A deserted view of the International Arrival Zone at IGI Airport this evening at 8
A deserted view of the International Arrival Zone at IGI Airport this evening at 8

ট্রেন, বাসের পর বন্ধ হতে পারে অন্তর্দেশিয় বিমানও, ভাবছে কেন্দ্র

  • রবিবার থেকে আন্তর্জাতিক উড়ান অবতরণ নিষিদ্ধ হয়েছে ভারতে।

করোনা রুখতে দেশজুড়ে তৎপরতার মধ্যেই অন্তর্দেশিয় বিমানচলাচল বন্ধ করার ব্যাপারে ভাবনা চিন্তা শুরু করল কেন্দ্রীয় সরকার। রবিবার অসামরিক বিমানচলাচল মন্ত্রক সূত্রে এমনই খবর মিলেছে। করোনাভাইরাস সংক্রমণ রুখতে ইতিমধ্যে লকডাউন ঘোষণা করেছে দেশের একাধিক রাজ্য। সোমবার ভোর থেকে লকডাউন শুরু হচ্ছে রাজধানী দিল্লিতেও। এই পরিস্থিতিতে অন্তর্দেশিয় বিমান চালানো কতটা নিরাপদ তা ভেবে দেখছেন সরকারের পদস্থ কর্তারা।

করোনা রুখতে সোমবার থেকে ৩১ মার্চ পর্যন্ত দেশজুড়ে কোনও ট্রেন না-চালানোর মতো নজিরবিহীন সিদ্ধান্ত নিয়েছে রেল মন্ত্রক। সংক্রমণ রুখতে বন্ধ হয়েছে অন্তরাজ্য বাস পরিষেবা। সোমবার থেকে লকডাউন ঘোষণা করেছে অন্তত আধা ডজন রাজ্য, এই পরিস্থিতিতে বিমান চালানো উচিত কি না তা নিয়ে সরকারের আন্দরেই আলোচনা শুরু হয়েছে।

পরিসংখ্যান বলছে, প্রতি মাসে গোটা দেশে বিমানে চড়েন অন্তত ১.৩ কোটি মানুষ। ফলে বিমানযাত্রায় সংক্রমণের সম্ভাবনা খুবই প্রবল। বিদেশ থেকে আক্রান্তদের দেশে ঢোকা বন্ধ করতে রবিবার বিকেল ৫.৩০ মিনিটের পর বিদেশের মাটি থেকে ভারতের উদ্দেশে কোনও বিমান ওড়া নিষিদ্ধ করেছে সরকার। শুধুমাত্র যে বিদেশি বিমানগুলি তার আগে উড়েছে সেগুলিই অবতরণের অনুমতি পাবে। ভারতে এসে যে বিদেশি বিমানগুলি পৌঁছেছে সেগুলি গন্তব্যে রওনা হতে পারবে।

এই পরিস্থিতিতে ৩১ মার্চ পর্যন্ত সাময়িক ভাবে বন্ধ হতে পারে অন্তর্দেশিয় বিমানচলাচলও।



বন্ধ করুন