বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > Court on Source of Journalists: তদন্তে 'সূত্র' এর খোঁজ জানানোর থেকে ছাড় নেই সাংবাদিকদের, সিবিআই কোর্ট যা জানাল

Court on Source of Journalists: তদন্তে 'সূত্র' এর খোঁজ জানানোর থেকে ছাড় নেই সাংবাদিকদের, সিবিআই কোর্ট যা জানাল

সাংবাদিকদের তাঁদের সূত্র ঘোষণা নিয়ে বড় রায় দিল বিশেষ সিবিআই কোর্ট।

সিবিআই জানিয়েছে, বেশ কয়েকটি বিষয়ে তথ্য কিছু মিডিয়া হাউসের কাছে চেয়েছে সিবিআই। তবে সেই নথি তারা হাতে পায়নি মিডিয়া হাউসগুলির থেকে বলেও জানানো হয়। এদিকে কোর্ট বলেছে, ওই মামলায় সিবিআইয়ের পেশ করা ওই ক্লোজার রিপোর্টকে গ্রহণ করা হবে না।

দিল্লিতে সিবিআইয়ের স্পেশ্যাল কোর্টে একটি ‘ক্লোজার রিপোর্ট’কে নস্যাৎ করে জানানো হয়েছে যে, কোনও মতেই কোনও সাংবাদিককে তাঁর গোপন 'সূত্র'এর সম্পর্কে তথ্য তদন্তকারী এজেন্সির কাছে জানানোর থেকে ছাড় দেওয়া হয়নি। সেখানে ‘ক্লোজার রিপোর্ট’কে নস্যাৎ করে ঘটনায় পরবর্তী তদন্তে এগিয়ে যাওয়ার কথা বলা হয়েছে।

আদালতের তরফে জানানো হয়েছে, তদন্তের স্বার্থে প্রয়োজন হলে তদন্তকারী সংস্থা সংশ্লিষ্ট সাংবাদিকের কাছে তাঁর 'সূত্র' এর খোঁজ চাইতে পারে। যদি সেই সূত্র তদন্তকারী সংস্থার কাছে গুরুত্বপূর্ণ হয়, তাহলে তা জানতে চাইতে পারে তদন্তকারী দল। কোর্ট জানিয়েছে, তদন্তকারী সংস্থাগুলির প্রতি সম্পূর্ণ সমর্থন রয়েছে ইন্ডিয়ান পেনাল কোড ও কোড অফ ক্রিমিনাল প্রসিডিওরের। সেই বিধি অনুযায়ী যেকোনও ব্যক্তিকে তদন্তের স্বার্থে তদন্তে যোগ দিতে বলতে পারে ওই তদন্তকারী সংস্থা। উল্লেখ্য, নথির কারচুপি সংক্রান্ত এক মামলায় মুখ্য মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট এই মামলায় তাঁর পর্যবেক্ষণে এই কথা জানিয়েছেন। আর সেই রায় দেওয়ার সময়ই এই বার্তা দিয়েছে কোর্ট। কোর্ট জানিয়েছে, যে সমস্ত সাংবাদিকরা জাল কার নথির তথ্য পাবলিশ করে বা সম্প্রচারিত করেছেন, আর তাঁদের সূত্রের খোঁজ দিতে চাইছেন না সেক্ষেত্রে তদন্ত সম্পূর্ণরূপে শেষ হবে না। এক্ষেত্রে ২০০৯ সালে সালের ৯ ফেব্রুয়ারি মুলায়াম সিং যাদব ও তাঁর পরিবারের হিসাব বহির্ভূত সম্পত্তি নিয়ে এক সিবিআই মামলায় কিছু সংবাদমাধ্যম ও টিভি চ্যানেল বেশ কিছু তথ্য সম্প্রচার করেছে। যা সুপ্রিম কোর্টে শুনানির আগে হয়েছিল সম্প্রচারিত। সেই ক্ষেত্রটি নিয়েও কোর্ট দিয়েছে রায়। সিবিআইয়ের অভিযোগ, সেই মামলায় কোনও ভুয়ো তথ্য ও নথি বানিয়ে কেউ সিবিআইয়ের ভাবমূর্তি নিচে নামানোর চেষ্টা করেছে। সেই ঘটনায় সিবিআই ‘ক্লোজার রিপোর্ট’ পেশ করে তদন্তের পর। 

সিবিআই জানিয়েছে, বেশ কয়েকটি বিষয়ে তথ্য কিছু মিডিয়া হাউসের কাছে চেয়েছে সিবিআই। তবে সেই নথি তারা হাতে পায়নি মিডিয়া হাউসগুলির থেকে বলেও জানানো হয়। এদিকে কোর্ট বলেছে, সিবিআইয়ের পেশ করা ওই ক্লোজার রিপোর্টকে গ্রহণ করা হবে না। কোর্ট তার পর্যবেক্ষণে দেখেছে যে সঠিক যুক্তিযুক্ত পদ্ধতিতে এই তদন্ত হয়নি, ফলে তদন্তকারী সংস্থাকে কোর্ট জানিয়েছে, যাতে মামলায় সংশ্লিষ্ট সাংবাদিকদেরও জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। কোর্ট বলছে, সাংবাদিকদের সংশ্লিষ্ট  সূত্রের সম্পর্কে আরও বাড়তি তদন্ত প্রয়োজন। ফলে সেটি সম্পন্ন হলে তারপর তদন্ত যুক্তিযুক্ত দিকে এগোতে পারবে। এমনই বার্তা দিয়েছে কোর্ট।

এই খবরটি আপনি পড়তে পারেন HT App থেকেও। এবার HT App বাংলায়। HT App ডাউনলোড করার লিঙ্ক https://htipad.onelink.me/277p/p7me4aup

 

 

 

 

 

বন্ধ করুন