বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > ১০ দিন ধরে থামছেই না হেঁচকি, হাসপাতালে ভরতি ব্রাজিলের প্রেসিডেন্ট
ব্রাজিলের প্রেসিডেন্ট জাইর বোলসোনারো। (ফাইল ছবি, সৌজন্য রয়টার্স)
ব্রাজিলের প্রেসিডেন্ট জাইর বোলসোনারো। (ফাইল ছবি, সৌজন্য রয়টার্স)

১০ দিন ধরে থামছেই না হেঁচকি, হাসপাতালে ভরতি ব্রাজিলের প্রেসিডেন্ট

  • অপারেশন হতে পারে, জানিয়েছেন চিকিৎসকরা।

গত ১০ দিন ধরে ক্রমাগত হেঁচকি তুলছেন ব্রাজিলের প্রেসিডেন্ট জাইর বোলসোনারো। অপারেশন হতে পারে, জানিয়েছেন চিকিৎসকরা।

অসুস্থ ব্রাজিলের প্রেসিডেন্ট বোলসোনারো। বুধবার তাঁকে প্রথমে নিয়ে যাওয়া হয় দেশের একটি সেনা হাসপাতালে। সেখানে প্রাথমিক চিকিৎসার পর তাঁকে পাঠানো হয় সাও পাওলোর অন্য একটি হাসপাতালে। চিকিৎসকের নির্দেশেই এ কাজ করা হয়েছে বলে প্রেসিডেন্টের মুখপাত্র জানিয়েছেন। বলা হয়েছে, গত ১০ দিন ধরে ক্রমাগত হেঁচকি উঠছে প্রেসিডেন্টের। দাঁতের একটি চিকিৎসার পরেই তাঁর এই সমস্যা শুরু হয়। পরীক্ষা করে চিকিৎসকদের ধারণা, তাঁর পাকস্থলীতে একটি ব্লক আছে। তার থেকেই এই ঘটনা ঘটছে। প্রয়োজনে অপারেশন করা হতে পারে।

২০১৮ সালে একটি অনুষ্ঠানে বিরোধী রাজনৈতিক গোষ্ঠীর এক সমর্থক বোলসোনারোকে ছুড়ি দিয়ে আঘাত করেছিল। প্রেসিডেন্টের পেটে ছুরি চালানো হয়েছিল। যে চিকিৎসক তখন তাঁর চিকিৎসা করেছিলেন, তিনিই এখন দেখছেন। ওই আঘাতের পর বোলসোনারোর একাধিক পেটের সমস্যা হয়েছে। একাধিকবার চিকিৎসাও করাতে হয়েছে। সাম্প্রতিক সমস্যাও ওই ঘটনার জন্য বলে মনে করা হচ্ছে।

বোলসোনারো নিজেও টুইট করেছেন। সেখানে ২০১৮ সালের ঘটনার কথা উল্লেখ করে বিরোধী বামশক্তিকে এক হাত নিয়েছেন। তাঁর বক্তব্য, রাজনৈতিকভাবে মোকাবিলা করতে পারেনি বলেই বামপন্থীরা তাঁকে আঘাত করার চেষ্টা করেছিলেন। যার ফল এখনও ভুগতে হচ্ছে তাঁকে।

গত কয়েকদিনে বার বারই হেঁচকি তুলতে দেখা গেছে বোলসোনারোকে। সম্প্রতি এক সভায় কথা বলার সময় বার বার হেঁচকি ওঠে তার। তার জন্য ক্ষমা চেয়ে নেন তিনি। একটি রেডিয়োর অনুষ্ঠানেও একই ঘটনা ঘটে।

আগামী বছর ব্রাজিলের নির্বাচন। সমীক্ষা বলছে, বোলসোনারোকে পিছনে ফেলে এগিয়ে গিয়েছেন বিরোধী প্রেসিডেন্ট পদপ্রার্থী। করোনাকালে বর্তমান প্রেসিডেন্ট যেভাবে প্যানডেমিককে উপেক্ষা করেছেন, তা নিয়ে ক্ষুব্ধ জনগণ। আমেরিকার পর ব্রাজিলেই সবচেয়ে বেশি মানুষ করোনায় মারা গিয়েছেন। কিন্তু টিকাকরণ নিয়ে মাথা ঘামাননি প্রেসিডেন্ট।

বন্ধ করুন