বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > 7th Pay Commission: বকেয়া DA-DR মেটাতে মোদীর হস্তক্ষেপের দাবি পেনশনভোগীদের
নরেন্দ্র মোদী (ছবি এএনআই)
নরেন্দ্র মোদী (ছবি এএনআই)

7th Pay Commission: বকেয়া DA-DR মেটাতে মোদীর হস্তক্ষেপের দাবি পেনশনভোগীদের

  • সংগঠনের দাবি, ২০২০ সালের ১ জানুয়ারি থেকে ২০২১ সালের ৩০ জুন পর্যন্ত সরকারি কর্মীদের বকেয়া ডিয়ারনেস অ্যালাওয়েন্স যাতে অবিলম্বে মিটিয়ে দেওয়া হয়।

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর কাছে চিঠি দিয়ে পেনশনভোগীদের সংগঠন ভারতীয় পেনশনার্স মঞ্চ বকেয়া ডিয়ারনেস অ্যালাওয়েন্স এবং ডিয়ারনেস রিলিফ মেটানোর দাবি তুলল। সংগঠনের দাবি, ২০২০ সালের ১ জানুয়ারি থেকে ২০২১ সালের ৩০ জুন পর্যন্ত সরকারি কর্মীদের বকেয়া ডিয়ারনেস অ্যালাওয়েন্স যাতে অবিলম্বে মিটিয়ে দেওয়া হয়। সংগঠনের দাবি, প্রধানমন্ত্রী নিজে যাতে সংশ্লিষ্ট মন্ত্রককে এই বিষয় নির্দেশ দেন। এর আগেও এই দাবি তুলে প্রধানমন্ত্রীর দ্বারস্থ হয়েছিল ভারতীয় পেনশনার্স মঞ্চ।

করোনার জেরে ২০২০ সালের ১ জানুয়ারি থেকে ২০২১ সালের ৩০ জুন পর্যন্ত স্থগিত রাখা হয়েছিল ডিএ এবং ডিআর। তখন ডিএ এবং ডিআর-এর হার ছিল ১৭ শতাংশ। দীর্ঘ অপেক্ষার পর শেষ পর্যন্ত গত জুলাই মাস থেকে ২৮ শতাংশ হারে বর্ধিত ডিএ পেতে শুরু করেন সরকারি কর্মচারীরা। এর ফলে ৪৮ লক্ষ কর্মী এবং ৬৫ লক্ষ পেনশনভোগীরা লাভবান হবেন বলে মনে করা হচ্ছে। তবে দেড় বছড়ের বকেয়া ডিএ সম্পর্কে কোনও সিদ্ধান্ত নেয়নি কেন্দ্র।

ভারতীয় পেনশনার্স মঞ্চের দাবি, করোনা আবহে অত্যাবশ্যক পণ্যের দাম যে হারে বেড়েছে, তাতে সবথেকে বেশি ভুগছেন অবসরপ্রাপ্ত কর্মীরা। তাই দ্রুত বকেয়া মেটানোর দাবি তোলা হয়েছে অবসরপ্রাপ্ত কর্মীদের সংগঠনের তরফে। ন্যাশনাল কাউন্সিল অফ জেসিএম, ডিপার্টমেন্ট অফ পার্সোনাল অ্যান্ড ট্রেনিং ও অর্থমন্ত্রকের মধ্যে এই বিষয়ে শেষবার বৈঠকে বসেছিল ২৬ ও ২৭ জুন। তারপর এই বিষয়ে কোনও বৈঠক হয়নি। এই আবহে বকেয়া ডিএ নিয়ে এখনও কোনও চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত জানানো হয়নি।

বন্ধ করুন