বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > জামা মসজিদের নিচে কৃষ্ণমূর্তি? ASI-কে নোটিশ আইনজীবীর
ফাইল ছবি; হিন্দুস্তান টাইমস (HT Photo)

জামা মসজিদের নিচে কৃষ্ণমূর্তি? ASI-কে নোটিশ আইনজীবীর

নোটিশ অনুযায়ী, মুঘল সম্রাট ঔরঙ্গজেবের মথুরার একটি মন্দির থেকে কৃষ্ণমূর্তিগুলি সরিয়ে রাজধানী আগ্রার জামা মসজিদের সিঁড়ির নিচে রেখেছিলেন। সেগুলি উদ্ধারের দাবিতে মথুরার আইনজীবী মহেন্দ্র প্রতাপ সিং নোটিশটি পাঠিয়েছেন।

আইনি নোটিশ পেল আর্কিওলজিকাল সার্ভে অফ ইন্ডিয়া(ASI) এবং কেন্দ্রীয় সরকার। তাতে আগ্রার বিখ্যাত জামা মসজিদের নিচ থেকে কৃষ্ণমূর্তি তোলার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

নোটিশ অনুযায়ী, মুঘল সম্রাট ঔরঙ্গজেবের মথুরার একটি মন্দির থেকে কৃষ্ণমূর্তিগুলি সরিয়ে রাজধানী আগ্রার জামা মসজিদের সিঁড়ির নিচে রেখেছিলেন। সেগুলি উদ্ধারের দাবিতে মথুরার আইনজীবী মহেন্দ্র প্রতাপ সিং নোটিশটি পাঠিয়েছেন। শ্রীকৃষ্ণ জন্মভূমি আন্দোলনের সঙ্গে জড়িত তিনি।

এক্ষেত্রে উল্লেখ্য এর আগে, এই সংক্রান্ত একাধিক মামলায় মহেন্দ্র প্রতাপ সিং দাবি করেছেন যে, উল্লিখিত মূর্তিগুলি আগ্রা ফোর্টে লুকিয়ে রাখা হয়েছিল। ২ জুন, ২০২২ তারিখের তার নোটিশে, তিনি প্রথমবারে বললেন যে, 'মূর্তিগুলি আসলে আগ্রার জামা মসজিদ চত্বরে লুকনো হয়েছিল।'

একটি মামলা দায়েরের কমপক্ষে দুই মাস আগে নোটিশ দিতে হয়। সিভিল প্রসিডিউর কোডের ৮০ নম্বর ধারার অধীনে ভারত ইউনিয়ন বা যেকোনো রাজ্যের বিরুদ্ধে বা, সরকারি দফতর বা কর্মচারীর বিরুদ্ধে মামলা করার আগে এই নোটিশ দিতে হয়।

মামলাকারীর দাবি

অনেক ঐতিহাসিক এবং লেখকই উল্লেখ করেছেন যে ঔরঙ্গজেব কৃষ্ণের বিভিন্ন মূর্তি পেয়েছিলেন। সেগুলি তিনি আগ্রা ফোর্টের কাছে জামা মসজিদের সিঁড়ির নিচে সমাহিত করেছিলেন। উক্ত জামা মসজিদটি ঔরঙ্গজেবের বোন জাহান আরা ৫ লক্ষ টাকা ব্যয়ে তৈরি করেছিলেন। এটি আর্কিওলজিকাল সার্ভে অফ ইন্ডিয়ার(ASI) নিয়ন্ত্রণ ও তত্ত্বাবধানে রয়েছে। তাই জামা মসজিদে স্থানান্তরিত এই মূর্তিগুলিকে খনন করে বের করতে হবে।

 

বন্ধ করুন