বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > CBI Raid on Karti Chidambaram: চিনা নাগরিকের থেকে টাকা নেওয়ার অভিযোগ, কার্তি চিদম্বরমের সম্পত্তিতে হানা CBI-এর
কংগ্রেস সাংসদ কার্তি চিদম্বরম  (PTI)

CBI Raid on Karti Chidambaram: চিনা নাগরিকের থেকে টাকা নেওয়ার অভিযোগ, কার্তি চিদম্বরমের সম্পত্তিতে হানা CBI-এর

  • CBI Raid on Karti Chidambaram: পঞ্জাবের একটি প্রকল্পের কাজ করার জন্য কিছু চিনা নাগরিকের ভিসা সহজতর করার জন্য ৫০ লাখ ইয়েন নিয়েছিলেন অবৈধ ভাবে। এমনই অভিযোগ চিদম্বরম জুনিয়রের বিরুদ্ধে। সেই অভিযোগের প্রেক্ষিতেই এই তল্লাশি অভিযান চালানো হচ্ছে বলে জানা গিয়েছে।

পি চিদম্বরমের পুত্র কার্তি চিদম্বরমের নামে থাকা একাধিক সম্পত্তিতে সিবিআই হানা দিল আজ সকাল সকাল। চিনা নাগরিকের সঙ্গে লেনদেনের প্রেক্ষিতে এই অভিযান চলছে বলে জানা গিয়েছে। এর আগে এয়ারসেল-ম্যাক্সিস কাণ্ডে দুর্নীতি এবং অর্থপাচার মামলায় প্রাক্তন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী পি চিদম্বরম ও তাঁর ছেলে কার্তি চিদম্বরমের নাম জড়িয়েছিল। কেন্দ্রীয় সংস্থার জেরার মুখে পড়তে হয়েছে কংগ্রেসের এই নেতাদের। পি চিদম্বরমকে হাজতবাসও করতে হয়েছে এর জন্য। এই মামলায় গ্রেফতার হয়েছিলেন কার্তিও। 

পঞ্জাবের একটি প্রকল্পের কাজ করার জন্য কিছু চিনা নাগরিকের ভিসা সহজতর করার জন্য ৫০ লাখ ইয়েন নিয়েছিলেন অবৈধ ভাবে। এমনই অভিযোগ চিদম্বরম জুনিয়রের বিরুদ্ধে। সেই অভিযোগের প্রেক্ষিতেই এই তল্লাশি অভিযান চালানো হচ্ছে বলে জানা গিয়েছে। জানা গিয়েছে, মুম্বই, চেন্নাই, ওড়িশা, পঞ্জাব এবং কর্ণাটকের মোট নয়টি জায়গায় তল্লাশি চালানো হচ্ছে।

উল্লেখ্য, এর আগে এয়ারসেল-ম্যাক্সিস চুক্তিতে বিদেশী বিনিয়োগ প্রচার বোর্ডের (এফআইপিবি) অনুমোদন দেওয়ার ক্ষেত্রে অনিয়মের অভিযোগ উঠেছিল। এই মামলাটির তদন্তের দায়িত্বে আছে সিবিআই এবং ইডি। ২০০৬ সালে যখন চিদম্বরম কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী ছিলেন তখন এফআইপিবির অনুমোদন দেওয়া হয়েছিল এয়ারসেল-ম্যাক্সিস চুক্তির ক্ষেত্রে। উল্লেখ্য, এই মামলায় দুর্নীতির অভিযোগে ২০১৯ সালের ৫ সেপ্টেম্বর চিদম্বরমকে গ্রেফতার করা হয়েছিল। ১০৫ দিন জেলে কাটানোর পর জামিন পান তিনি। তাঁর ছেলে কার্তি চিদম্বরমকেও আগে গ্রেফতার করা হয়েছিল। বর্তমানে তিনিও জামিনে আছেন।

বন্ধ করুন