বাড়ি > ঘরে বাইরে > নারকীয় ঘটনা উত্তরপ্রদেশে, চোখ উপড়ে, জিভ কেটে গণধর্ষণ করে খুনের অভিযোগ
নারকীয় ঘটনা উত্তরপ্রদেশে (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য হিন্দুস্তান টাইমস)
নারকীয় ঘটনা উত্তরপ্রদেশে (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য হিন্দুস্তান টাইমস)

নারকীয় ঘটনা উত্তরপ্রদেশে, চোখ উপড়ে, জিভ কেটে গণধর্ষণ করে খুনের অভিযোগ

  • আবারও এক নারকীয় ঘটনা যোগী আদিত্যনাথের রাজ্যে।

আরও এক নারকীয় ঘটনা ঘটল উত্তরপ্রদেশে। লখিমপুর খেরি জেলার একটি আখের খেত থেকে উদ্ধার করা হল ১৩ বছরের এক নাবালিকার দেহ। পুলিশ জানিয়েছে, তাকে গণধর্ষণ করে খুন করা হয়েছে। ঘটনায় দু'জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। 

নাবালিকার বাবা জানিয়েছেন, শুক্রবার সন্ধ্যা থেকে মেয়েকে খুঁজে পাওয়া যাচ্ছিল না। চারিদিকে তাকে খোঁজা হচ্ছিল। পরে এক অভিযুক্তের খেতে দেহ উদ্ধার করা হয়। নাবালিকার বাবার অভিযোগ, ‘ওর চোখ উপড়ে নেওয়া হয়েছিল। জিভ কেটে নেওয়া হয়েছিল। দোপাট্টা দিয়ে শ্বাসরোধ করা হয়েছিল।’

যদিও চোখ উপড়ে নেওয়া ও জিভ কেটে দেওয়ার অভিযোগ খারিজ করে দিয়েছে পুলিশ। খেরির পুলিশ সুপার সতেন্দ্র কুমার বলেন, ‘চোখ উপড়ে নেওয়া হয়নি এবং জিভ কাটা হয়নি। এই দাবি সত্যি নয়। ময়নাতদন্তের রিপোর্টে এমন কোনও প্রমাণ মেলেনি। তার চোখের কাছে ক্ষত আছে। তা আখের ধারালো পাতার কারণে হয়েছে বলে মনে হচ্ছে।’

তবে ধর্ষণের বিষয়টি নিশ্চিত করেছে পুলিশ। সুপার জানিয়েছেন, সন্তোষ যাদব এবং সঞ্জয় যাদব নামে দুই অভিযুক্তকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তাদের বিরুদ্ধে ভারতীয় দণ্ডবিধির ৩০২ ধারা (খুন), ৩৭৬ ডি (গণধর্ষণ) ধারায় মামলা রুজু করা হয়েছে। একইসঙ্গে জাতীয় সুরক্ষা আইনের ধারাও চাপানো হয়েছে। 

এর আগে, গত সপ্তাহে পশ্চিম উত্তরপ্রদেশের হরপুরে ছ'বছরের এক কিশোরীকে অপহরণ করে ধর্ষণ করা হয়েছিল। শুক্রবার এক অভিযুক্তকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। ওই কিশোরী আপাতত হাসপাতালে ভরতি আছে। চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, শারীরিক অবস্থা স্থিতিশীল হলেও বিপন্মুক্ত নয় সে।

বন্ধ করুন