বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > ১০০ দিনের করোনা ডিউটি পূরণে স্বাস্থ্যকর্মীদের সরকারি চাকরিতে অগ্রাধিকার
১০০ দিনের করোনা ডিউটি পূরণে স্বাস্থ্যকর্মীদের সরকারি চাকরিতে অগ্রাধিকার। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য পিটিআই)
১০০ দিনের করোনা ডিউটি পূরণে স্বাস্থ্যকর্মীদের সরকারি চাকরিতে অগ্রাধিকার। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য পিটিআই)

১০০ দিনের করোনা ডিউটি পূরণে স্বাস্থ্যকর্মীদের সরকারি চাকরিতে অগ্রাধিকার

  • তাঁদের প্রধানমন্ত্রীর 'কোভিড ন্যাশনাল সার্ভিস সম্মান'-এ ভূষিত করাও হবে বলে জানানো হয়েছে।

করোনাভাইরাস মোকাবিলায় স্বাস্থ্যকর্মীরা ১০০ দিনের ডিউটি পূরণ করলে সরকারি পরীক্ষায় মিলবে অগ্রাধিকার। এমনটাই জানাল কেন্দ্র। সেইসঙ্গে শিক্ষকদের তত্ত্বাবধানে চূড়ান্ত বর্ষের (ফাইনাল ইয়ার) এমবিবিএস পড়ুয়ারাও মৃদু উপসর্গের করোনা রোগীদের পর্যবেক্ষণ করতে পারবেন।

দেশে করোনাভাইরাস সংক্রমণেরবাড়বাড়ন্তের মধ্যে সেই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। ইতিমধ্যে দেশে দৈনিক সংক্রমণ চার লাখের গণ্ডি ছাড়িয়েছে। সোমবার সেই সংখ্যাটা তিন লাখের ঘরে থাকলেও সংক্রমণে একেবারেই লাগাম পড়েনি। তার ফলে দেশের স্বাস্থ্য পরিকাঠামোর উপর প্রবল চাপ পড়ছে। সেই পরিস্থিতিতে সোমবার প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের তরফে জানানো হয়েছে, করোনাভাইরাস মোকাবিলায় আরও বেশি সংখ্যক স্বাস্থ্যকর্মীকে সামিল করার জন্য একাধিক গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্তে সায় দিয়েছেন নরেন্দ্র মোদী। কেন্দ্র জানিয়েছে, শিক্ষকদের তত্ত্বাবধানে চূড়ান্ত বর্ষের (ফাইনাল ইয়ার) এমবিবিএস পড়ুয়াদের টেলি-কনসালটেশন এবং মৃদু উপসর্গের করোনা রোগীদের পর্যবেক্ষণের কাজে লাগানো যেতে পারে। বি.এসসি বা জেনারেল নার্সিং অ্যান্ড মিডওয়াইফারির কোর্স করা নার্সদের করোনা সংক্রান্ত ডিউটি করতে হবে। তবে তা করতে হবে অভিজ্ঞ চিকিৎসক এবং নার্সদের পর্যবেক্ষণে। একইসঙ্গে শিক্ষকদের তত্ত্বাবধানে করোনা মোকাবিলায় মেডিক্যাল ইন্টার্নদেরও যোগ দিতে হবে বলে জানানো হয়েছে।

অন্যদিকে, করোনা মোকাবিলায় সামিল স্বাস্থ্যকর্মীদের উৎসাহ প্রদানের উদ্যোগও দেওয়া নিয়েছে কেন্দ্র। প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের তরফে জানানো হয়েছে, যে স্বাস্থ্যকর্মীরা ১০০ দিনের কোভিড সংক্রান্ত ডিউটি পূরণ করলে আগামিদিনে সরকারি পরীক্ষায় অগ্রাধিকার দেওয়া হবে। তাঁদের প্রধানমন্ত্রীর 'কোভিড ন্যাশনাল সার্ভিস সম্মান'-এ ভূষিত করাও হবে বলে জানানো হয়েছে।

বন্ধ করুন