বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > বিমানবন্দরে রাশিয়ার এই ব্যক্তি নামতেই তুলে নিয়ে গেল CBI, কোন তদন্তে চলছে জিজ্ঞাসাবাদ?

বিমানবন্দরে রাশিয়ার এই ব্যক্তি নামতেই তুলে নিয়ে গেল CBI, কোন তদন্তে চলছে জিজ্ঞাসাবাদ?

সিবিআইয়ের জালে রাশিয়ার নাগরিক।  (HT_PRINT)

ইন্দিরা গান্ধী আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে ব্যুরো অফ ইমিগ্রেশন থেকে তুলে নিয়ে যাওয়া হয় মিখাইলকে। জানা গিয়েছে দিল্লিতে সে আসছিল কাজাখস্তান থেকে। সিবিআই বলছে, বিভিন্ন তথ্যের ভিত্তিতে জানা গিয়েছে, যে বেশ কয়েকটি পরীক্ষায় প্রযুক্তিগত দিক থেকে বিদেশী নাগরিকদের হাত রয়েছে। সেরকমই একটি পরীক্ষা ২০২১ সালের জয়েন্টের মেইনস।

দিল্লির ইন্দিরা গান্ধী আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে রাশিয়ার নাগরিক মিখাইল শরজিন নামতেই তাকে তুলে নিয়ে যায় সিবিআই। জাতীয় তদন্তকারী এই সংস্থার নজরে বহুদিনই ছিল মিখাইল। অভিযোগ ২০২১ সালের জয়েন্ট এন্ট্রান্স পরীক্ষায় আইলিওন সফ্টওয়্যারে কারচুপি ঘিরে অভিযোগ ছিল মিখাইলের বিরুদ্ধে।

ইন্দিরা গান্ধী আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে ব্যুরো অফ ইমিগ্রেশন থেকে তুলে নিয়ে যাওয়া হয় মিখাইলকে। জানা গিয়েছে দিল্লিতে সে আসছিল কাজাখস্তান থেকে। সিবিআই বলছে, বিভিন্ন তথ্যের ভিত্তিতে জানা গিয়েছে, যে বেশ কয়েকটি পরীক্ষায় প্রযুক্তিগত দিক থেকে বিদেশী নাগরিকদের হাত রয়েছে। সেরকমই একটি পরীক্ষা ২০২১ সালের জয়েন্টের মেইনস। সেখানে একটি প্রযুক্তিকে কারচুপি করার জন্য নাম উঠে এসেছে মিখাইলের। পরীক্ষা চলাকালীন পরীক্ষার্থীদের কউকে কাউকে প্রযুক্তি হ্যাক করে দুর্নীতি করায় মিখাইল সাহায্য করেছিল বলে অভিযোগ। আর সেই অভিযোগের ভিত্তিতেই সিবিআই তদন্তে নেমেছে।

মিখাইলের জন্য ইতিমধ্যেই একটি লুক আউট নোটিস জারি হয়েছে।তদন্তকারী সংস্থা বলছে, ওই ব্যক্তিই মূল হোথা এই সমস্ত পরীক্ষায় কারচুপির নেপথ্যে। এর আগে জয়েন্টে কারচুপি ইস্যুতে অ্যাফিনিটি এডুকেশন প্রাইভেট লিমিটেডের কয়েকজনকে গ্রেফতার করেছে তদন্তকারী দল। সংস্থার তিন ডিরেক্টরকেও গ্রেফতার করা হয়েছে। জানা যাচ্ছে, ওই কারচুপির ঘটনায় তিনজন ডিরেক্টর নিয়োজিত ছিলেন। জানা যাচ্ছে, তারা প্রত্যন্ত কোনও জায়গা থেকে বসে পরীক্ষার্থীদের হয়ে পরীক্ষার মধ্যে উত্তরপত্র তৈরি করে দিত অভিযুক্তরা। আর তেমনই একটি পরীক্ষাকেন্দ্র হল সোনেপত। এই গোটা দুর্নীতি ঘিরে এদিন মিখাইলের গ্রেফতারি হয়।

বন্ধ করুন