তখনও ঝুলে রয়েছে নুর আমিনের দেহ
তখনও ঝুলে রয়েছে নুর আমিনের দেহ

সিগন্যাল পোস্টে বাড়ি খেয়ে ঝুলে রইল যুবকের দেহ

  • দীর্ঘক্ষণ পর পুলিশ এসে দেহটি উদ্ধার করে। স্থানীয় স্টেশন মাস্টার জানিয়েছেন, ‘কামলাপুর থেকে ট্রেনটি ছেড়ে আসার পর দুর্ঘটনা ঘটেছে।'

চলন্ত ট্রেন থেকে বাইরে ঝোঁকা যে কতটা বিপজ্জনক তা আমাদের সবারই জানা। যেকোনও সময় ঘটে যেতে পারে বড় দুর্ঘটনা। তার পরেও ট্রেন থেকে বাইরে ঝুঁকে দেখার প্রবণতা কমে না। বিশেষ করে কম বয়সী ছেলেদের মধ্যে এই বেপরোয়া প্রবণতা লক্ষ্য করা যায়। ট্রেনের বাইরে ঝোঁকার বিপদ রবিবার টের পাওয়া গেল বাংলাদেশের একটি ঘটনায়। ট্রেনের বাইরে ঝুঁকে পোস্টে বাড়ি খেয়ে ঝুলে রইল এক যুবকের দেহ।

ঘটনা বাংলাদেশের গাজিপুরের। স্থানীয় সংবাদমাধ্যম সূত্রের খবর, মৃতের নাম নুর আমিন। জামালপুর থানা এলাকার ইসলামপুরের বাসিন্দা ছিলেন তিনি। রবিবার সকালে ঢাকা থেকে দেওয়ানগঞ্জগামী ট্রেনের দরজার পাশে দাঁড়িয়ে ছিলেন ওই যুবক।


গাজীপুর পুর এলাকার ধীরাশ্রমের ওপর দিয়ে যখন ট্রেন যাচ্ছে, তখন ট্রেনের বাইরে ঝুঁকে কিছু দেখার চেষ্টা করেন তিনি। সঙ্গে সঙ্গে একটি সিগনাল পোস্টে বাড়ি খান তিনি। সিগন্যাল পোস্টের রড গেঁথে যায় যুবকের দেহে। সঙ্গে সঙ্গে মৃত্যু হয় ওই যুবকের। এর পর দীর্ঘক্ষণ ঝুলে থাকে দেহটি।

দীর্ঘক্ষণ পর পুলিশ এসে দেহটি উদ্ধার করে। স্থানীয় স্টেশন মাস্টার জানিয়েছেন, ‘কামলাপুর থেকে ট্রেনটি ছেড়ে আসার পর দুর্ঘটনা ঘটেছে। অসাবধানতায় ট্রেনের বাইরে ঝোঁকাতেই মৃত্যু হয়েছে যুবকের।’


বন্ধ করুন