বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > মুম্বই, চেন্নাই-সহ দেশের ১২টি শহর চলে যাবে জলের তলায়! অস্তিত্ব হারাবে খিদিরপুর
প্রতীকী ছবি, সৌজন্যে পিটিআই (PTI)

মুম্বই, চেন্নাই-সহ দেশের ১২টি শহর চলে যাবে জলের তলায়! অস্তিত্ব হারাবে খিদিরপুর

  • ভারতের ১২টি শহর চলে যেতে চলেছে জলের তলায়। এই শতাব্দীর মধ্যেই এই ঘটনা ঘটতে পারে বলে আশঙ্কা প্রকাশ করেছে আইপিসিসি।

ভারতের ১২টি শহর চলে যেতে চলেছে জলের তলায়। এই শতাব্দীর মধ্যেই এই ঘটনা ঘটতে পারে বলে আশঙ্কা প্রকাশ করেছে আইপিসিসি। সমুদ্রের জল স্তর বৃদ্ধির জেরে উপকূলবর্ত ১২টি ভারতীয় শহর বেশ কয়েক ফুট জলের তলায় যাবে। এই তালিকায় রয়েছে মুম্বই, চেন্নাই, কোচি এবং বিশাখাপত্তনমের মতো বড় বড় শহরের নাম।

'ইন্টারগভর্নমেন্টাল প্যানেল অন ক্লাইমেট চেঞ্জ'-এর তরফে প্রকাশিত জলস্তর বৃদ্ধি সংক্রান্ত রিপোর্টে বলা হচ্ছে যে ভারতের উপকূলবর্তী ১২টি শহরে আবহওয়ার পরিবর্তন খুব দ্রুত গতিতে হচ্ছে। এর জেরে সমুদ্রের জলস্তর বৃদ্ধি পাচ্ছে। যার জেরে এই শহরের অস্তিত্ব সঙ্কটের মুখে। রিপোর্টে আশঙ্কা প্রকাশ করা হয়েছে যে মুম্বই ফুট কান্ডলা জলের ১.৯০ ফুট নিচে যাবে। যাবে জলের ১.৯৬ ফুট নিচে। তাছাড়া, ভাবনগর-২.৭০ ফুট, , মার্মাগাঁও-২.০৬ ফুট, কান্ডলা-১.৮৭ ফুট, ওখা-১.৯৬ ফুট, ম্যাঙ্গালুরু-১.৮৭ ফুট, কোচিন-২.৩২ ফুট, পারাদ্বীপ-১.৯৩ ফুট, খিদিরপুর-০.৪৯ ফুট, বিশাখাপত্তনম-১.৭৭ ফুট, চেন্নাই-১.৮৭ ফুট, তুতিকোরিন-১.৯ ফুট নিচে চলে যাবে জলের।

প্রতি ৫-৭ বছর অন্তর পৃথিবীর আবহাওয়ার পরিবর্তন সংক্রান্ত বিষয় খতিয়ে দেখে 'ইন্টারগভর্নমেন্টাল প্যানেল অন ক্লাইমেট চেঞ্জ' নামক এই সংস্থা। ১৯৮৮ সাল থেকে এই কাজ শুরু করে সংস্থাটি। বিশ্ব উষ্ণায়ন, বরফের গলা, গ্রিনহাউস গ্যাস এবং সমুদ্রের জলস্তর বৃদ্ধির মতো পরিবেশগত বিষযগুলির উপর নজরদারি চালায় তারা। উপগ্রহ চিত্র এবং নানা বৈজ্ঞানিক পদ্ধতির মাধ্যমে সমুদ্রের জলস্তর সম্পর্কিত তথ্য সংগ্রহ করে আইপিসিসি।

আইপিসিসি-র রিপোর্টে বলা হয়, ২০০৬-১৮ সালের মধ্যে সমুদ্রের জলস্তর নিয়ে যে সমীক্ষা করা হয়েছে তাতে দেখা গিয়েছে, গোটা বিশ্বে প্রতি বছর জলস্তরের গড় বৃদ্ধি হয়েছে ৩.৭ মিলিমিটার। তবে গোটা বিশ্বের তুলনায় এশিয়ায় সমুদ্রের জলস্তরের গড় বৃদ্ধির হার অনেক বেশি বলে সতর্ক করা হয়েছে।

বন্ধ করুন