বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > হাতে ধরে শিখিয়ে দেয়নি কেউ, সর্বকনিষ্ঠ অ্যাপ ডেভেলপার হিসাবে বিশ্ব রেকর্ড ভারতের কার্তিকেয়র
কার্তিকেয় জাখর।

হাতে ধরে শিখিয়ে দেয়নি কেউ, সর্বকনিষ্ঠ অ্যাপ ডেভেলপার হিসাবে বিশ্ব রেকর্ড ভারতের কার্তিকেয়র

আর তিনিই একটি মোবাইল ফোন কেনেন কোভিডের লকডাউনের সময়। ১০ হাজার টাকা দিয়ে কেনা সেই মোবাইল ফোন কার্যত কার্তিকেয়র জীবন ঘুরিয়ে দেয়। ১২ বছরের কিশোর কার্তিকেয় সেই সময় ইউটিউব থেকে কোডিং প্রসেস শিখতে শুরু করে।

ঝাঝরের জওহর নবোদ্যয়া বিদ্যালয়ের পড়ুয়া কার্তিকেয় ঝাঝর। বর্তমানে অষ্টম শ্রেণিতে সে পড়ে। আর এই কৈশোর বয়সেই সে একটি নয়, দুটি নয়, তিন তিনটি অ্যাপ তৈরি করে ফেলেছে। কেউ হাতে ধরে কোনও দিনও তাকে শিখিয়ে দেয়নি কীভাবে অ্যাপ তৈরি করতে হয়। সম্পূর্ণ নিজের চেষ্টা আর শেখার ইচ্ছেতেই এই কাণ্ড ঘটিয়ে ফেলেছে ছোট্ট কার্তিকেয়।

কার্তিকেয়র সাফল্যের এখানেই শেষ নয়। আমেরিকার হারভার্ড বিশ্ববিদ্যালয় পর্যন্ত তার চলার পথ আপাতত পাকা। কার্তিকেয়র বাবা পেশায় কৃষক। আর তিনিই একটি মোবাইল ফোন কেনেন কোভিডের লকডাউনের সময়। ১০ হাজার টাকা দিয়ে কেনা সেই মোবাইল ফোন কার্যত কার্তিকেয়র জীবন ঘুরিয়ে দেয়। ১২ বছরের কিশোর কার্তিকেয় সেই সময় ইউটিউব থেকে কোডিং প্রসেস শিখতে শুরু করে। রোজ রাতে AC ২৪ ডিগ্রিতে রেখে ঠাণ্ডা ঘরে ঘুমোন? জানেন স্পেনে কী ঘটেছে!

কার্তিকেয় বলছে, সে তিনটি অ্যাপ তৈরি করেছে। একটি সাধারণ জ্ঞান ভিত্তিক লুসেন্ট জি.কে অনলাইন। এছাড়াও গ্রাফিক ডিজাইনিং ও কোডিংয়ের জন্য বাকি দুটি অ্যাপ তৈরি করা হয়েছে। কার্তিকেয় বলছে, এই অ্যাপগুলি বিনামূল্যে এই মুহূর্তে ৪৫ হাজার শিক্ষার্থীকে ট্রেনিং দিচ্ছে। কার্তিকেয় বলছে, সে এই অ্যাপ তৈরির করার উৎসাহ পেয়েছে পিএম ডিজিটাল ইন্ডিয়ার থেকে। সে বলছে, 'আমি চাই ভবিষ্যতে দেশের সেবা করতে।'

বন্ধ করুন