বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > হাড়হিম ঘটনা! আত্মহত্যা করতে বেরিয়ে বালি চাপা পড়ে মর্মান্তিক পরিণতি যুবকের
মৃতদেহের প্রতীকী ছবি।
মৃতদেহের প্রতীকী ছবি।

হাড়হিম ঘটনা! আত্মহত্যা করতে বেরিয়ে বালি চাপা পড়ে মর্মান্তিক পরিণতি যুবকের

  • Bengaluru: কলেজে বন্ধুর সঙ্গে বচসার পর সুইসাইড নোট লিখে বাড়ি থেকে বেরিয়ে যায় সোমনাথ। তবে আত্মহত্যা সে করেনি। তার আগেই মর্মান্তিক এক ঘটনায় প্রাণ হারাল সে। 

এক হাড়হিম ঘটনায় বেঙ্গালুরুর এক যুবক জীবন্ত অবস্থায় বালি চাপা পড়ে মারা গেল। জানা গিয়েছে, বাড়ি থেকে সুইসাইড নোট লিখে আত্মহত্যার উদ্দেশেই বেরিয়েছিল সেই ১৮ বছর বয়সি যুবক। রাতে এদিক সেদিক ঘুরতে ঘুরতে একটি নির্মাণ স্থানে গিয়ে ট্রাকে উঠে ঘুমিয়ে পড়ে সে। পরে সাকালে সেই ট্রাকে বালি ভরে নির্মাণ কাজে নিযুক্ত কর্মীরা। তারা খেয়াল করেনি যে ট্রাকে সেই যুবক ঘুমিয়ে আছে। ঘটনাটি ঘটেছে বেঙ্গালুরুর মারাথালি এলাকায়।

পুলিশ জানিয়েছে, কলেজে কোনও কিছু নিয়ে সহপাঠীর সঙ্গে ঝামেলা হয়েছিল সোমনাথের। তাকে নাকি প্রাণে মারার হুমকি দিয়েছিল তার সহপাঠী। এরপর সেই রাতে বাড়িতে একটি সুইসাইড নোট লিখে সোমনাথ বেরিয়ে যায়। এটি ৪ মে-এর ঘটনা। সোমনাথের হাতে লেখা নোট পেয়ে তার বাবা-মা পুলিশের দ্বারস্থ হন। শুরু হয় তল্লাশি। পরে মারাথালিতে নির্মাণ কাজের সময় ট্রাক থেকে বালি ফেলার সময় ঘুমন্ত আঙ্গিকে থাকা সোমনাথের দেহ উদ্ধার হয়।

অবশ্য মুখ দেখে সেই দেহ শনাক্ত করার মতো অবস্থায় ছিল না। তবে সোমনাথের পকেটে তাঁর বাবার সংস্থার নামাঙ্কিত একটি মাস্ক থেকে তাকে শনাক্ত করা সম্ভব হয়। ময়নাতদন্ত করা হলে জানা যায়, ফুসফুসে বালি ঢুকে গিয়ে দমবন্ধ হয়ে মারা যায় সোমনাথ। এদিকে নিজের লেখা সুইসাইড নোটে সোমনাথ তার সেই সহপাঠীর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা না নেওয়ার আর্জি জানিয়েছিল। ঘটনার পূর্ণাঙ্গ তদন্তে নেমেছে পুলিশ।

 

বন্ধ করুন