বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > কেন সহকর্মীকে গুলি? মৃত দুই জওয়ান, বিভাগীয় তদন্তে BSF
  দেশের বিভিন্ন সীমান্তে কড়া নজরদারি চালায় বিএসএফ  (PTI Photo) (ফাইল ছবি )
  দেশের বিভিন্ন সীমান্তে কড়া নজরদারি চালায় বিএসএফ  (PTI Photo) (ফাইল ছবি )

কেন সহকর্মীকে গুলি? মৃত দুই জওয়ান, বিভাগীয় তদন্তে BSF

  • বিএসএফ সূত্রে জানা গিয়েছে গত ২৩ শে সেপ্টেম্বর সীমান্ত এলাকায় ডিউটিতে ছিলেন হেড কনস্টেবল সতবীর সিং ও কনস্টেবল প্রতাপ সিং।

বিএসএফের দুই জওয়ানের মধ্যে মৃদু ঝগড়া। আর তার জেরে একেবারে তুলকালাম কাণ্ড হয়ে গিয়েছিল ত্রিপুরা সীমান্তে। গুলিবিদ্ধ অবস্থায় মৃত্যু হয়েছিল দুই বিএসএফ জওয়ানের। এবার এনিয়ে বিভাগীয় তদন্ত শুরু করেছে সীমান্ত রক্ষী বাহিনী। ত্রিপুরার গোমতী জেলায় খাগড়াছেড়ি বর্ডার আউটপোস্টে এই ঘটনাকে ঘিরে তীব্র চাঞ্চল্য ছড়িয়েছিল এলাকায়। শুক্রবার বিএসএফের তরফে প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে, আসলে ঘটনা কী হয়েছিল তা জানতে বিভাগীয় তদন্ত করা হচ্ছে। 

বিএসএফ সূত্রে জানা গিয়েছে, গত ২৩ শে সেপ্টেম্বর সীমান্ত এলাকায় ডিউটিতে ছিলেন হেড কনস্টেবল সতবীর সিং ও কনস্টেবল প্রতাপ সিং। তাঁদের মধ্যে প্রথমে কোনও বিষয় নিয়ে তর্কাতর্কি বেধে যায়। এরপরই সার্ভিস রাইফেল দিয়ে একজন বিএসএফ জওয়ান গুলি চালিয়ে দেন। এদিকে পুলিশ সূত্রে খবর, গুলি চালিয়ে ওই জওয়ান আউটপোস্টে ফিরে এসেছিলেন। সেখানেও ফের রাগের বশে তিনি গুলি চালিয়ে দেন। এদিকে সেই সময় বিএসএফের সাব ইনস্পেক্টর রাম কুমার পরিস্থিতি ঠাণ্ডা করার চেষ্টা করেছিলেন। সেই সময় তাঁর দুটি পায়েই গুলি করা হয়। ইতিমধ্যেই একজন সেন্ট্রি আত্মরক্ষার্থে গুলি চালান। যার জেরে পরবর্তী সময় ওই জওয়ানের মৃত্যু হয়। গুলিতে জখম সাব ইনস্পেক্টরকে গোবিন্দ বল্লভ পন্থ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

গোমতীর জেলা পুলিশ সুপার শাশ্বত কুমার বলেন, বিএসএফের দুজন জওয়ানের নিজেদের মধ্যে তর্কাতর্কি থেকে গুলি চালনার ঘটনা হয়েছে।এদিকে সূত্রের খবর,  ২০১৮ সালেও প্রায় একই ধরনের ঘটনা হয়েছিল। একজন বিএসএফ জওয়ান সেবার গুলি করে তার তিনজন সহকর্মীকে হত্যা করেছিলেন। পরে ওই রাইফেল দিয়েই তিনি আত্মঘাতী হয়েছিলেন। 

 

বন্ধ করুন