বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > চিনের দাবি সেদেশে ওমিক্রন পার্সেল মারফৎ ছড়িয়েছে! কী বলছেন বিশেষজ্ঞরা?
  চিনের সড়কে পথচরী। ছবি সৌজন্য-   রয়টার্স/ কার্লোস গারসিয়া রাউলিন্স । (REUTERS)
  চিনের সড়কে পথচরী। ছবি সৌজন্য-   রয়টার্স/ কার্লোস গারসিয়া রাউলিন্স । (REUTERS)

চিনের দাবি সেদেশে ওমিক্রন পার্সেল মারফৎ ছড়িয়েছে! কী বলছেন বিশেষজ্ঞরা?

  • করোনার ভ্যারিয়েন্ট  ওমিক্রন ছড়ানো নিয়ে চিনের দাবি, তা কানাডা থেকে আসা পার্সেলে ছড়িয়েছে। তবে, বিশেষজ্ঞরা সংক্রমণ ছড়ানো নিয়ে দিচ্ছেন বড় বার্তা।

চিনের রাজধানী বেজিংয়ে প্রথম ওমিক্রন আক্রান্ত জানিয়েছেন, তিনি রোগের প্রকোপে পড়ার আগে কানাডা থেকে আসা একটি পার্সেল খুলেছিলেন। চিনের প্রশাসনের দাবি, সেই পার্সেল থেকেই চিনে ছড়িয়েছে ওমিক্রন। তাই ভিন দেশ থেকে আসা কোনও পার্সেল ধরার আগে দেশবাসীকে সাবধান করেছে চিন। চিনের স্বাস্থ্যমন্ত্রক কয়েকদিন আগেই বলেছে যে, ভিন দেশ থেকে আসা পার্সেলে সংক্রমণের সম্ভাবনা থেকে যায়। ফলে ৪ ফেব্রুয়ারি থেকে শুরু হতে চলা চিনের শীতকালীন অলিম্পিকের আগে দেশবাসীকে এই ইস্যুতে সতর্ক করেছে জিনপিং প্রশাসন। তবে প্রশ্ন উঠছে কোনও 'সার্ফেস' থেকে কতটা ছড়াতে পারে করোনা? জার উত্তর দিয়েছেন বিশেষজ্ঞরা।

বিশেষজ্ঞদের দাবি, সার্ফেস থেকে করোনা ছড়ানোর সম্ভাবনা অত্যন্ত ক্ষীণ। বিশেষত তা যদি হয় পেপার কিম্বা কার্ডবোর্ড। চিন দাবি করেছে, যে পার্সেল থেকে ওমিক্রন তাদের দেশে প্রথম আসে, তা কানাডা থেকে হংকং হয়ে বেজিং-এ আসে। এদিকে, ইউএস সেন্টার ফর ডিজিজ কন্ট্রোল অ্যান্ড প্রিভেনশন দাবি করেছে যে, ভাইরাস মানুষ থেকে মানুষে ছড়িয়ে যাচ্ছে। বিশেষত বায়ুতে থাকা ড্রপলেট দিয়ে তা ছড়িয়ে যায়। কোনও সার্ফেসের থেকে অনেক বেশি সম্ভাবনা থাকে মানুষ থেকে মানুষ করোনা ছড়িয়ে যাওয়ার।

এদিকে, জিনিপিং সরকার তার সতর্কবার্তায় জানিয়েছে, কোনও পার্সেল আসলেই তা হাতে গ্লাভস ও মুখে মাস্ক পরে খুলতে হবে। এমনকি করোনা যাতে চিনে বেশি ছড়িয়ে না পড়ে, তার জন্য বিদেশী জিনিস কেনা কমানোর দিকেও বার্তা দিয়েছে জিনপিং সরকার। এদিকে, সামনেই ৪ ফেব্রুয়ারি থেকে চিনে আয়োজিত হতে চলেছে শীতকালীন অলিম্পিক। সেখানে অলিম্পিক পার্কের সীমান্তের হায়দানে নতুন করে করোনার বাড়বাড়ন্তে উদ্বেগে চিনা প্রশাসন।

বন্ধ করুন