বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > Chandigarh University on 'Video Leak': ‘ছাত্রীদের স্নানের ভিডিয়ো...’, মুখ খুলল বিশ্ববিদ্যালয়, তদন্তের নির্দেশ ভগবন্তের
গতকাল রাতভর ছাত্রীরা বিক্ষোভ দেখান বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্যাম্পাসে। (PTI)

Chandigarh University on 'Video Leak': ‘ছাত্রীদের স্নানের ভিডিয়ো...’, মুখ খুলল বিশ্ববিদ্যালয়, তদন্তের নির্দেশ ভগবন্তের

  • গতকাল রাতভর ছাত্রীরা বিক্ষোভ দেখান বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্যাম্পাসে। তবে পুলিশ এবং বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ এখন দাবি করছেন যে ভিডিয়ো ছড়ানোর ঘটনা পুরোপুরি ভুয়ো।

চণ্ডীগড় বিশ্ববিদ্যালয়ের হোস্টেলের ছাত্রীদের স্নানের ভিডিয়ো ছড়িয়ে পড়েছে বলে অভিযোগ ওঠে। এই নিয়ে গতরাতে উত্তাল হয়ে ওঠে বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস। তবে বিশ্ববিদ্যালয়ের তরফে সাফ জানিয়ে দেওয়া হল, এই অভিযোগ পুরোপুরি ভুয়ো। চণ্ডীগড় বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রো-চ্যান্সেলর ডঃ আরএস বাওয়া এই বিষয়ে বলেন, ‘গুজব রটেছে যে ৭ জন মেয়ে আত্মহত্যা করেছেন। তবে সত্যটি হল যে কোনও মেয়েই আত্মহত্যা করার চেষ্টা করেননি৷ এই ঘটনায় কোনও মেয়েকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়নি।’ (আরও পড়ুন: এবার বাইকে করেই ওড়া যাবে! উড়ন্ত মোটরসাইকেলের দাম শুনলে চোখ উঠবে কপালে)

তিনি আরও বলেন, ‘বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাথমিক তদন্তের সময় কোনও ছাত্রীর এমন কোনও ভিডিয়ো পাওয়া যায়নি যা আপত্তিকর। শুধু একটি মেয়ের তোলা ব্যক্তিগত ভিডিয়ো ছাড়া কিছুই মেলেনি। সেই মেয়েটি ওই ভিডিয়ো নিজের প্রেমিককে পাঠিয়েয়েছিল। অন্য ছাত্রীদের আপত্তিকর ভিডিয়ো শুট করার সব গুজব সম্পূর্ণ মিথ্যা ও ভিত্তিহীন।’

আরও পড়ুন: ‘নিকনের ক্যামেরায় ক্যাননের কভার’,মোদীকে ট্রোল করতে ভুয়ো ছবি পোস্ট তৃণমূল সাংসদের

এদিকে ঘটনার প্রাথমিক তদন্তের পর মহালির পুলিশ সুপার বিবেক সোনি দাবি করেন, তারা এখনও কোনও ছাত্রীর স্নানের ভিডিয়ো পাননি। পাশাপাশি তাঁর আরও দাবি এই ঘটনার প্রেক্ষিতে কোনও ছাত্রীর আম্তহত্যার চেষ্টার ঘটনা রিপোর্ট করা হয়নি। সাংবাদিকদের এসপি বিবেক সোনি বলেন, ‘একজন ছাত্রী নাকি কিছু ভিডিয়ো শুট করে তা প্রচার করে দিয়েছে। এই বিষয়ে এফআইআর নথিভুক্ত করা হয়েছে এবং অভিযুক্তকে গ্রেফতার করা হয়েছে। এই ঘটনার সাথে যুক্ত কোনও মৃত্যুর খবর পাওয়া যায়নি। মেডিকেল রেকর্ড অনুযায়ী, কোনও আত্মহত্যার প্রচেষ্টা রিপোর্ট করা হয়নি।’ পুলিশ আধিকারিক আরও বলেন, ‘এখন পর্যন্ত আমাদের তদন্তে আমরা জানতে পেরেছি যে অভিযুক্তের নিজের একটি মাত্র ভিডিও রয়েছে সেই ফোনে। তিনি অন্য কারও ভিডিও রেকর্ড করেননি তাতে। ইলেকট্রনিক ডিভাইস এবং মোবাইল ফোন হেফাজতে নেওয়া হয়েছে এবং তা ফরেনসিক পরীক্ষার জন্য পাঠানো হবে।’

অপরদিকে পঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রী ভগবন্ত মান এই বিষয়ে মুখ খুলেছেন। তিনি একটি টুইট করে লেখেন, ‘চণ্ডীগড় বিশ্ববিদ্যালয়ের ঘটনা শুনে দুঃখিত। উচ্চ পর্যায়ের তদন্তের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। যারাই দোষী প্রমাণিত হবে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। আমি সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের সঙ্গে সর্বক্ষণ যোগাযোগ বজায় রেখেছি। আমি আপনাদের সবাইকে গুজবে কান না দেওয়ার জন্য অনুরোধ জানাচ্ছি।’

বন্ধ করুন