বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > Central Home ministry: রাজ্যভাগের বিষয়টি নির্ভর করে বিধানসভার ওপর, জানাল কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক

Central Home ministry: রাজ্যভাগের বিষয়টি নির্ভর করে বিধানসভার ওপর, জানাল কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক

অমিত শাহ (টুইটার)

শুধু পশ্চিমবঙ্গ নয়, সারা দেশ থেকে রাজ্য ভাগের বহু আবেদন জমা পড়েছে কেন্দ্রের কাছে। গ্রেটার কোচবিহার পিপলস অ্যাসোসিয়েশনের নেতা অনন্ত রায় (মহারাজ) কোচবিহারকে কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল করার দাবি জানিয়েছিলেন।

রাজ্যভাগ নিয়ে বিতর্কের মধ্যে নিজের অবস্থান স্পষ্ট করল কেন্দ্র। রাজ্য বিধানসভায় প্রস্তাব পাশ না হওয়া পর্যন্ত রাজ্য ভাগের বিষয়ে কেন্দ্রের কিছু করার থাকে না। একথা স্পষ্ট জানিয়ে দিল কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক। বিজেপি নেতাদের মুখে বারবার শোনা গিয়েছে উত্তরবঙ্গকে আলাদা রাজ্য করার দাবি। সম্প্রতি সুকান্ত জানিয়েছিলেন রাজ্যভাগ নিয়ে এখনও উপর মহল থেকে কোনও নির্দেশ আসেনি। সেই মুহূর্তে অমিত শাহের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের বক্তব্যকে তাৎপর্যপূর্ণ বলে মনে করা হচ্ছে।

তবে শুধু পশ্চিমবঙ্গ নয়, সারা দেশ থেকে রাজ্য ভাগের বহু আবেদন জমা পড়েছে কেন্দ্রের কাছে। গ্রেটার কোচবিহার পিপলস অ্যাসোসিয়েশনের নেতা অনন্ত রায় (মহারাজ) কোচবিহারকে কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল করার দাবি জানিয়েছিলেন। তিনি দাবি করেছিলেন, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী এবং স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ তাকে এ বিষয়ে আশ্বস্ত করেছেন। তবে বিজেপি ছোট রাজ্যের পক্ষে হলেও রাজ্য ভাগের প্রশ্নে বৃহত্তর মানুষ কী চাইছে তা দেখে পদক্ষেপ করতে চাইছে দল। যদিও স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক রাজ্য ভাগের বিষয়টি খোলাসা করার পর অনন্ত রায় মহারাজের প্রতিক্রিয়া এখনও মেলেনি। তবে তিনি প্রতিক্রিয়া দেন সেই দিকে তাকিয়ে আছেন বিজেপি নেতৃত্ব।

কামতাপুরি ভাষাকে অষ্টম তফসিলের আওতায় স্বীকৃত ভাষার মর্যাদা দেওয়া এবং কামতাপুর রাজ্য গঠনের দাবি জানিয়ে কামতাপুর প্রগ্রেসিভ পার্টি কেন্দ্রকে চিঠি পাঠিয়েছে। তবে কেন্দ্রের বক্তব্য অনুযায়ী, সংশ্লিষ্ট প্রস্তাব রাজ্যের বিধানসভা থেকে পাশ হওয়ার পর কেন্দ্রের কাছে গেলেই সে বিষয়টিতে গতি আসে। এদিকে, তৃণমূল নেতৃত্ব বরাবরই রাজ্য ভাগের বিরোধী। ফলে তৃণমূলের জমানায় রাজ্য ভাগের প্রস্তাব বিধানসভায় পাশ হওয়ার সম্ভাবনাও কম। যদিও সুকান্ত মজুমদার পাল্টা রাজ্য সরকারকে রাজ্য ভাগ বিতর্ক নিয়ে অভিযোগ করেছেন।

বন্ধ করুন