বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > অনলাইন গ্যাম্বলিংয়ের প্রচারে মদত জোগানো বিজ্ঞাপনে রাশ টানতে পারে কেন্দ্র
প্রতীকি ছবি  (Bloomberg)
প্রতীকি ছবি  (Bloomberg)

অনলাইন গ্যাম্বলিংয়ের প্রচারে মদত জোগানো বিজ্ঞাপনে রাশ টানতে পারে কেন্দ্র

  • অনলাইন গ্যাম্বলিংয়ের সঙ্গে যুক্ত গেমিং সাইটের বিজ্ঞাপনী প্রচার টেলিভিশনে বৈধ কিনা তা খতিয়ে দেখবে তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রক। 

অনলাইন গ্যাম্বলিংয়ের সঙ্গে যুক্ত গেমিং সাইটের বিজ্ঞাপনী প্রচার টেলিভিশনে বৈধ কিনা তা খতিয়ে দেখতে এবার নিজেদের একাধিক স্টেকহোল্ডারদের সঙ্গে আলোচনা শুরু করল কেন্দ্রীয় তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রক। 

গত কয়েক বছর ধরে বিভিন্ন গেমিং সাইটের বিজ্ঞাপনের রমরমা টেলিভিশন চ্যানেলগুলিতে। তবে চিন্তার বিষয় হল এই বিজ্ঞাপনগুলি কি পাবলিক গ্যাম্বলিং অ্যাক্ট, ১৮৬৭-এর ধারা লঙ্ঘন করছে? 

এই সংক্রান্ত একটি রিট পিটিশন আগেই দিল্লি হাইকোর্টে দাখিল করা হয়েছে। অক্টোবর মাসে দায়ের করা এই পিটিশনে বলা হয়েছে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের বিষয়টি খতিয়ে দেখা উচিত। 

গেমিং ওয়েবসাইটের বাড়বাড়ন্ত নিয়েও উদ্বেগ প্রকাশ করা হয়েছে ওই পিটিশনে। কারণ গেমিংয়ের আছিলায় অনলাইন গ্যাম্বলিংয়ের কাজই চলে বলে অভিযোগ করা হয়েছে ওই পিটিশনে। 

হাইকোর্টের নির্দেশ মেনে দ্য অ্যাডভারটাইজিং স্ট্যান্ডার্ড কাউন্সিল অফ ইন্ডিয়া (ASCI) গোটা বিষয়টি খতিয়ে দেখছে। 

বিজ্ঞাপন নিয়ন্ত্রক সংস্থা যদিও জানিয়েছে কোনও সংস্থা গ্যাম্বলিংয়ের সঙ্গে যুক্ত কিনা এই বিষয়টি খতিয়ে দেখার উপযুক্ত সংগঠন তাঁরা নন। তাই গোটা বিষয়টির নিয়ন্ত্রণের দায়িত্বে থাকা তথ্য-সম্প্রচার মন্ত্রকের বিষয়টি গুরুত্ব দিয়ে দেখা উচিত। 

কেন্দ্রর তরফে এই বিষয় নিয়ে ইতিমধ্যেই প্রথম পর্যায়ের আলোচনা সম্পন্ন হয়েছে।করোনা পরিস্থিতির কথা মাথায় রেখে আপতত ভার্চুয়ালি আলোচনা চলেছে। প্রথম বৈঠকে যোগ দিয়েছিলেন তথ্য-সম্প্রচার মন্ত্রকের জয়েন্ট সেক্রেটারি বিক্রম সাহায়, দ্য অ্যাডভারটাইজিং স্ট্যান্ডার্ড কাউন্সিল অফ ইন্ডিয়ার প্রতিনিধিরা, গেমিং ফেডারেশন এবং ব্রডকাস্টার্সরা। 

গোটা বিষয়টি গুরুত্ব দিয়ে খতিয়ে দেখছে কেন্দ্র। সব দিক আলোচনা করেই চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে। 

বন্ধ করুন