বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > কলকাতা থেকে পাঠানো মাছে মিলল কোভিড জীবাণু, ৭ দিন আমদানি বন্ধ চিনে
ওই ভারতীয় সংস্থার থেকে আপাতত এক সপ্তাহ কোনও পণ্য নেওয়া হবে না বলে সিদ্ধান্ত নিয়েছে চিনের শুল্ক বিভাগ।
ওই ভারতীয় সংস্থার থেকে আপাতত এক সপ্তাহ কোনও পণ্য নেওয়া হবে না বলে সিদ্ধান্ত নিয়েছে চিনের শুল্ক বিভাগ।

কলকাতা থেকে পাঠানো মাছে মিলল কোভিড জীবাণু, ৭ দিন আমদানি বন্ধ চিনে

  • কলকাতা থেকে পাঠানো তিনটি মাছের কার্টনে কোভিড জীবাণুর সন্ধান পাওয়ার পরে ওই ভারতীয় সংস্থার থেকে আপাতত এক সপ্তাহ কোনও পণ্য নেওয়া হবে না বলে সিদ্ধান্ত নিয়েছে চিনের শুল্ক বিভাগ।

কলকাতা থেকে পাঠানো মাছের কার্টনে পাওয়া গেল করোনাভাইরাস। তার জেরে সংশ্লিষ্ট ভারতীয় সংস্থার মাধ্যমে সামুদ্রিক খাদ্যপণ্য আমদানি স্থগিত ঘোষণা করল চিন।

চিনা সংবাদমাধ্যম জানিয়েছে, শুক্রবার কলকাতা থেকে পাঠানো তিনটি মাছের কার্টনে কোভিড জীবাণুর সন্ধান পাওয়ার পরে ওই ভারতীয় সংস্থার থেকে আপাতত এক সপ্তাহ কোনও পণ্য নেওয়া হবে না বলে সিদ্ধান্ত নিয়েছে চিনের শুল্ক বিভাগ। 

নিয়ম অনুযায়ী এর সঙ্গেই ওই মাছ আমদানির সঙ্গে যুক্ত সব কর্মীর কোভিড পরীক্ষা করা হবে। তার রিপোর্ট না পাওয়া পর্যন্ত তাঁদের বিচ্ছিন্ন রাখা হবে। 

চিনা সংবাদমাধ্যম দাবি করেছে, এর আগেও ভারত থেকে আমদানি করা বরফে জমানো মাছের প্যাকেটে কোভিড জীবাণু পাওয়া গিয়েছে। চলতি মাসের গোড়াতেই উত্তর চিনের শাংসি প্রদেশের তাইউয়ান শহরে বরফে জমানো হেয়ারটেল প্রজাতির মাছের প্যাকেটে করোনাভাইরাস পাওয়া গিয়েছিল। চিনের সরকারি সংবাদ চ্যানেল সিসিটিভি জানিয়েছে, মাছগুলি তিয়ানজিন বন্দর থেকে তাইউয়ানে পৌঁছেছিল। ঘটনার জেরে বন্দরের কর্মীদের নিউক্লিয়িক অ্যাসিড টেস্টিং পদ্ধতির মাধ্যমে পরীক্ষা করা হয়। সেই সঙ্গে, অঞ্চলের সব কর্মীকে কেন্দ্রীয় ভাবে বিচ্ছিন্ন করে রাখা হয়। 

উল্লেখ্য, বিপুল চাহিদা পূর্ণ করতে ৮৮টি দেশ থেকে মাছ আমদানি করে চিন। এর মধ্যে ২৩টি এশীয় দেশ এবং ২৬টি ইউরোপীয় রাষ্ট্র। এ পর্যন্ত ভারত ছাড়াও ইন্দোনেশিয়া, রাশিয়া, নেদারল্যান্ডস, নরওয়ে ও ইকুয়েডর থেকে মাছ আমদানি করে চিন।

বন্ধ করুন