বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > ‘মূর্তি স্থাপনের উদ্যোগকে স্বাগত, কিন্তু নেতাজিকে সম্মান জানাতে হলে...’, মোদীকে বার্তা চন্দ্র বসুর

‘মূর্তি স্থাপনের উদ্যোগকে স্বাগত, কিন্তু নেতাজিকে সম্মান জানাতে হলে...’, মোদীকে বার্তা চন্দ্র বসুর

চন্দ্রকুমার বসু (ফাইল ছবি, সৌজন্য এএনআই)

প্রধানমন্ত্রী মোদী ঘোষণা করেছেন, যতদিন না নেতাজির মূর্তি তৈরি হবে, ততদিন উক্ত স্থানে থাকবে তাঁর এক হলোগ্রাম মূর্তি।

ট্যাবলো বিতর্কের মাঝেই নেতাজিকে সম্মান জানাতে ইন্ডিয়া গেটে তাঁর মূর্তি স্থাপনের ঘোষণা করেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। আর সেই উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়েও প্রধানমন্ত্রী তথা কেন্দ্রকে বিশেষ বার্তা দিলেন নেতাজি সুভাষ চন্দ্র বসুর নাতি তথা এককালে বিজেপিতে সক্রিয় থাকা চন্দ্র কুমার বসু। চন্দ্র বসুর বক্তব্য, নেতাজিকে সত্যিকার অর্থে সম্মান জানাতে হলে দেশের সব সম্প্রদায়কে একসঙ্গে নিয়ে চলতে হবে।

চন্দ্র বসু শুক্রবার নেতাজির মূর্তি নিয়ে বলেন, 'ইন্ডিয়া গেটে নেতাজি সুভাষ চন্দ্র বসুর মূর্তি স্থাপন করার যে উদ্যোগ কেন্দ্র নিয়েছে, আমরা তার প্রশংসা করি। কিন্তু আপনি যদি সত্যিই তাঁকে (নেতাজি সুভাষ চন্দ্র বসু) সম্মান জানাতে চান, তাহলে সকল সম্প্রদায়কে একত্রিত করে তাঁর অন্তর্ভুক্তিমূলক আদর্শকে বাস্তবায়ন করুন। এটা না করলে স্বাধীন ভারতের প্রতি প্রকৃত শ্রদ্ধা অসম্পূর্ণ থেকে যায়।' উল্লেখ্য, এর আগে দলে সক্রিয় থাকাকালীন সিএএ নিয়ে বারংবার দলকে অস্বস্তিতে ফেলেছিলেন চন্দ্র বসু। সেই চন্দ্র বসুই ডানপন্থী বিজেপিকে নেতাজির সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি পালনের বার্তা দিলেন এবার।

উল্লেখ্য, নেতাজি সুভাষ চন্দ্র বসুকে নিয়ে রাজনৈতিক রেষারেষি শুরু হয়েছে প্রায় দুই বছর থেকে। পশ্চিমবঙ্গের বিধানসভা নির্বাচনের আগে থেকে বাংলার আবেগকে ছুঁতে নেতাজিকে আপন করে নিতে চেয়েছে কেন্দ্রীয় সরকার থেকে রাজ্য সরকার। কখনও কেন্দ্র বিশিষ্ঠ বাঙালিদের কমিটি গঠন করে নেতাজির জন্মদিন পালনের পরিকল্পনা করেছে, কখনও রাজ্য তার পাল্টা পদক্ষেপ করেছে। ভিক্টোরিয়াতে নেতাজিকে নিয়ে বিশেষ অনুষ্ঠান হয়েছে, সেখানে আবার মমতাকে উদ্দেশ্য করে উঠেছে ‘জয় শ্রীরাম’ স্লেগান। অপরদিকে সাধারণতন্ত্র দিবস উপলক্ষে নেতাজির ট্যাবলো নিয়ে হয়েছে জোর তরজা। এই আবহে নেতাজির মূর্তি স্থাপনের ঘোষণা করে ট্যাবলো বিতর্কে জল ঢালতে তথা ফের একবার নেতাজিপ্রেমী বাঙালিদের মনে জায়গা করে নিতে চেয়েছেন প্রধানমন্ত্রী মোদী। প্রধানমন্ত্রী মোদী ঘোষণা করেছেন, যতদিন না নেতাজির মূর্তি তৈরি হবে, ততদিন উক্ত স্থানে থাকবে তাঁর এক হলোগ্রাম মূর্তি। সেই হলোগ্রাম মূর্তি উন্মোচিত হয়েছে ইতিমধ্যে। তবে নেতাজিকে নিয়ে রাজনৈতিক তরজা এখানেই শেষ বলে মনে করছেন না রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা। আর এহেন সময়ে চন্দ্র বসুর সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির এই বার্তা বেশ তাতপর্যপূর্ণ বলে মনে করা হচ্ছে।

বন্ধ করুন