিক দুর্যোগ ঘটে। পাহাড়ি এলাকায় ধ্বস ও অতিরিক্ত বৃষ্টির জেরে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে যায় উত্তরাখণ্ডে। দুর্গাপুজোর মরশুমে বাংলা থেকে ঘুরতে গিয়ে ধ্বসের কারণে আটকে পড়েন বহু বাঙালি পর্যটক। মৃত্যু হয় বেশ কয়েকজন ট্রেকারের।

বন্ধ করুন