বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > হংকংয়ের প্রধান নির্বাহী হলেন চিন-সমর্থিত জন লি
সস্ত্রীক জন লি। ছবি: এএফপি (AFP)
সস্ত্রীক জন লি। ছবি: এএফপি (AFP)

হংকংয়ের প্রধান নির্বাহী হলেন চিন-সমর্থিত জন লি

আগামী ১ জুলাই প্রধান নির্বাহী হিসাবে তাঁর পাঁচ বছরের মেয়াদ শুরু করবেন জন লি। প্রাক্তন প্রধান নির্বাহী ক্যারি লামের স্থান নেবেন তিনি। ক্যারি লাম গত মাসে নির্বাচনে অংশ না নেওয়ার সিদ্ধান্ত ঘোষণা করেছিলেন।

বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় হংকংয়ের পরবর্তী প্রধান নির্বাহী আসন পেলেন জন লি। হংকংয়ে চিন-সমর্থিত জন লিয়ের প্রবেশে সেখানকার অর্থনীতিতে বেজিংয়ের সরাসরি প্রভাব আসতে পারে, মত বিশেষজ্ঞদের।

হংকং কনভেনশন অ্যান্ড এক্সিবিশন সেন্টারের নির্বাচনী রিটার্নিং অফিসার জানান, জন লি রবিবার প্রায় ১,৪৬০ জন ভোটারের থেকে ১,৪১৬ ভোট পেয়ে জয়ী হয়েছেন। যা কিনা প্রয়োজনীয় সাধারণ সংখ্যাগরিষ্ঠতার চেয়ে অনেকটাই বেশি।

আগামী ১ জুলাই প্রধান নির্বাহী হিসাবে তাঁর পাঁচ বছরের মেয়াদ শুরু করবেন জন লি। প্রাক্তন প্রধান নির্বাহী ক্যারি লামের স্থান নেবেন তিনি। ক্যারি লাম গত মাসে নির্বাচনে অংশ না নেওয়ার সিদ্ধান্ত ঘোষণা করেছিলেন।

৬৪ বছর বয়সী জন লি এর আগে হংকংয়ের প্রশাসনের মুখ্য সচিব হিসাবে দায়িত্ব পালন করেছিলেন। অর্থাত্, এতদিন হংকংয়ের ২ নম্বর স্থানে ছিলেন তিনি। রবিবার প্রায় ৯৮% ভোট পড়েছিল। ভোট গণনা এক ঘণ্টার মধ্যে সম্পন্ন হয়।

রবিবারের ব্যালটটি ছিল শহরের প্রথম যা দুই দশকেরও বেশি সময়ের মধ্যে অন্তত একটি নামমাত্র প্রতিদ্বন্দ্বিতা ছাড়াই অনুষ্ঠিত হয়েছিল, গত বছর শহরে চীনের রাজনৈতিক পরিবর্তনের ফলে বিরোধী প্রার্থীর পক্ষে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করা অসম্ভব হয়ে পড়েছিল এবং লি-কে কমিউনিস্ট পার্টির সমর্থন তার বিজয় প্রদান করেছিল। একটি বিশ্বাস সম্পন্ন

হংকংয়ের গত দুই দশকেরও বেশি সময়ের মধ্যে এটি প্রথম ভোটদান ছিল। গত বছর হংকংয়ে চিনের রাজনৈতিক পরিবর্তনের ফলে বিরোধী প্রার্থীর পক্ষে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করা অসম্ভব হয়ে যায়। জন লিয়ের উপর কমিউনিস্ট পার্টির সমর্থন ছিলই। ফলে ভোটের আগেই কার্যত জয়ী ছিলেন তিনি।

ন্যাশনাল পিপলস কংগ্রেসের ডেপুটি এবং শহরের আইন প্রণেতা স্ট্যানলি এনজি বলেন, নয়া নির্বাচনী ব্যবস্থা ভবিষ্যতেও সাধারণ নীচি হয়ে উঠবে বলে মনে করা হচ্ছে।

বন্ধ করুন