বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > কৃষি আইন প্রত্যাহার করতে হবে ২ অক্টোবরের মধ্যে, সময়সীমা বেঁধে দিল কৃষক সংগঠন
গাজিপুর সীমান্তে কৃষকরা। (ছবি সৌজন্য ব্লুমবার্গ)
গাজিপুর সীমান্তে কৃষকরা। (ছবি সৌজন্য ব্লুমবার্গ)

কৃষি আইন প্রত্যাহার করতে হবে ২ অক্টোবরের মধ্যে, সময়সীমা বেঁধে দিল কৃষক সংগঠন

  • আধিকারিকরা জানিয়েছেন, দিল্লির তিন সীমান্ত - সিংঘু, গাজিপুর এবং তিকরি সীমান্তে শনিবার রাত পর্যন্ত ইন্টারনেট পরিষেবা বন্ধের নির্দেশ দিয়েছে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক।

‘চাক্কা জ্যাম’-এর দিনই কেন্দ্রকে কৃষি আইন প্রত্যাহারের সময়সীমা বেঁধে দিলেন কৃষক নেতারা। কৃষক সংগঠনের তরফে জানানো হল, আগামী ২ অক্টোবরের মধ্যে কেন্দ্রকে নয়া তিনটি কৃষি আইন প্রত্যাহার করতে হবে। সেই দাবিপূরণ না হলে পরবর্তী রূপরেখা ঠিক করা হবে।

ভারতীয় কিষান ইউনিয়নের (বিকেইউ) মুখপাত্র রাকেশ তিকাইতকে উদ্ধৃত করে সংবাদসংস্থা এএনআই বলেছে, ‘আইন প্রত্যাহারের জন্য (কেন্দ্রীয়) সরকারকে ২ অক্টোবর পর্যন্ত সময় দিচ্ছি। তারপর আমরা পরবর্তী পরিকল্পনা করব। চাপের মুখে আমরা সরকারের সঙ্গে আলোচনায় বসব না।’ তাৎপর্যপূর্ণভাবে সেদিনই ‘জাতির জনক’ মহাত্মা গান্ধীর জন্মজয়ন্তী।

সেই সময়সীমা বেঁধে দিলেও প্রতিবাদ যে চলবে, তা পরিষ্কার করে দিয়েছে কৃষক সংগঠনগুলি। আজ (শনিবার) দেশের বিভিন্ন প্রান্তে ‘চাক্কা জ্যাম’ করেন কৃষকরা। হরিয়ানা এবং পঞ্জাবের হরিয়ানা এবং পঞ্জাবের একাধিক রাস্তায় বেলা ১২ টা থেকে দুপুর তিনটে পর্যন্ত ট্র্যাক্টর-ট্রেলার রেখে দেন কৃষকরা। সঙ্গে 'জয় জওয়ান, জয় কিষান', 'কিষান একতা জিন্দাবাদ' স্লোগান তোলা হয়। একাধিক টোল প্লাজার কাছে বিক্ষোভ চলতে থাকে। পঞ্জাবের সাংগ্রুপর এবং লুধিয়ানা-সহ দু'রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্তে মহিলারাও বিক্ষোভ সামিল হন। তার জেরে যানজট তৈরি হলেও বিক্ষোভরত কৃষকদের দাবি, ‘চাক্কা জ্যাম’-এর অ্যাম্বুলেন্স এবং স্কুলের বাসগুলিকে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে। তাছাড়াও হরিয়ানা-রাজস্থানের শাহজানপুরের সীমান্ত, বেঙ্গালুরু, জম্মু ও কাশ্মীর, তেলাঙ্গানাতেও ঘণ্টা তিনেকের ‘চাক্কা জ্যাম’ কর্মসূচি পালন করা হয়। 

দিল্লি, উত্তরপ্রদেশ এবং উত্তরাখণ্ড সেই কর্মসূচি পালন করা হয়নি। তবে বিক্ষোভের আশঙ্কায় দিল্লির বিভিন্ন সীমান্তে কড়া নিরাপত্তার বন্দোবস্ত করা হয়েছিল। দিল্লি-উত্তরপ্রদেশের গাজিপুর সীমান্তে ব্যারিকেড তৈরি করা হয়। সঙ্গে প্রায় ৫০,০০০ দিল্লি পুলিশ, আধা-সামরিক বাহিনী, রিজার্ভ ফোর্স, র‍্যাফ মোতায়েন করা হয়। দিল্লির কয়েক জায়গায় বিক্ষিপ্ত বিক্ষোভ দেখানোর চেষ্টা করা হয়। যদিও পুলিশ দ্রুত ঘটনাস্থলে গিয়ে বিক্ষোভকারীদের সরিয়ে দেয়। বিক্ষোভের আশঙ্কায় দিল্লির ১০ টি মেট্রো স্টেশনে ঢোকা এবং বেরনোর পথেও বন্ধ করে দেওয়া হয়।

তারইমধ্যে আধিকারিকরা জানিয়েছেন, দিল্লির তিন সীমান্ত - সিংঘু, গাজিপুর এবং তিকরি সীমান্তে শনিবার রাত পর্যন্ত ইন্টারনেট পরিষেবা বন্ধের নির্দেশ দিয়েছে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক। যেখানে প্রায় তিন মাস ধরে বিক্ষোভ দেখাচ্ছেন কৃষকরা। ‘চাক্কা জ্যাম’-এর কারণেই ইন্টারনেট পরিষেবা বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বলে সংবাদসংস্থা পিটিআইকে জানিয়েছেন এক আধিকারিক। সেই তিন সীমান্তের পার্শ্বর্বর্তী এলাকাগুলিতেও রাত ১১ টা ৫৯ মিনিট পর্যন্ত ইন্টারনেট পরিষেবা বন্ধ থাকবে।

বন্ধ করুন