বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > করোনা না হলেও মিউকরমাইকোসিস বা ব্ল্যাক ফাংগাস হতে পারে?
ফাইল ছবি : হিন্দুস্তান টাইমস (Pratham Gokhale/HT Photo)
ফাইল ছবি : হিন্দুস্তান টাইমস (Pratham Gokhale/HT Photo)

করোনা না হলেও মিউকরমাইকোসিস বা ব্ল্যাক ফাংগাস হতে পারে?

ডঃ ভি.কে. পলের মতে, 'রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা হ্রাস, রক্তে উচ্চ শর্করার মাত্রা ইত্যাদি থাকলে মিউকরমাইকোসিসের সম্ভাবনা থেকেই যাচ্ছে। তাই এক কথায় করোনা সংক্রমণ হয়নি যাঁদের তাঁদেরও এটি হতে পারে।'

করোনা পরিস্থিতিতে উপরি চোথ রাঙানি ব্ল্যাক ফাংগাস সংক্রমণ মিউকরমাইকোসিস-এর। তবে, বিশেষজ্ঞ চিকিত্সকরা জানিয়েছেন, মিউকরমাইকোসিস নতুন কিছু নয়। আগেও ছিল। বর্তমানে করোনা আক্রান্ত রোগীদের মধ্যে বেশি হচ্ছে। ফলে, অনেক বেশি মানুষ এ বিষয়ে জেনেছেন। তবে কি কারও করোনা সংক্রমণ না হলেও মিউকরমাইকোসিস হতে পারে?

নীতি আয়োগের স্বাস্থ্য বিষয়ক অধিকর্তা ডঃ ভি.কে. পল জানান, ডায়াবেটিস রোগীদের গুরুতর করোনা সংক্রমণ হলে স্টেরয়েড প্রয়োগ করে চিকিত্সা হচ্ছে। এই স্টেরয়েডের প্রভাবেই আরও বেড়ে যাচ্ছে রক্তে শর্করার(Blood Sugar) মাত্রা। রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতাও দূর্বল। এই পরিস্থিতেই আক্রমণ হানছে ব্ল্যাক ফাংগাস।

ডঃ ভি.কে. পলের মতে, 'রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা হ্রাস, রক্তে উচ্চ শর্করার মাত্রা ইত্যাদি থাকলে মিউকরমাইকোসিসের সম্ভাবনা থেকেই যাচ্ছে। তাই এক কথায় করোনা সংক্রমণ হয়নি যাঁদের তাঁদেরও এটি হতে পারে।'

মিউকর নামে এক ছত্রাকের প্রভাবে এই রোগ হয়। সাধারণত আর্দ্র স্থানে এটি হয়। ভারতের মতো আর্দ্র দেশে এটি অনেক স্থানেই থাকে। সাধারণত শ্বাসের সময়ে বা শরীরে কাটা অংশের মাধ্যমে এটি দেহে প্রবেশ করে। কিন্তু সাধারণত আমাদের দেহের রোগ প্রতিরোধ শক্তি এর বিরুদ্ধে সুরক্ষা প্রদান করে।

চিকিত্সকরা এটাও জানিয়েছেন যে এটি নিয়ে অযথা আতঙ্কিত হওয়ার কিছু নেই। সুস্থ ব্যক্তিদের ক্ষেত্রে এই সংক্রমণের সম্ভাবনা নেই বললেই চলে।

বিশেষজ্ঞ চিকিত্সক অম্বরীশ মিথলের কথায়, 'একদিকে রক্তে উচ্চ শর্করা। অন্যদিকে অক্সিজেনের মাত্রা কম, রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা হ্রাস। ফলে, সবমিলিয়ে এটি ব্ল্যাক ফাংগাস সংক্রমণের সবকটি শর্তই পূরণ করে।' সিংহভাগ ক্ষেত্রেই দেখা যাচ্ছে মূলত ডায়াবেটিসের রোগী যাঁরা করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন, তাঁদেরই ব্ল্যাক ফাংগাসের সংক্রমণ হয়েছে।

ফলে, অনিয়ন্ত্রিত ডায়াবেটিস রোগীদের ক্ষেত্রেই এই সময়ে ভয় সবচেয়ে বেশি।

কিন্তু এর সুরাহা কী হতে পারে?

চিকিত্সকদের মতে, এর বিরুদ্ধে প্রথম পদক্ষেপ হল ব্লাড সুগার নিয়ন্ত্রণে রাখা। যাঁদের ডায়াবেটিস রয়েছে, নিয়মিত ওষুধ খেতে হবে। মেনে চলতে হবে সঠিক ডায়েট। সেই সঙ্গে জোর দিতে হবে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধিতেও।

বন্ধ করুন