বাড়ি > ঘরে বাইরে > সাধারণের পক্ষে ভালবযুক্ত এন-৯৫ মাস্ক ক্ষতিকারক, সতর্কতা কেন্দ্রের
সাধারণের জন্য ভালবযুক্ত এন-৯৫ মাস্ক ক্ষতিকারক (ছবি সৌজন্য এপি)
সাধারণের জন্য ভালবযুক্ত এন-৯৫ মাস্ক ক্ষতিকারক (ছবি সৌজন্য এপি)

সাধারণের পক্ষে ভালবযুক্ত এন-৯৫ মাস্ক ক্ষতিকারক, সতর্কতা কেন্দ্রের

  • সাধারণ মানুষের মধ্যে এন-৯৫ মাস্কের ‘অনুপযুক্ত ব্যবহার’ লক্ষ্য করা গিয়েছে। জানিয়েছে কেন্দ্র।

আমজনতা যেভাবে ভালবযুক্ত এন-৯৫ মাস্ক ব্যবহার করছেন, তা নিয়ে সতর্ক করল কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রক। রাজ্য এবং কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলগুলিকে চিঠি লিখে জানানো হল, সাধারণ মানুষের পক্ষে ভালবযুক্ত এন-৯৫ মাস্ক ক্ষতিকারক। বরং বাড়িতে তৈরি মাস্ক পরার পক্ষেই সওয়াল করেছে স্বাস্থ্য মন্ত্রক।

স্বাস্থ্য পরিষেবার ডিরেক্টর জেনারেল রাজীব গর্গের লেখা সেই চিঠিতে জানানো হয়, সাধারণ মানুষের মধ্যে এন-৯৫ মাস্কের ‘অনুপযুক্ত ব্যবহার’ লক্ষ্য করা গিয়েছে। বিশেষত ভালবযুক্ত এন-৯৫ মাস্কের ক্ষেত্রে সেই প্রবণতা আরও বেশি পরিলক্ষিত হয়েছে। স্বাস্থ্যকর্মী ছাড়া সাধারণ মানুষের জন্য বাড়িতে তৈরি মাস্কের সওয়াল করেছেন তিনি।

সেই চিঠিতে গর্গ বলেন, ‘আপনাদের জানাতে চাই যে করোনাভাইরাসের ছড়ানো রুখতে গৃহীত পদক্ষেপের পক্ষে ক্ষতিকারক  ভালবযুক্ত এন-৯৫ মাস্ক ব্যবহার। কারণ তা ভাইরাসকে মাস্কের বাইরে যাওয়া থেকে আটকায় না। সে কথা বিবেচনা করে আমি সবাইকে মুখাবরণী (মাস্ক) ব্যবহারের নির্দেশিকা মেনে চলা এবং এন-৯৫ মাস্কের অনুপযুক্ত ব্যবহার বন্ধ করার আর্জি জানাচ্ছি।’

উল্লেখ্য, বাড়িতে তৈরি মাস্ক বা মুখাবরণী নিয়ে গত এপ্রিলে একটি নির্দেশিকা জারি করেছিল স্বাস্থ্য মন্ত্রক। কীভাবে সেই মাস্ক তৈরি করতে হবে, ব্যবহার করতে হবে, সেই সংক্রান্ত বিস্তারিত তথ্য জানানো হয়েছিল। একইসঙ্গে প্রতিদিন মাস্ক পরিষ্কার এবং কেচে নেওয়ার উপর জোর দেওয়া হয়েছিল।

বন্ধ করুন