বাড়ি > ঘরে বাইরে > অনুমোদিত CSR কাজে অন্তর্ভুক্ত PM-Cares ফান্ড, ব্রাত্য মুখ্যমন্ত্রী ত্রাণ তহবিল
ফাইল ছবি (PTI)
ফাইল ছবি (PTI)

অনুমোদিত CSR কাজে অন্তর্ভুক্ত PM-Cares ফান্ড, ব্রাত্য মুখ্যমন্ত্রী ত্রাণ তহবিল

পশ্চিমবঙ্গ-সহ কয়েকটি রাজ্যের দাবি অগ্রাহ্য করে মুখ্যমন্ত্রী ত্রাণ তহবিলকে অনুমোদিত সিএসআর কর্মসূচির তালিকায় যুক্ত করা হয়নি।

এতদিন শুধু সরকারি সিলমোহর পড়েনি। এবার সেই কাজও পূরণ হল। 'কর্পোরেট সোশ্যাল রেসপনসিবিলিটি' (সিএসআর) পূরণের জন্য বিভিন্ন সংস্থার বাধ্যতামূলক কর্মসূচির যে তালিকা রয়েছে, তাতে জুড়ল পিএম কেয়ার্স ফান্ডও।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে দুই সরকারি আধিকারিক জানিয়েছেন, আনুষ্ঠানিকভাবে মঙ্গলবার ২০১৩ সালে কোম্পানিস অ্যাক্টের সাত নম্বর শিডিউলে পিএম কেয়ার্স ফান্ডকে অন্তর্ভুক্ত করার বিজ্ঞপ্তি জারি হয়েছে। একইসঙ্গে প্রদানমন্ত্রী জাতীয় ত্রাণ তহবিলকেও সেই শিডিউলে যুক্ত করা হয়েছে। বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, ‘বিজ্ঞপ্তিটি ২০২০ সালের ২৮ মার্চ থেকে বলবৎ হয়েছে বলে ধরা হবে।’

তবে পশ্চিমবঙ্গ-সহ কয়েকটি রাজ্যের দাবি অগ্রাহ্য করে মুখ্যমন্ত্রী ত্রাণ তহবিলকে অনুমোদিত সিএসআর কর্মসূচির তালিকায় যুক্ত করা হয়নি বলে জানিয়েছেন এক আধিকারিক। কী কারণে রাজ্যগুলির দাবি খারিজ করে দেওয়া হয়েছে, সেই ব্যাখ্যাও দেন তিনি। বলেন, 'এটা করা হয়েছে কারণ তাহলে সিএসআর তহবিলের বেশিরভাগটারই ব্যবহার ৬-৭ টি শিল্পনির্ভর রাজ্যে সীমাবদ্ধ থাকবে, যেখানে অধিকাংশ সংস্থাগুলি অবস্থিত।'

ওই আধিকারিকের দাবি, অতীতে সিএসআর তহবিলের ক্ষেত্রে অনিয়মের চেষ্টার ছবিও ধরা পড়েছে। তাঁর কথায়, ‘অতীতের  এরকম ঘটনা ঘটনা ঘটেছে যে নিজেদের এলাকায় অবস্থিত সংস্থাগুলিকে পুরো সিএসআর অর্থ স্থানীয়ভাবে খরচে বাধ্য করার চেষ্টা করেছেন উত্তর এবং দক্ষিণ ভারতের একটি করে রাজ্য। সারা দেশে সিএসআর তহবিলের সমবণ্টনের এরকম প্রবণতায় লাগাম টানা প্রয়োজন।’ তবে কোন দুটি রাজ্য সেই চেষ্টা করেছিল, তা অবশ্য খোলসা করে বলেননি ওই আধিকারিক।

বন্ধ করুন