বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > Chattisgarh: ১০০ ঘণ্টা পার, কুয়ো থেকে উদ্ধার হয়নি ১১ বছর বয়সী বালক! ছত্তিশগড় জুড়ে উদ্বেগের প্রহর
১০০ ঘণ্টা পার করেও চলছে ছত্তিশগড়ের ১১ বছরের বালকের খোঁজ।

Chattisgarh: ১০০ ঘণ্টা পার, কুয়ো থেকে উদ্ধার হয়নি ১১ বছর বয়সী বালক! ছত্তিশগড় জুড়ে উদ্বেগের প্রহর

  • ইতিমধ্যেই যাতে বালককে উদ্ধার করে সত্ত্বর বিলাসপুর হাসপাতালে ভর্তি করা যায়, তার জন্য আলাদা করে গ্রিন করিডর করে রেখেছে ছত্তিশগড় প্রশাসন। ৫০ টি অত্যাধুনিক যন্ত্র নিয়ে চলছে এই উদ্ধারকাজ। রয়েছে ড্রিলিং মেশিন, ট্রান্সপোর্টিং ট্রাক ও ট্র্যাক্টর।

রীতেশ মিশ্র

পার হয়ে গিয়েছে ১০০ ঘণ্টা। ছেলের মুখ দেখার আশায় গোটা পরিবার। খোঁজ চলছে এক ১১ বছরের ছেলের। ছত্তিশগড়ের জাঙ্গির-চম্পা এলাকার এক বালক কয়েকদিন আগে এক কুয়োয় পড়ে যায়। তারপর থেকে তার আর কোনও হদিশ নেই। বিশেষভাবে সক্ষম ওই ছেলেটিকে খুঁজে বের করা এখন প্রশাসনের কাছে সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ।

তবে এই খোঁদের অপারেশনের সঙ্গে জড়িত ব্যক্তিরা বলছেন, ১১ বছরের রাহুল সাহু যে নিঃশ্বাস নিচ্ছে তা বোঝা যাচ্ছে। তবে কুয়োর ভিতরে তার গতিবিধি স্পষ্ট করে বুঝতে পারছেন না প্রশাসনিক উদ্ধারকারীরা। ইতিমধ্যেই যাতে বালককে উদ্ধার করে সত্ত্বর বিলাসপুর হাসপাতালে ভর্তি করা যায়, তার জন্য আলাদা করে গ্রিন করিডর করে রেখেছে ছত্তিশগড় প্রশাসন। ৫০ টি অত্যাধুনিক যন্ত্র নিয়ে চলছে এই উদ্ধারকাজ। রয়েছে ড্রিলিং মেশিন, ট্রান্সপোর্টিং ট্রাক ও ট্র্যাক্টর।

উল্লেখ্য়, ছেলেটি যেখানে পড়েছিল সেই কুয়ো থেকে পাশে আরও একটি ৭০ ফুট গর্ত খোঁড়া হয়েছে। সেই গর্তের সঙ্গে ১৫ ফুটের একটি টানেল খুঁড়ে যোগ করে দেওয়া হচ্ছে। গত শুক্রবার বিকেল থেকে এই উদ্ধার কাজ শুরু হয়েছে। তবে ১০০ ঘণ্টা পার করে গেলেও ১১ বছরের রাহুল সাহুকে এখনও উদ্ধার করা যায়নি। জানা গিয়েছে ৮০ ফুটের একটি গভীর কুয়োতে সে পড়ে যায়। মুক ও বধির এই ছোট্ট শিশুর সুস্থতার অপেক্ষায় গোটা দেশ। 

বন্ধ করুন