বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > কোনওটায় কাটা পা, কোনওটায় ছিন্ন ধড় - আমদাবাদে ৩ বস্তায় ছিন্নভিন্ন দেহ উদ্ধার
তিনটি বস্তায় মানুষের ছিন্নভিন্ন দেহ উদ্ধারে আতঙ্ক ছড়াল আহমেদাবাদে: ছবিটি প্রতীকী
তিনটি বস্তায় মানুষের ছিন্নভিন্ন দেহ উদ্ধারে আতঙ্ক ছড়াল আহমেদাবাদে: ছবিটি প্রতীকী

কোনওটায় কাটা পা, কোনওটায় ছিন্ন ধড় - আমদাবাদে ৩ বস্তায় ছিন্নভিন্ন দেহ উদ্ধার

পুলিশের সন্দেহ, মানব দেহের অঙ্গপ্রত্যঙ্গগুলো একই ব্যক্তির।

নির্জন জায়গায় বস্তা পড়ে থাকতে দেখে সন্দেহ হয়েছিল এলাকাবাসীদের। কৌতুহলবশত বস্তা খুলতেই আঁতকে উঠেন তাঁরা। দেখেন, মানবদেহের কাটা পা রয়েছে। সঙ্গে সঙ্গে পুলিশে খবর দেওয়া হয়। কিছুক্ষণের মধ্যে পুলিশ ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে তিনটি পৃথক বস্তা উদ্ধার করে। বস্তাগুলো খুলতেই চমকে উঠেন তদন্তকারীরা। কোনওটায় কাটা পা রয়েছে, আবার কোনও বস্তায় উদ্ধার হয় কাটা হাত-‌ধড়। তবে কোনও বস্তাতেই দেহের মাথা খুঁজে পাওয়া যায়নি। মানুষের দেহের মাথার খোঁজে তল্লাশি শুরু করেছে আমদাবাদ পুলিশ।ছিন্নভিন্ন দেহ উদ্ধারের ঘটনায় আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে গোটা এলাকায়। 

মঙ্গলবার দুপুরে ঘটনাটি ঘটেছে আহমেদাবাদ ভুরুচের অঙ্কলেশ্বর উপজেলার সরংপুর এলাকার আম্রতপুরা গ্রামে।দেহ উদ্ধারের পর অঙ্কলেশ্বর সিটি খানায় এফআইআর দায়ের করা হয়েছে।

পুলিশের সন্দেহ, মানব দেহের অঙ্গপ্রত্যঙ্গগুলো একই ব্যক্তির। আততায়ীরা ওই অজ্ঞাত পরিচয়ের ব্যক্তিকে খুন করে তাঁর দেহ কোনও ধারাল অস্ত্র দিয়ে টুকরো টুকরো করে কেটে ফেলে। তারপর বস্তায় ভরে ওই নির্জন জায়গায় ফেলে পালিয়ে গিয়েছে।

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, দুপুরে আম্রতপুরা গ্রামের কয়েকজন বাসিন্দা ওই এলাকার একটি নির্জন জায়গায় দু’‌টি বস্তা পড়ে থাকতে দেখেন। কৌতুহলবশত তাঁরা ব্যাগ পরীক্ষা করতে গিয়ে চমকে উঠেন। একটি বস্তায় দু’‌টি ছিন্ন হাত ও অপরটিতে দু’‌টি কাটা পা দেখতে পান স্থানীয়রা।

খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয় অঙ্কলেশ্বর সিটি থানার পুলিশ। তাঁরা প্রথমে দু’‌টি বস্তা উদ্ধার করে। তারপর কয়েকটি দল গঠন করে আশেপাশের এলাকায় তল্লাশি চালানো হয়। সন্ধ্যার দিকে আরও একটি বস্তা উদ্ধার করা হয়। পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, ওই তৃতীয় বস্তার মধ্যে কাটা ধড় পাওয়া গিয়েছে। এছাড়াও সরংপুর এলাকায় রেল ক্রসিংয়ের ধার থেকে একটি রক্তমাখা ব্যাটও উদ্ধার করেছে পুলিশ।

অঙ্কলেশ্বর বিভাগের ডিএসপি চিরাগ দেশাই বলেন, ‘‌ প্রাথমিক তদন্তে উঠে এসেছে অপরাধীরা মৃতদেহকে চারটি অংশে কেটে সেগুলো বিভিন্ন জায়গায় ফেলে গিয়েছে।তিনি আরও জানান, ‘‌মাথার খোঁজে তল্লাশি চালানোর সময় আরও বস্তা উদ্ধার করা হয়েছে। প্রত্যক্ষদর্শীদের বয়ান অনুয়ায়ী, একজন অটোরিকশা চালককে ওই বস্তাগুলো ছুড়তে দেখা গিয়েছে। ঘটনার তদন্তে বেশ কয়েকটি দল গঠন করা হয়েছে। আমরা সিসিটিভি ফুটেজ খতিয়ে দেখছি। শীঘ্রই দেহ শনাক্ত করে অপরাধীদের চিহ্নিত করা হবে।

বন্ধ করুন