কোঝিকোড় স্টেশনে শ্রমিক স্পেশ্যাল ট্রেনে উঠছেন বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়া শ্রমিকরা। ছবি: পিটিআই। (PTI)
কোঝিকোড় স্টেশনে শ্রমিক স্পেশ্যাল ট্রেনে উঠছেন বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়া শ্রমিকরা। ছবি: পিটিআই। (PTI)

শুধুমাত্র বিচ্ছিন্ন ও নিরুপায়দের জন্যই ট্রেন ও বাসের ব্যবস্থা, রাজ্যকে কড়া বার্তা স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের

  • লকডাউনে আটকে পড়া অসহায় মানুষের কথা ভেবেই এই ছাড়ের ব্যবস্থা করেছে কেন্দ্র।

শুধুমাত্র বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়া অসহায় কর্মী ও ছাত্রদের রাজ্যে ফেরাতেই ট্রেন ও বাস বুক করুন। রাজ্য প্রশাসনের উদ্দেশে এমনই কড়া বার্তা দিল কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক।

রবিবার কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র সচিব অজয় ভল্লা রাজ্যের মুখ্য সচিবদের উদ্দেশে লেখা চিঠিতে পরিযায়ী শ্রমিক ও পড়ুয়াদের নিজরাজ্যে ফেরার বিষয়ে প্রশাসনিক উদ্যোগের এমনই সুস্পষ্ট ব্যাখ্যা করেছেন। তিনি স্মরণ করিয়ে দিয়েছেন যে, লকডাউনে আটকে পড়া অসহায় মানুষের কথা ভেবেই এই ছাড়ের ব্যবস্থা করেছে কেন্দ্র।  

রাজ্যের মুখ্যসচিবদের লেখা কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের চিঠি।
রাজ্যের মুখ্যসচিবদের লেখা কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের চিঠি।

করোনা সংক্রমণ রোধে গত ২৫ মার্চ থেকে দেশজুড়ে আরোপ করা লকডাউনে ভিনরাজ্যে আটকে পড়া রোজগারহীন শ্রমিকদের কথা ভেবেই বিশেষ ট্রেন ও বাস চলাচলে ছাড় ঘোষণা করেছে কেন্দ্রীয় সরকার। কিন্তু সেই ঘোষণার পরেই অন্য রাজ্যে থাকা শ্রমিকদের ফেরাতে বাস ও ট্রেনের বুকিং করতে তৎপর হয়ে ওঠে রাজ্য প্রশাসনগুলি। বিষয়টি নিয়ে এই কারণেই বিরক্তি প্রকাশ করেছে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক।

গত সপ্তাহে ভিডিয়ো কনফারেন্সে ক্যাবিনেট সচিব রাজীবব গৌবাও পরিষ্কার জানিয়েছিলেন যে, লকডাউনে পরিবহণে ছাড় দেওয়া হচ্ছে শুধুমাত্র বিচ্ছিন্ন ও নিরুপায়দের কথা ভেবেই। এই তালিকায় ভিনরাজ্যে থেকে যাওয়া মানুষের স্থান অগ্রাধিকারের ভিত্তিতে পাওয়ার কথা নয়। গত ৩১ এপ্রিল এই বিষয়ে বিস্তারিত রিপোর্ট প্রকাশ করে হিন্দুস্তান টাইমস। 

কার্যক্ষেত্রে দেখা গিয়েছে, বিরোধী ও জনতার চাপে পড়ে সেই নির্দেশাবলী মানছে না রাজ্য প্রশাসন। এই কারণেই রবিবার কেন্দ্রীয় নির্দেশিকার ব্যাখ্যা করে চিঠি পাঠিয়েছেন স্বরাষ্ট্র সচিব। 

 

বন্ধ করুন