প্রতীকি ছবি (PTI)
প্রতীকি ছবি (PTI)

দেশজুড়ে জাতীয় সড়কে স্পিড ব্রেকার তুলে দিতে চলেছে কেন্দ্র

গত ১ জানুয়ারি থেকে দেশজুড়ে বাধ্যতামূলক হয়েছে ফাসট্যাগ। এর ফলে টোল প্লাজাগুলিতে স্বয়ংক্রিয় ভাবে লেনদেন হচ্ছে টোল। গাড়ি দাঁড়া করানোর প্রয়োজন পড়ছে না আর।

ফাসট্যাগ চালুর পর দেশজুড়ে সমস্ত জাতীয় সড়ক থেকে স্পিড ব্রেকার বা বাম্পার তুলে দেওয়ার প্রক্রিয়া শুরু করল কেন্দ্রীয় সরকার। কেন্দ্রের দাবি, স্পিড ব্রেকারের ফলে পথে সময় নষ্ট হয়। নষ্ট হয় জ্বালানি। ক্ষতি হয় গাড়ির।

কেন্দ্রীয় সড়ক পরিবহন মন্ত্রকের তরফে জানানো হয়েছে। দেশে ফাস্টট্যাগ চালুর পর থেকে টোল প্লাজায় স্পিড ব্রেকারের আর কোনও দরকার নেই। অহেতুক এই স্পিড ব্রেকারগুলি যাতায়াতে বাধার সৃষ্টি করছে।

গত ১ জানুয়ারি থেকে দেশজুড়ে বাধ্যতামূলক হয়েছে ফাসট্যাগ। এর ফলে টোল প্লাজাগুলিতে স্বয়ংক্রিয় ভাবে লেনদেন হচ্ছে টোল। গাড়ি দাঁড়া করানোর প্রয়োজন পড়ছে না আর। ফাস্টট্যাগ চালু হওয়ায় জাতীয় সড়কে গাড়ির গতি আরও বাড়বে বলে আশা কেন্দ্রীয় সরকারের।



কেন্দ্রের তরফে জানানো হয়েছে, টোল লেনদেনের জন্য গাড়ির গতি কমাতে এতদিন স্পিড ব্রেকারগুলি প্রয়োজনীয় ছিল। কিন্তু এর ফলে একদিকে যেমন সড়কে যানজট বাড়ে, তেমনই যাত্রীদের জন্যও অস্বান্দকর এই স্পিড ব্রেকার। তাছাড়া স্পিড ব্রেকারের ফলে ক্ষতি হয় গাড়ির কলকবজার।

প্রতিদিন দেশের টোলপ্লাজাগুলি দিয়ে যাতায়াত করে প্রায় ৬০ লক্ষ গাড়ি।

বন্ধ করুন