বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > লাদাখ দ্বন্দ্বের মাঝেই করোনা রোধে ভারতের দিকে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিল চিন
শি জিনপিং। (ফাইল ছবি, সৌজন্য মিন্ট)
শি জিনপিং। (ফাইল ছবি, সৌজন্য মিন্ট)

লাদাখ দ্বন্দ্বের মাঝেই করোনা রোধে ভারতের দিকে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিল চিন

  • ভারতকে করোনা রোধে সাহায্য করতে চেয়ে হাত বাড়িয়ে দিল চিন।

সুতীর্থ পত্রনোবিশ

 

লাদাখ সীমান্ত নিয়ে দ্বন্দ্ব মেটার নাম নেই। এই আবহে ভারত-চিন সম্পর্ক তলানিতে গিয়ে ঠেকেছে। এই পরিস্থিতিতে ভারতকে করোনা রোধে সাহায্য করতে চেয়ে হাত বাড়িয়ে দিল চিন। বৃহস্পতিবার চিন এই বিষয়ে বলে, কোভিড-১৯ অতিমারীর এক ভয়াবহ দ্বিতীয় ঢেউয়ের মুখোমুখি ভারত। এই পরিস্থিতিতে ভারতকে মহামারী প্রতিরোধ ও চিকিত্সার সরঞ্জাম সরবরাহ করতে প্রস্তুত চিন।

চিনের তরফে এদিন বলা হয়, কোভিড -১৯ মহামারীটি সমস্ত মানবজাতির শত্রু, এবং এই মহামারীটির বিরুদ্ধে লড়াই করার জন্য আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়কে ঐক্যবদ্ধ হওয়া দরকার। বর্তমানে ভারতে চিকিত্সার সরঞ্জাম এবং করোনা রোধে ব্যবহৃত বিভিন্ন জিনিসের ঘাটতি দেখা দিয়েছে। এই আবহে চিন ভারতকে সাহায্য করতে প্রস্তুত। উল্লেখ্য এর আগে ২০২০ সালে ভারত চিনকে নাম মাত্র দামের বিনিময়ে ১৫ টন মেডিক্যাল সরঞ্জাম পাঠিয়েছিল। এক লক্ষ সার্জিক্যাল মাস্ক, পাঁচ লক্ষ জোড়া সার্জিক্যাল গ্লাভস, ৭৫টি ইনফিউশন পাম্প, ৩০টি এন্টেরাল ফিডিং পাম্প, ২১টি ডেফিব্রিলেটর এবং চার হাজার এন ৯৫ মাস্ক পাঠানো হয়েছিল চিনে।

এদিকে করোনা যত বাড়ছে, ততই হাসপাতালগুলিতে অক্সিজেনের চাহিদা বাড়ছে। জোগান পর্যাপ্ত না থাকায় বাড়ছে অক্সিজেনের আকাল। দিল্লি, মহারাষ্ট্র, পশ্চিমবঙ্গের মতো রাজ্য়গুলির তরফে বারবার এ বিষয়ে অভিযোগও করা হচ্ছে। এই পরিস্থিতিতে হাসপাতালগুলিতে অক্সিজেনের চাহিদা, সরবরাহ ও অভাব নিয়ে উচ্চপর্যায়ের জরুরি বৈঠক করেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। 

 

বন্ধ করুন