বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > 'পাক জঙ্গি নিহত, দেহ নিয়ে যান', হটলাইনে পাকিস্তানকে বার্তা ভারতীয় সেনার
মেজর জেনারেল অভিজিৎ পেনধরকর। (ছবি সৌজন্য এএনআইI) (HT_PRINT)

'পাক জঙ্গি নিহত, দেহ নিয়ে যান', হটলাইনে পাকিস্তানকে বার্তা ভারতীয় সেনার

  • রবিবার ভারতীয় সেনা অভিযোগ করে, পাকিস্তান নতুন করে ফের একবার সীমান্ত সংঘর্ষ বিরতি চুক্তি লঙ্ঘন করেছে। পাক সীমান্ত থেকে গুলি ধেয়ে আসতেই, তৎক্ষণাৎ পাল্টা গুলি চালায় ভারতীয় সেনা।

শীত পড়তেই ফের একবার কাশ্মীরের পাকিস্তান সীমান্ত দিয়ে জঙ্গি অনুপ্রবেশের ছক বাড়ছে। এদিকে , সীমান্ত সংঘাত বিরতি চুক্তি লঙ্ঘন করে পাক শিবির থেকে বারবার ভারতীয় ক্যাম্পকে লক্ষ্য করে গুলি চালনার ঘটনা উঠে আসছে। রবিবার এই বিষয়ে মুখ খুলেছে ভারতীয় সেনা। সেনার তরফে জানানো হয়েছে, পাকিস্তানের তরফে সীমান্ত সংঘাত চুক্তি লঙ্ঘন করা হচ্ছে। এই প্রসঙ্গেই মুখ খুলে ভারতীয় সেনা জানিয়েছে, কুপওয়ারার কেরান সেক্টরে এক পাকিস্তানি জঙ্গি অনুপ্রবেশের চেষ্টা করছিল। আর সেই অনুপ্রবেশ রোধ করে দেয় ভারতীয় সেনা।

প্রসঙ্গত, কাশ্মীরে শীতকালে বরফের চাদরে ঢাকা পড়ে যায় গোটা উপত্যকা। সেই সময় বারবারই দেখা গিয়েছে, ভারতীয় পোস্ট লক্ষ্য করে পাকিস্তান সীমান্ত থেকে গোলাগুলির পরিমাণ বেড়ে যায়। মূলত, ভারতীয় সেনাকে গোলাগুলি বর্ষণের দিকে ব্যস্ত রেখে তার আড়ালে বরফের উপত্যকা দিয়ে পাক সীমান্ত থেকে কাশ্মীরে আসা জঙ্গিদের সহায়তা করার স্ট্র্যাটেজি বহু বছর ধরে পাকিস্তানি সেনা চালিয়ে এসেছে। এদিকে , রবিবার ভারতীয় সেনা অভিযোগ করে, পাকিস্তান নতুন করে ফের একবার সীমান্ত সংঘর্ষ বিরতি চুক্তি লঙ্ঘন করেছে। পাক সীমান্ত থেকে গুলি ধেয়ে আসতেই, তৎক্ষণাৎ পাল্টা গুলি চালায় ভারতীয় সেনা। এভাবে দুপক্ষের গোলগুলির মধ্যে পাকিস্তান সীমান্ত থেকে এক অনুপ্রবেশকারী কুপওয়ারার কেরান সেক্টর দিয়ে ভারতে প্রবেশের চেষ্টা করে। আর তৎক্ষণাৎ তা রুখে দেয় ভারত। ভারতীয় সেনার গুলিতে পাকিস্তানি ওই জঙ্গি নিহত হয়। ভারতীয় সেনা জানিয়েছে, ওই মৃত পাকিস্তানি জঙ্গির নাম মহম্মদ সাব্বির মালিক।

ভারতীয় সেনার গুলিতে যে অনুপ্রবেশকারী মারা গিয়েছে, তার কাছ থেকে উদ্ধার হওয়া পরিচয়পত্রে দেখা গিয়েছে সে পাকিস্তানের নাগরিক। একথা জানানো হয়েছে ভারতীয় সেনার তরফে। ভারতীয় সনার মেজর জেনারেল অভিজিৎ এস পেনধারকর জানিয়েছেন,'এটা থেকেই প্রমাণিত হয় যে পাকিস্তান ক্রমাগত সীমান্তপারের সন্ত্রাস চালিয়ে যাচ্ছে। হটলাইন সংযোগের মাধ্যমে পাকিস্তানি সেনাকে বলে দেওয়া হয় যে, ওই মৃতের দেহ যেন তারা নিয়ে যায়।' উল্লেখ্য, ওই মৃত পাক জঙ্গির পোশাকে একটি ভ্যাকসিন সার্টিফিকেটও মিলেছে। যেখানে পাকিস্তানের স্বাস্থ্য দফতরের প্রতীক মিলেছে। প্রসঙ্গত, পাকিস্তানি সেনার বর্ডার অ্যাকশন টিম বা ব্যাট মূলত, এমন এক একটি গোষ্ঠী যেখানে পাকিস্তানের জওয়ান ছাড়াও সন্ত্রাসবাদীরাও মাঝে মাঝে মিশে থাকে বলে খবর বিভিন্ন গোয়েন্দাসূত্রের। যদিও এই অভিযোগকে পাকিস্তান সর্বদাই নস্যাৎ করেছে। এদিকে, এদিন যে জঙ্গির অনুপ্রবেশ রোধ করা হয়েছে সীমান্তে, তার পোশাকে পাকিস্তানের সেনার ব্যাট বা বর্ডার অ্যাকশন টিমের পরিচিতি পত্র পাওয়া গিয়েছে।

বন্ধ করুন